৩০ শ্রাবণ  ১৪২৫  বুধবার ১৫ আগস্ট ২০১৮  |  মোর নাম এই বলে খ্যাত হোক, আমি তোমাদেরই লোক: রবীন্দ্রনাথ ঠাকুর

মহানগর রাজ্য দেশ ওপার বাংলা বিদেশ খেলা বিনোদন লাইফস্টাইল এছাড়াও রাশিয়ায় মহারণ ফটো গ্যালারি ভিডিও গ্যালারি ই-পেপার

সুকুমার সরকার, ঢাকা: বিখ্যাত ফটোগ্রাফারের পরে এবার অভিনেত্রী। ছাত্র আন্দোলনের সমর্থনে কথা বলার জন্য গত রবিবার গভীর রাতে ফটোগ্রাফার শহিদুল আলমকে বাড়ি থেকে তুলে আনে পুলিশ। এবার একই অভিযোগে বৃহস্পতিবার অভিনেত্রী কাজী নওশাবা আহমেদকে গ্রেপ্তার করল ব়্যাব। ঢাকার উত্তরা অঞ্চল থেকে তাঁকে গ্রেপ্তার করা হয়েছে। ব়্যাবের সদর কার্যালয়ে তাঁকে জেরা করা হচ্ছে বলে জানা গিয়েছে।

[শহিদুল আলমের মুক্তি চাই, হাসিনাকে খোলা চিঠি রঘু রাইয়ের]

প্রসঙ্গত, বুধবার নওশাবা ফেসবুকে পোস্ট করেন, জিগাতলা মোড়ে আন্দোলনরত দুই ছাত্র খুন হয়েছে। আর একজনের চোখ উপড়ে নেওয়া হয়েছে। জনগণের উদ্দেশে অভিনেত্রী আহ্বান জানিয়েছেন, ঐক্যবদ্ধ হোন। রাস্তায় নেমে ছাত্রদের রক্ষা করুন। শনিবার দুপুরে জিগাতলায় ট্রাফিক নিয়ন্ত্রণ করার সময় ছাত্ররা আক্রান্ত হয়। বাংলাদেশ ছাত্র লিগের ২৫-৩০ জন কর্মী লাঠি হাতে তাদের দিকে তেড়ে যায় বলে অভিযোগ। ছাত্রদের সঙ্গে তাদের মারামারি বাধে। শেষে বিজিবি কর্মীরা পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে আনেন।

[ছাত্র বিক্ষোভের জের, সোশ্যাল মিডিয়ায় গুজব রুখতে উদ্যোগী ঢাকা]

শহিদুল আলমকে শারীরিক পরীক্ষা ও চিকিৎসার জন্য হাসপাতালে পাঠাতে নির্দেশ দিয়েছিল আদালত। বুধবার হাসপাতালে শহিদুলের শারীরিক পরীক্ষা করা হয়। তারপর তাঁকে ফের হেফাজতে নেন গোয়েন্দারা। গোয়েন্দাদের দাবি, শহিদুল সুস্থ। তাই তাঁকে হেফাজতে নেওয়া হয়েছে। আদালতের নির্দেশের বিরুদ্ধে আবেদন করে সরকার। আগামী সোমবার পর্যন্ত সেই শুনানি মুলতুবি রেখেছে আদালত।

[বাংলাদেশের শিশুরাই ভাল দেশ চালাতে পারে, ফেসবুকে সরব তসলিমা]

আরও পড়ুন

আরও পড়ুন

ট্রেন্ডিং