৩০ শ্রাবণ  ১৪২৫  বুধবার ১৫ আগস্ট ২০১৮  |  ৭২ তম স্বাধীনতা দিবসের শুভেচ্ছা

মহানগর রাজ্য দেশ ওপার বাংলা বিদেশ খেলা বিনোদন লাইফস্টাইল এছাড়াও রাশিয়ায় মহারণ ফটো গ্যালারি ভিডিও গ্যালারি ই-পেপার

অর্ণব আইচ: বয়স মোটে আড়াই বছর। ভাল করে কথা বলতে পারে না। তাই স্পিচ থেরাপিস্টের দ্বারস্থ হয়েছিল পরিবারের সদস্যরা। কিন্তু সেখানে যে শিশু এমন নির্যাতিত হবে কে জানত! স্পিচ থেরাপিস্টের মারে মাথা ফাটল শিশুর। অভিযোগের ভিত্তিতে গ্রেপ্তার শিক্ষিকা।

[  নাবালিকাকে যৌন নিগ্রহ, পালাতে গিয়ে পাকড়াও মদ্যপ যুবক ]

ঘটনা আনোয়ার শাহ এলাকার। সেখানেই একটি স্পিচ থেরাপি ইনস্টিটিউটে নিজের বাচ্চাকে ভরতি করেছিলেন এক ব্যক্তি। বাচ্চার বয়স মোটে আড়াই বছর। ভাল করে এখনও কথা বলতে পারে না। কোনও একটা সমস্যা হচ্ছে ভেবেই থেরাপিস্টের দ্বারস্থ হয়েছিলেন ওই ব্যক্তি। কিন্তু তাতে হিতে বিপরীত। অভিযোগ, স্পিচ থেরাপির নামে বাচ্চাকে ব্যাপক মারধর করা হয় ইনস্টিটিউটে। ঘটনায় অভিযুক্ত শিক্ষিকা চৈতালী মুখোপাধ্যায়। বাচ্চাটির বাবা অভিযোগ করেছেন, তাঁর ছেলের মাথায় আঘাত করা হয়েছে। আঘাত এতটাই জোরাল যে মাথায় ফুটো হয়ে  রক্ত বেরতে থাকে। শিশুর আঘাতের সে ছবি প্রকাশ্যেও এসেছে। এরপরই তাঁর অভিযোগের ভিত্তিতে গ্রেপ্তার করা হয় ওই শিক্ষিকাকে। যদিও শিক্ষিকা পালটা অভিযোগ করেছেন বাচ্চাটির বাবার বিরুদ্ধে। তাঁর দাবি, বাচ্চাটির বাবাই তাঁর গায়ে হাত তুলেছেন। তাঁকে চড় মেরেছেন। পুরো ঘটনার তদন্তে নেমেছে পুলিশ।

[  সরকারি ডিপোতে থাকবে বেসরকারি বাসও, যানজট এড়াতে পদক্ষেপ পরিবহণ দপ্তরের ]

এর আগে একাধিক ক্ষেত্রে শিশুকে নির্যাতনের অভিযোগ উঠেছে আয়ার বিরুদ্ধে। অন্যান্য শহরের সে ছবি প্রকাশ্যেও এসেছে। কোথাও আবার মা-বাবার অনুপস্থিতিতে শিশুকে তুলে আছাড় পর্যন্ত মারা হয়েছে। কিছুদিন আগের সে ঘটনায় রীতিমতো শোরগোল পড়েছিল গোটা দেশে। এবার শিশু নির্যাতনের অভিযোগ থেকে বাদ গেল না কলকাতাও।

আরও পড়ুন

আরও পড়ুন

ট্রেন্ডিং