৩০ শ্রাবণ  ১৪২৫  বুধবার ১৫ আগস্ট ২০১৮  |  মোর নাম এই বলে খ্যাত হোক, আমি তোমাদেরই লোক: রবীন্দ্রনাথ ঠাকুর

মহানগর রাজ্য দেশ ওপার বাংলা বিদেশ খেলা বিনোদন লাইফস্টাইল এছাড়াও রাশিয়ায় মহারণ ফটো গ্যালারি ভিডিও গ্যালারি ই-পেপার

সংবাদ প্রতিদিন ডিজিটাল ডেস্ক: অনেক পুরুষের মনে একটা ভুল ধারণা আছে। মহিলাদের জন্য যৌনতা সবসময় তৃ্প্তিদায়ক। তাই মহিলারা এক পা এগোলেই পুরুষরা সময় নষ্ট না করে সঙ্গমের জন্য প্রস্তুতি নেয়। কিন্তু অনেকসময় দেখা যায়, এমন অনেক কিছু আছে যার জন্য মেয়েদের যৌন চাহিদা জেগেও চলে যায়।

১) ফোরপ্লে-র সময় তাড়াহুড়ো করা

মহিলামাত্রই ফোরপ্লে একটু বেশি রকমের পছন্দ। যৌনতার আগে সব মেয়েরাই চায় ফোরপ্লে। কিন্তু অনেক ক্ষেত্রে পুরুষরা এই পর্যায়টি এড়িয়ে যায়। আর ফোরপ্লে করলেও তা সারে খুব তাড়াতাড়ি। আর এখানেই অনেক মেয়ের যৌন চাহিদা যায় কমে। উলটো দিকে সময় নিয়ে ফোরপ্লে করলে যৌন চাহিদা বাড়ে। মিলন অনেক বেশি তৃপ্তিদায়ক।

বয়স হলেই পাক ধরে বন্ধুতায়, কী বলছেন মনোবিদ? ]

২) অর্গ্যাজম

যৌন তৃপ্তির চূড়ান্ত পর্যায় হল অর্গ্যাজম। মহিলা ও পুরুষ, উভয়ের ক্ষেত্রেই এটি খাটে। এই সময় যদি মহিলাদের অর্গ্যাজম এড়িয়ে যাওয়া হয়, তার ফল কিন্তু খুব একটা ভাল হয় না। মহিলারা এই জায়গা থেকে একবার সরে গেলে সহজে ফিরে আসতে পারে না। আর যদি এই অর্গ্যাজম এড়িয়ে না গিয়ে মহিলাদের তৃপ্ত করা যায়, তাহলে সঙ্গমের পর আপনি এক নতুন অনুভূতি পাবেন।

৩) অপরিচ্ছন্নতা

পরিচ্ছন্নতা মহিলাদের কাছে খুব গুরুত্বপূর্ণ বিষয়। তাই সঙ্গমের আগে প্রত্যেক স্নান আর ব্রাশ করে নিলে ভাল।

৪) প্রাক্তনের কথা না তোলাই ভাল

বর্তমান প্রেমিকার সঙ্গে সঙ্গমের সময় যদি প্রাক্তনের কথা মনে আসে, আর তার কথা অজান্তেই মুখ দিয়ে বেরিয়ে আসে তাহলে বর্তমানকেও হারানোর সমূল সম্ভাবনা থাকে। হতেই পারে প্রাক্তন বিছানায় অনেক বেশি ভাল ছিল। কিন্তু ভুলেও তা প্রকাশ করা উচিত নয়।

৫) অ্যাগ্রেসিভ হওয়া

ওয়াইল্ড সেক্স আর অ্যাগ্রেসিভ সেক্সের মধ্যে পার্থক্য আছে। অতিরিক্ত প্যাশনেট হলে মহিলাদের সেটা পছন্দ নাও হতে পারে। উলটে মহিলারা অস্বস্তিতে পড়তে পারে। এক্ষেত্রে সবচেয়ে ভাল হয় যদি সঙ্গমের আগে সরাসরি দু’পক্ষের মধ্যে কথাবার্তা চালিয়ে নেওয়া যায়। না হলে অল্প অ্যাগ্রেসিভনেস ডেকে আনতে পারে চরম ব্যর্থতা।

কেবল মহিলারা নন, মিলনের পর মন খারাপ হয় পুরুষদেরও ]

৬) বিছানায় নিজেকে স্বচ্ছ্ব রাখা

পরিস্থিতি যাই হোক, বিছানায় নিজেকে স্বচ্ছ্ব রাখা উচিত। নিজের পছন্দ-অপছন্দ যেমন স্পষ্টভাবে বলে দেওয়া উচিত, তেমনই উলটো দিকের মানুষটির পছন্দ-অপছন্দও জেনে নেওয়া দরকার। একে ভুল বোঝাবুঝির সম্ভাবনা থাকে না। এছাড়া সেক্সের সময় মুড একটি বড় বিষয়। এটি কোনওভাবেই অবহেলা করা চলবে না।

৭) দেহে রোম

যদি প্রেমিকার দেহের রোম কোনও পুরুষের পছন্দ না হয়, তবে মহিলাদেরও যে পুরুষের এই ব্যাপারটি পছন্দ হবে না, তা খুব স্বাভাবিক বিষয়। তাই মহিলাদের ইমপ্রেস করতে হলে এই বিষয়টি মাথায় রাখুন। 

আরও পড়ুন

ট্রেন্ডিং