বিটকয়েন পাইয়ে দেওয়ার নামে প্রতারণা, পুলিশের জালে ৬ অভিযুক্ত

সংবাদ প্রতিদিন ডিজিটাল ডেস্ক:  বিটকয়েন পাইয়ে দেওয়ার টোপ দিয়ে প্রতারণা চক্রের হদিশ পেল পুলিশ। উত্তর ও দক্ষিণ ২৪ পরগনার বিভিন্ন জায়গায় অভিযান চালিয়ে ৬ জনকে গ্রেপ্তার করেছে বিধাননগর দক্ষিণ থানার পুলিশ। ধৃতদের বিরুদ্ধে প্রতারণা, সাইবার অপরাধ-সহ একাধিক ধারায় মামলা রুজু হয়েছে।

[ত্রিপুরা ভোটের নাম করে তোলাবাজি, সব্যসাচীর বিরুদ্ধে অভিযোগ ব্যবসায়ীর]

দিল্লির একটি বহুজাতিক সংস্থায় চাকরি করেন শান্তনু শর্মা। রাজধানীতেই থাকেন তিনি। শান্তনু যে সংস্থার চাকরি করেন, সেই সংস্থার সঙ্গে বিদেশি সংস্থার ব্যবসায়িক লেনদেন আছে। শান্তনু শর্মা জানিয়েছেন, অফিসের কাজের সুবাদে ফোনে কলকাতার বাসিন্দা অশোক দাস নামে এক ব্যক্তির সঙ্গে যোগাযোগ হয় তাঁর। শান্তনুকে কয়েক লক্ষ টাকা বিটকয়েন দেওয়ার প্রতিশ্রুতি দেয় অশোক। কলকাতায় চলে আসেন বহুজাতিক সংস্থার ওই কর্মী। ১০ জানুয়ারি অশোকের সঙ্গে দেখা করে, তাঁকে নগদ ৬১ লক্ষ ৮৫ হাজার দেন শান্তনু। কিন্তু, সমমূল্যের বিটকয়েন দেওয়া তো দুর অস্ত, টাকা নিয়ে অশোক বেপাত্তা হয়ে যায় বলে অভিযোগ। প্রায় ১ মাস পর, ১১ ফ্রেরুয়ারিতে বিধাননগর দক্ষিণ থানায় প্রতারণার অভিযোগ দায়ের করেন শান্তনু শর্মা।

[নাবালিকা ছাত্রীকে শ্লীলতাহানির জের, অভিযুক্তকে বেধড়ক মার মহিলা মোর্চার]

তদন্তে নেমে ঘনশ্যাম মিস্ত্রি ওরফে রূপেশ নামে একজনকে আগেই গ্রেপ্তার করেছিল বিধাননগর দক্ষিণ থানার পুলিশ। সোমবার রাতভর উত্তর ও দক্ষিণ ২৪ পরগনায় পুলিশি অভিযানে ধরা পড়ে মূল অভিযুক্ত অশোক-সহ ৬ জন। ধৃতেরা হল শিবশংকর দাস ওরফে অশোক রায়, লক্ষ্মণ মণ্ডল, তাপস বিশ্বাস, স্নেহাশিস মুখোপাধ্যায়, অবনীশ মজুমদার ও বুলবুল শেখ। তদন্তকারীরা জানিয়েছে, ১০ জানুয়ারি সল্টলেকে সেক্টর-৩-এ অভিযোগকারীর সঙ্গে দেখা করেছিল শিবশংকর দাস, তার গাড়ির চালক বুলবুল ও ঘনশ্যাম মিস্ত্রি। শিবশংকর ও ঘনশ্যাম নিজেদের অশোক রায় ও রূপেশ বলে পরিচয় দিয়েছিল।

[লাইনে বেআইনিভাবে শুটিং করলেও পদক্ষেপে যাচ্ছে না রেল

কিন্তু, বিটকয়েন কী?  এই বিটকয়েন হল ভার্চুয়াল মুদ্রা। অর্থাৎ চোখে দেখা না গেলেও, এই মুদ্রায় লেনদেন করা সম্ভব। সারা বিশ্ব জুড়ে এই বিটকয়েনের জনপ্রিয়তা তুঙ্গে। এই মুদ্রা চোখে যায় না। তাই বিটকয়েনে মাধ্যমে লেনেদেন কোনওভাবেই নজরদারি চালানো সম্ভব নয়। ব্যাঙ্ক বা ওই জাতীয় আর্থিক প্রতিষ্ঠানের নিয়ম মেনে বিটকয়েনে লেনদেন চলে না।

[পুরসভার পানীয় জলে কিলবিল করছে পোকা! আতঙ্ক ছড়াল সন্তোষপুরে]

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *