জি ডি বিড়লা কাণ্ডে নির্যাতিতা শিশুর মেডিক্যাল টেস্ট এসএসকেএম-এ

সংবাদ প্রতিদিন ডিজিটাল ডেস্ক:  মঙ্গলবারই হওয়ার কথা ছিল। কিন্তু হয়নি। জি ডি বিড়লার আক্রান্ত শিশুটির মেডিক্যাল টেস্ট হল বুধবার। এসএসকেএম-এ। জানা গিয়েছে, এদিন ফের স্কুলের প্রিন্সিপাল শর্মিলা নাথ ও শিশুটির ক্লাস টিচারকে লালবাজারে তলব করা হতে পারে। দু’জনকে মুখোমুখি বসিয়েও জেরা করতে পারেন তদন্তকারীরা। বিকেলে গার্ডিয়ান ফোরামের সঙ্গে বৈঠকে বসবে জি ডি বিড়লা স্কুল কর্তৃপক্ষ। পুলিশি তদন্তের গতিপ্রকৃতি দেখে বৈঠকে প্রিন্সিপালকে অপসারণ নিয়ে সিদ্ধান্ত ঘোষণা করা হবে বলে জানিয়েছে স্কুল কর্তৃপক্ষ।

[আপাতত খুলছে না জি ডি বিড়লা, বুধবার বিকেল পর্যন্ত সময় চাইল কর্তৃপক্ষ]

জি ডি বিড়লা কাণ্ডে প্রতিবাদে উত্তাল গোটা রাজ্য।  অভিযোগ পাওয়া মাত্র সক্রিয় হয়েছে পুলিশও। অভিযুক্ত দুই শিক্ষককে গ্রেপ্তার করাই শুধু নয়, স্কুলের প্রিন্সিপালকে লালবাজারে ডেকে পাঠিয়ে একপ্রস্থ জেরা করেছেন তদন্তকারীরা। আদালতে নিয়মমাফিক আক্রান্ত শিশুটির মেডিক্যাল টেস্ট করানোর আবেদন জানিয়েছিল পুলিশ। সেই আবেদন মঞ্জুর করেছে আদালত। তবে মঙ্গলবার করার কথা থাকলেও, সেদিন ওই শিশুটির মেডিক্যাল টেস্ট হয়নি। বুধবার সকালে আক্রান্ত শিশুটিকে এসএসকেএম হাসপাতালে আনা হয়। সেখানে তাঁর মেডিক্যাল টেস্ট হয়।

[স্কুল বন্ধ হবে না, জি ডি বিড়লা কাণ্ডে রাজনীতিতে আপত্তি মমতার]

সূত্রের খবর, বুধবার ফের জি ডি বিড়লার স্কুলের প্রিন্সিপাল শর্মিলা নাথকে লালবাজারে তলব করা হতে পারে। তলব করা হতে পারে আক্রান্ত শিশুটির ক্লাস টিচারকেও। দুজনকে মুখোমুখি বসিয়ে জেরা করতে পারেন তদন্তকারীরা। প্রসঙ্গত, জি ডি বিড়লা কাণ্ডে প্রিন্সিপালের বিরুদ্ধে অভিযোগ দায়ের হয়েছে। মঙ্গলবার প্রিন্সিপাল শর্মিলা নাথকে লালবাজারে ডেকে জেরা করা হয়েছে। তদন্তকারীদের দাবি, প্রিন্সিপালের বক্তব্যে বেশ কিছু অসঙ্গতি পাওয়া গিয়েছে।

[গোয়েন্দাদের জেরায় ভেঙে পড়লেন ‘ডাকাবুকো’ প্রিন্সিপাল শর্মিলা]

এই পরিস্থিতিতে বুধবার বিকেলে গার্ডিয়ান ফোরামের প্রতিনিধিদের সঙ্গে  ফের বৈঠকে বসছে স্কুল কর্তৃপক্ষ। প্রিন্সিপাল শর্মিলা নাথকে অপসারণ ও গ্রেপ্তারের দাবি তুলেছেন অভিভাবকরা। মঙ্গলবার এই নিয়ে স্কুল কর্তৃপক্ষের সঙ্গে বৈঠক করেন গার্ডিয়ান ফোরামের প্রতিনিধিরা। বৈঠকে বুধবার বিকেল পাঁচটা পর্যন্ত সময় চেয়েছিলেন স্কুল কর্তৃপক্ষ। নির্ধারিত সময়মীমার পর, বিকেলে ফের বৈঠক হবে। জি ডি বিড়লা স্কুল সূত্রে খবর, পুলিশি তদন্তের গতিপ্রকৃতি দেখার পর প্রিন্সিপালকে অপসারণ করা নিয়ে সিদ্ধান্ত নেওয়া হবে। বৈঠকে তা জানিয়েও দেওয়া হবে।

[নৌকায় দোকানি, সাঁকোয় আপনি: মহানগরের নয়া ডেস্টিনেশন ভাসমান বাজার]

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *