‘পদ্মাবতী’ নিয়ে ক্ষোভ অব্যাহত, নষ্ট করা হল দীপিকার রঙ্গোলি

সংবাদ প্রতিদিন ডিজিটাল ডেস্ক: পদ্মাবতীর আকাশ থেকে কালো মেঘ কিছুতেই সরছে না৷ শুটিং শুরু হওয়া ইস্তক একের পর এক হুমকি ও হামলার সম্মুখীন হয়েছে সঞ্জয় লীলা বনশালির এই ছবি৷ ছবির ট্রেলার মুক্তির পরও হিন্দু সংগঠনগুলির রোষ কমেনি৷ এবার নষ্ট করে দেওয়া হল পদ্মাবতীর ছবিতে সেজে ওঠা একটি রঙ্গোলি৷

করণ কে নামে এক শিল্পী সুরাটের একটি শপিং মলে দিওয়ালি উপলক্ষে রঙ্গোলি বানিয়েছিলেন৷ দীর্ঘ ৪৮ ঘণ্টার প্রয়াসে পদ্মাবতী রূপী দীপিকা পাড়ুকোনের মুখ ফুটে উঠেছিল রঙ্গোলিতে৷ কিন্তু এমন সুন্দর সৃষ্টির আয়ু হল ক্ষণস্থায়ী৷ চোখের নিমেষে নষ্ট করে দেওয়া হল রঙ্গোলি৷ নেপথ্যে আবার এক হিন্দু সংগঠন৷ স্বাভাবিকভাবেই এমন ঘটনায় অত্যন্ত হতাশ এবং হতবাক করণ৷ টুইট করে জানান, রঙ্গোলিটি বানাতে ৪৮ ঘণ্টা সময় লেগেছিল৷ কিন্তু আচমকাই শপিং মলে ঢুকে বেশ কয়েকজনের একটি দল জয় শ্রী রাম ধ্বনি তুলে সমস্ত রঙ্গোলি তছনছ করে দেয়৷ নিজের তৈরি পদ্মাবতী রঙ্গোলি এবং তা নষ্ট হয়ে যাওয়ার দুটি ছবিও পোস্ট করেছেন তিনি৷ সেই সঙ্গে মল কর্তৃপক্ষকে লিখিতভাবে জানিয়ে দেওয়া হয়েছে, ভবিষ্যতে ‘পদ্মাবতী’ রঙ্গোলি আর সেখানে দেখা যাবে না৷

রাজপুত ইতিহাস নিয়ে ছবি করতে গিয়ে প্রথম থেকেই প্রতিকূলতার সম্মুখীন হতে হয়েছে সঞ্জয়কে৷ মরু শহরে কর্ণি সেনার তাণ্ডবে শুটিং বন্ধ করে দিতে বাধ্য হয়েছিলেন তিনি৷ পরে প্রযোজনা সংস্থার তরফ থেকে বিবৃতি দেওয়া হয়েছিল৷ বলা হয়েছিল, ইতিহাসকে কোনওভাবে ছবিতে বিকৃত করা হয়নি৷ আলাউদ্দিন খিলজি ও রানি পদ্মাবতীর মধ্যে কোনও প্রেমের সম্পর্কও দেখানোর চেষ্টা করা হয়নি৷ কিন্তু তাতেও চিড়ে ভেজেনি৷ পরে আবার মহারাষ্ট্রে শুটিং সেটে আগুন লাগিয়ে দেওয়া হয়৷ ছবির ফার্স্টলুক প্রকাশের পরও মামলা ঠান্ডা হয়নি৷ রাজস্থানের বিভিন্ন জায়গায় ‘পদ্মাবতী’ দীপিকার ফার্স্টলুকের পোস্টার পোড়ানো হয়৷

[দিনে অভিনয় রাতে খাবার বিক্রি, অভিনেত্রীর সংগ্রামকে কুর্নিশ দেশবাসীর]

তারপর কর্ণি সেনা ও রাজপুতানা সংঘের তরফে দেওয়া হয় নয়া হুমকি৷ জানানো হয়, তাদের অনুমতি ছাড়া রাজস্থানে ‘পদ্মাবতী’ মুক্তি পেলেই পুড়িয়ে দেওয়া হবে প্রেক্ষাগৃহ৷ সংঘের প্রতিষ্ঠাতা ভাওয়ার সিং রেটা জানান, প্রায় আড়াই লক্ষ সদস্য রয়েছেন তাঁদের সংগঠনে৷ আগে প্রেক্ষাগৃহে সংগঠনের প্রতিনিধিদের ছবিটি দেখানো হবে৷ তাঁরা যদি মনে করেন ছবিতে রানি পদ্মাবতীর মহিমা ক্ষুণ্ন করা হয়নি, তবেই দীপিকা-শাহিদ-রণবীরের ছবি সাধারণ দর্শকদের দেখানোর অনুমতি মিলবে৷ ১ ডিসেম্বর মুক্তি পেতে চলেছে ছবি৷ কিন্তু তা যে বিশেষ মসৃণ হবে না, তেমনটা আন্দাজ করা যেতেই পারে৷

[করিনার প্রেমিক ছিলেন কেআরকে, সৌজন্যে কঙ্গনা রানাউত!]

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *