রাস্তা সংস্কারের দাবিতে প্রশাসনকে ডেডলাইন, নইলে ভোট বয়কটের ডাক বাসিন্দাদের

রাজা দাস, বালুরঘাট: চলাচলের অযোগ্য মাটির রাস্তা পাকা করার জন্য এবার প্রশাসনকেই সময়সীমা বেঁধে দিলেন গ্রামবাসীরা৷ কোনও আবেদন নিবেদন বা আরজি নয়, এবারের পঞ্চায়েত নির্বাচনে  সরাসরি ভোট বয়কটকই একমাত্র হাতিয়ার বলে মনে করছেন বালুরঘাট ব্লকের বোল্লা গ্রাম পঞ্চায়েতের বসন্তহার ও মহেশপুরের বাসিন্দারা৷ প্রশাসনকে চাপে রাখতে পঞ্চায়েত নির্বাচন থেকেই ভোট বয়কটের পথে হাঁটতে চলেছে গ্রামবাসীরা৷

[গেরুয়া বসনেই নাইট ক্লাবের উদ্বোধনে বিজেপি সাংসদ সাক্ষী মহারাজ]

অভিযোগ, বোল্লা গ্রাম পঞ্চায়েতের বসন্তহার থেকে পূর্ব মহেশপুর যাওয়ার রাস্তাটি চলাচলের সম্পূর্ণ অযোগ্য৷ মাঠের আলের সঙ্গে মিশে যাওয়া কাঁচা মাটির রাস্তাটিতে দু-চার মাস চলাচল করা গেলেও বর্ষার পর থেকে একেবারে অযোগ্য হয়ে ওঠে৷ প্রায় ৯০০ মিটার কাঁচা মাটির রাস্তাটি পাকা করার দাবি দীর্ঘদিনের। স্থানীয় বিধায়ক থেকে শুরু করে পঞ্চায়েত, ব্লক প্রশাসন ও মন্ত্রীকে জানিয়েও লাভের লাভ হয়নি৷ বসন্তহার থেকে পূর্ব মহেশপুর গ্রামের মোট দু’কিলোমিটার রাস্তার কিছুটা ইটসোলিং হলেও ৯০০ মিটার মাটির রয়েছে৷

[প্রার্থীদের ভোট পর্যন্ত ধরে রাখা যাবে তো? চিন্তায় নাজেহাল বিরোধীরা]

স্থানীয় বাসিন্দা বিমল মোহন্ত জানান, বর্ষা আসলে নিদারুণ অবস্থা হয় তাঁদের। রাস্তার জন্য কোনওরকম যানবাহন ঢোকে না তাঁদের গ্রামে। সর্বত্র উন্নয়নের বার্তা দেওয়া হলেও তাঁদের এই রাস্তা না হওয়ার কারণ জানা নেই৷ এবার আবেদন নিবেদন নয়, একেবারে ভোট বয়কটই তাঁদের হাতিয়ার৷ এ নিয়ে গ্রামবাসীরা একত্রিত হয়েছেন৷ এবার প্রশাসনের টনক নড়বে বলেই আশা সকল গ্রামবাসীদের৷ পঞ্চায়েত তো বটেই, দাবি পূরণ না হলে লোকসভা ভোট বয়কট করতে পরিকল্পনা তৈরি তাদের৷

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *