হাওড়ার কারখানায় ভয়াবহ অগ্নিকাণ্ড, গুরুতর জখম ২

স্টাফ রিপোর্টার: হাওড়ার আলমপুরে থার্মোকলের কারখানায় বিধ্বংসী আগুন৷ আগুনে ভস্মীভূত হয়ে গিয়েছে গোটা কারখানা৷ গুরুতর জখম কারখানারই দুই কর্মী৷ ঘটনার জেরে আতঙ্ক ছড়িয়ে পড়ে গোটা এলাকায়৷ দমকলের ২৩ ইঞ্জিন চার ঘণ্টা পরও আগুন নেভাতে পারেনি৷ আগুনের লেলিহান শিখার গ্রাসে চলে যায় গোটা কারখানা৷ ঘটনার জেরে আন্দুল রোডে ব্যাপক যানজটের সৃষ্টি হয়৷ ৬ নম্বর জাতীয় সড়কেও যান চলাচল নিয়ন্ত্রিত করা হয়৷ কালো ধোঁয়ায় আকাশ ঢেকে যায়৷ প্রায় দুই কিলোমিটার দূর থেকেও ধোঁয়া দেখা গিয়েছে৷ তবে ঠিক কোথা থেকে আগুন লাগার ঘটনা ঘটল, তা এখনও জানা যায়নি৷

[হিন্দু দেবীর ছবি পোস্ট করে বিপাকে হলিউড গায়িকা]

দমকল ও স্থানীয় সূত্রে জানা গিয়েছে, এদিন সকাল দশটা নাগাদ আচমকাই ওই কারখানায় আগুন লেগে যায়৷ সকাল থেকেই কারখানায় কাজ করছিলেন জনা দশেক কর্মী৷ সেখানে থার্মোকলের থালা তৈরি করা হচ্ছিল৷ প্রথমে নিজেরাই অগ্নি-নির্বাপক যন্ত্র দিয়ে আগুন নেভানোর চেষ্টা করেন কর্মীরা৷ কিন্তু কারখানায় প্রচুর কাঁচামাল মজুত থাকায় আগুন দ্রুত ছড়িয়ে পড়তে থাকে৷ খবর দেওয়া হয় দমকলে৷ প্রথমে হাওড়া থেকে দমকলের দুটি ইঞ্জিন ঘটনাস্থলে যায়৷ তারপর কলকাতা থেকে আরও ইঞ্জিন যাওয়া শুরু করে৷ কালো ধোঁয়ায় এলাকা ঢেকে যায়৷ আন্দুল রোড সাময়িকভাবে স্তব্ধ হয়ে যায়৷ পরে পুলিশ যান নিয়ন্ত্রণ করে পরিস্থিতি সামাল দেয়৷ এদিকে কারখানা সংলগ্ন এলাকা ঘিঞ্জি হওয়ায় স্থানীয় বাসিন্দারা উদভ্রান্তের মতো ছোটাছুটি করতে থাকেন৷ তাতে আরও কয়েকজন জখম হয়েছেন বলে জানা গিয়েছে৷

[সোনু নিগমের পাশে দাঁড়িয়ে ইমামদের ‘মিথ্যাবাদী’ বললেন তসলিমা]

স্থানীয় সূত্রে জানা গিয়েছে, ওই কারখানায় কোনও বিদ্যুৎ সংযোগ ছিল না৷ কারণ নিয়ম মেনে বিল জমা না দেওয়ার কারণে লাইন কেটে দেওয়া হয়েছিল৷ স্থানীয়সূত্রে জানা গিয়েছে, বে-আইনিভাবেই বিদ্যুতের লাইন নিয়ে চলছিল ওই কারখানা৷

[ফের শিরোনামে গায়কোয়াড়, এবার পুলিশের উর্দি খোলার হুমকি শিব সেনা সাংসদের]

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *