বেতন বাড়াতে হবে না, ভাল খাবার ও ছুটি চাই: তেজ বাহাদুর

সংবাদ প্রতিদিন ডিজিটাল ডেস্ক: সেনাবাহিনীর আচরণ বিধি ভেঙে চাকরি থেকে বরখাস্ত তেজ বাহাদুর যাদবের গলায় অভিযোগের সুর। বৃহস্পতিবার সংবাদ সংস্থা এএনআইয়ের কাছে তিনি জানিয়েছেন, বিএসএফ কর্তাদের সিদ্ধান্তের বিরুদ্ধে প্রয়োজনে তিনি আদালতে যাবেন। কেন্দ্রকে তাঁর পাশে দাঁড়ানোর আবেদনও জানিয়েছেন তিনি।

তেজ বাহাদুর যাদবের বক্তব্য, “আমি কেন্দ্রের কাছে অনুরোধ করব এই ইস্যুতে তাঁরা যেন আমার পাশে দাঁড়ান। তবে যদি কেন্দ্রও কোনও সাহায্য না করে তাহলে আমি আদালতের দ্বারস্থ হব। মন্ত্রী ও তাঁদের দপ্তরের কাছে আবেদন জানাব।” তিনি আরও বলেন, “কেন্দ্রের কাছে আমার অনুরোধ সেনাদের আবেদনে সাড়া দিন। বেতন বাড়াতে হবে না, অন্তত ঠিক সময়ে ছুটি দিন। একটু ভাল খেতে দিন।”

খাবারের মান নিয়ে প্রশ্ন তোলায় তাঁকে সেনাবাহিনী থেকে বরখাস্ত করা হয়েছে বলে এদিনও অভিযোগ করেছেন তিনি। “খাবারের গুণগত মান কীরকম, তার প্রমাণ এখনও ভিডিও-য় রেখে দিয়েছি আমি। সত্যি বলতে গিয়ে আমার চাকরি গেল। তবে সব সেনা অফিসার যে দুর্নীতিগ্রস্ত এমনটা নয়, কিন্তু অন্তত ৫০ শতাংশ সেনা অফিসারই নিম্নমানের খাবার পরিবেশনের জন্য দায়ী।”

জওয়ানদের জন্য বরাদ্দ নিম্নমানের খাবারের ভিডিও ফেসবুকে দিয়েছিলেন তেজ বাহাদুর৷ সেই ভিডিও নিয়ে দেশ জুড়ে তৈরি হয় বিতর্ক৷ মুহূর্তের মধ্যে তা ভাইরাল হয়ে যায়৷ বিরোধী দলগুলি অভিযোগ তোলে জওয়ানদের জীবনযাপন ও স্বাস্থ্যের দিকে নজর দিচ্ছে না সরকার৷ গোটা ঘটনার জেরে প্রধানমন্ত্রীর দফতর থেকে সব অভিযোগ খতিয়ে দেখার নির্দেশ দেওয়া হয়৷ গতকালই ভারতীয় সীমান্তরক্ষী বাহিনী থেকে বরখাস্ত করা হয় তেজ বাহাদুরকে।

তাঁর বিরুদ্ধে বিএসএফ-এর প্রোটোকল ভাঙার অভিযোগ রয়েছে। সোশ্যাল মিডিয়ায় মিথ্যা কথা বলা, কর্তাদের নিয়ম অমান্য, ডিউটির সময় দু’টি মোবাইল ফোন ব্যবহার ও সেনার উর্দি গায়ে সোশ্যাল মিডিয়ায় ছবি পোস্ট করার মতো অভিযোগ রয়েছে তাঁর বিরুদ্ধে। আপাতত তাঁকে বরখাস্ত করা হয়েছে। তবে সেনার নিয়ম মেনে তিনি নিজের স্বপক্ষে সওয়াল করতে পারেন। সেক্ষেত্রে সেনাবাহিনী তাঁকে সবরকমভাবে সমর্থন করবে।

[প্রতিবাদের ‘সাজা’, বরখাস্ত করা হল জওয়ান তেজ বাহাদুরকে]

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *