৩০ শ্রাবণ  ১৪২৫  বুধবার ১৫ আগস্ট ২০১৮  |  মোর নাম এই বলে খ্যাত হোক, আমি তোমাদেরই লোক: রবীন্দ্রনাথ ঠাকুর

মহানগর রাজ্য দেশ ওপার বাংলা বিদেশ খেলা বিনোদন লাইফস্টাইল এছাড়াও রাশিয়ায় মহারণ ফটো গ্যালারি ভিডিও গ্যালারি ই-পেপার

সংবাদ প্রতিদিন ডিজিটাল ডেস্ক: স্বাধীনতা দিবসের জন্য প্রস্তুতি শুরু হয়ে গিয়েছে। ইতিমধ্যেই আলোয় সেজে উঠেছে দিল্লির লালকেল্লা। শুক্রবার থেকে প্রতিদিন সন্ধ্যা সাড়ে সাতটা খেকে রাত ১১টা পর্যন্ত প্রায় আড়াই হাজার বাতি জ্বলবে ঐতিহাসিক এই কেল্লায়।

পাতা কুড়িয়ে আয় ৯৭ হাজার, বুড়ো হাড়ে ভেলকি দেখালেন আদিবাসী বৃদ্ধা ]

সংস্কৃতি মন্ত্রক থেকে জানানো হয়েছে, লালকেল্লার সমস্ত দেওয়াল ও দু’টি বিখ্যাত গেট আলো দিয়ে সাজানো হয়েছে। এই গেট দু’টি হল লাহরি গেট ও দিল্লি গেট। সংস্কৃতি দপ্তরের প্রতিমন্ত্রী মহেশ শর্মার উপস্থিতিতে এই আলোকসজ্জার অনুষ্ঠানটি সম্পন্ন হয়। এছাড়া সংস্কৃতি মন্ত্রকের সচিব অরুণ গোয়েল, প্রত্নতাত্ত্বিক বিভাগের ডিরেক্টর জেনারেল ঊষা শর্মা, এনবিসিসির রমন আগরওয়াল অনুষ্ঠানে উপস্থিত ছিলেন।

মুঘল আমলের উল্লেখযোগ্য স্থাপত্য লালকেল্লা। সূর্যাস্তের সময় এই কেল্লার দৃশ্য দেখার মতো। এর টানেই দূরদূরান্ত থেকে আসে পর্যটকরা। মহেশ শর্মা জানিয়েছেন, লালকেল্লার প্রত্নতাত্ত্বিক মহত্ত্ব পর্যটকের সামনে তুলে ধরাই পর্যটন মন্ত্রকের উদ্দেশ্য। শুধু স্থানীয়রাই নয়, দেশ বিদেশের পর্যটকরা যাতে রাতেও লালকেল্লা দেখতে আসে, তাই চান তাঁরা। ঐতিহাসিক এই কেল্লাটি আলো দিয়ে সাজানোর পিছনে এটিও একটি বড়সড় কারণ বলে জানিয়েছেন তিনি।

গোমাংস ভক্ষণ করা নেহরু পণ্ডিত নয়, বিস্ফোরক বিজেপি বিধায়ক ]

১.৩ কিলোমিটার দীর্ঘ এলাকায় বাতি লাগানোর কাজ করছে ন্যাশনাল বিল্ডিং কনস্ট্রাকশন কর্পোরেশন (NBCC)। কেল্লার বিভিন্ন জায়গায় বিভিন্ন অ্যাঙ্গেল থেকে লাগানো হবে আলো। যাতে কেল্লার স্থাপত্য আরও বেশি করে নজরে পড়ে, তাই এভাবে আলো লাগানোর পরিকল্পনা করা হয়েছে। এর জন্য প্রাথমিকভাবে ৩ কোটি টাকা বরাদ্দ করা হয়। কেল্লায যে আলোগুলি লাগানো হবে, তার সবক’টিই এলইডি। রোজ সন্ধ্যা সাড়ে সাতটা থেকে রাত ১১টা পর্যন্ত জ্বলবে এই আলো। এই প্রজেক্টে যৌথভাবে কাজ করছে ভারতের প্রত্নতাত্তিক বিভাগ ও এনবিসিসি।

আরও পড়ুন

আরও পড়ুন

ট্রেন্ডিং