৩০ শ্রাবণ  ১৪২৫  বুধবার ১৫ আগস্ট ২০১৮  |  মোর নাম এই বলে খ্যাত হোক, আমি তোমাদেরই লোক: রবীন্দ্রনাথ ঠাকুর

মহানগর রাজ্য দেশ ওপার বাংলা বিদেশ খেলা বিনোদন লাইফস্টাইল এছাড়াও রাশিয়ায় মহারণ ফটো গ্যালারি ভিডিও গ্যালারি ই-পেপার

সংবাদ প্রতিদিন ডিজিটাল ডেস্ক: দীর্ঘতম চন্দ্রগ্রহণ, মঙ্গল-দর্শণের পর একমাসের মধ্যে তৃতীয় মহাজাগতিক ঘটনার সাক্ষী থাকতে চলেছে বিশ্ব। আগামিকাল আংশিক সূর্যগ্রহণের সাক্ষী থাকছে পৃথিবী। আগামিকাল দুপুরে এই মহাজাগতিক ঘটনার সাক্ষী থাকতে চলেছে গোটা বিশ্বের বিস্তির্ণ অঞ্চল। সূর্যগ্রহণ দেখা যাবে ভারতের বিভিন্ন অংশ থেকেও। সাধারণত চাঁদ, পৃথিবী এবং সূর্যের মাঝখানে চলে এলে, সূর্যের আলো সরাসরি পৃথিবীতে পৌঁছাতে পারে না। চাঁদের দ্বারা বাধাপ্রাপ্ত হয়, ফলে আংশিকভাবে সূর্যের উপর ছায়ার মতো দেখা যায়, বিজ্ঞানের ভাষায় এই ঘটনাকেই গ্রহণ বলা হয়।

[গ্রহের মাথায় মুকুটের মতো আলোক ছটা! কী বলছেন মহাকাশ বিশেষজ্ঞরা?]

নাসা জানাচ্ছে আগামিকাল দুপুর ১ টা ৩২ মিনিট নাগাদ শুরু হতে পারে গ্রহণ। সূর্যের সবচেয়ে বেশি অংশ ঢাকা পড়বে বেলা ৩ টে বেজে ১৬ মিনিটে। গ্রহণ চলবে মোটামুটি বিকেল পাঁচটা পর্যন্ত। মূলত ইউরোপের উত্তর ও পূর্ব অংশে, উত্তর আমেরিকার দক্ষিণাংশে এবং  এশিয়ার উত্তর ও পূর্ব অংশে দেখা যাবে সূর্যগ্রহণ। ভারতের বিভিন্ন অঞ্চল থেকেও প্রত্যক্ষ করা যাবে সূর্যগ্রহণ। তবে, খালি চোখে সূর্যগ্রহণ দেখতে নিষেধ করছে নাসা। নাসার তরফে জানানো হয়েছে, কোনও অবস্থাতেই সূর্যের দিকে খালি চোখে তাকানো উচিত নয়। কয়েক সেকেন্ড খালি চোখে সূর্যের দিকে তাকালেও রেটিনার চূড়ান্ত ক্ষতি হতে পারে, এমনকী দৃষ্টিশক্তিও নষ্ট হয়ে যেতে পারে চোখের। সেক্ষেত্রে বাইনোকুলার, টেলিস্কোপ, অপ্টিক্যাল ভিউ-ফাইন্ডার বা বিশেষভাবে তৈরি চশমার সাহায্যে গ্রহণ দেখা যেতে পারে।

[পৃথিবীর সবচেয়ে কাছে আসছে মঙ্গল, দেখা যাবে খালি চোখেও!]

গত একমাসের মধ্যে এই নিয়ে তৃতীয়বার বিরল মহাজাগতিক দৃশ্যের সাক্ষী থাকছে পৃথিবী। গত ২৭ জুলাই শতাব্দীর দীর্ঘতম চন্দ্রগ্রহণ দেখা গিয়েছিল, একসঙ্গে দেখা গিয়েছিল ব্লাড মুনও। গাঢ় লাল চন্দ্রিমার রেশ কাটতে না কাটতেই মঙ্গলগ্রহ পৃথিবীর এক্কেবারে কাছে চলে এসেছিল। গত ৩১ জুলাই মঙ্গল গ্রহ আর পৃথিবীর দূরত্ব ন্যূনতম পয়েন্টে পৌঁছে যায়। এর ফলে পৃথিবী থেকে খালি চোখেই দর্শণ মিলেছিল চাঁদের। এরপর সূর্যগ্রহণ। এত কম সময়ের ব্যবধানে এতগুলি মহাজাগতিক ঘটনা অবাক করছে বিজ্ঞানীদেরও।  

আরও পড়ুন

আরও পড়ুন

ট্রেন্ডিং