সঙ্গমের সময় কন্ডোম খোলাও ধর্ষণ, জোরদার হচ্ছে জনমত

সংবাদ প্রতিদিন ডিজিটাল ডেস্ক: সঙ্গমের সময় সঙ্গিনীর অনুমতি না নিয়েই কন্ডোম খুলে ফেলা কি ধর্ষণ? এতদিন হয়তো এ বিষয়ে কেউ তেমন মাথাও ঘামাতেন না৷ কিন্তু এবার না ঘামিয়ে উপায় নেই৷ কেননা এই মর্মেই ক্রমশ জোরদার হচ্ছে জনমত৷

গতমাসেই এ বিষয়ে একটি প্রবন্ধ প্রকাশিত হয়৷ যার ফলে জনপ্রিয় হয়ে ওঠে Stealthing শব্দটি৷ যার আক্ষরিক অর্থ, সঙ্গমকালে সঙ্গিনীর অনুমতি না নিয়েই কন্ডোম খুলে ফেলা৷ ঘটনা হয়তো এমন গুরুতর কিছু নয়, কিন্তু এর সঙ্গে জড়িয়েছে নৈতিকতার প্রশ্নও৷ কেননা সঙ্গম শুধু যৌন আনন্দের নয়, তার সঙ্গে জড়িয়ে আছে জননের বিষয়টিও৷ কাজেই যে সঙ্গিনী সঙ্গীর কন্ডোম দেখেই যৌন মিলনে রাজি হয়েছে, তাকে না জানিয়েই যদি তা খুলে ফেলা হয়, নিঃসন্দেহে তা অধিকার লঙ্ঘনের পর্যায়ে পড়ে৷ হরেদরে পুরো ব্যাপারটি হয়ে দাঁড়ায় অনুমতি না নিয়ে সঙ্গমের মতোই৷ যার সঙ্গে ধর্ষণের সংজ্ঞার কোনও ফারাক নেই৷ আর তাই এ বিষয়ে জোরদার হচ্ছে জনমত৷

মার্কিন নেত্রী ক্রিশ্চিনা গার্সিয়ার সাফ কথা, সঙ্গমের সময় বিনা অনুমতিতে কন্ডোম খুলে ফেলা ধর্ষণ৷ অসম্মতিতে যৌনতাই ধর্ষণ, এ নিয়ে কোনও দ্বিমত থাকতে পারে না৷ দেখা যাচ্ছে, অধিকাংশ পুরুষেরই এ প্রবণতা আছে৷ মাথা না ঘামিয়েই এ কাজ করে থাকেন তাঁরা৷ অবশ্য এ কাজ করা পিছনে কিছু ধারণাও আছে৷ যার অন্যতম হল, কন্ডোমে প্রত্যাশিত যৌনসুখ মেলে না৷ তাই কন্ডোম খুলে রাখতেই পছন্দ করেন বহু পুরুষ৷ এবং সেক্ষেত্রে সঙ্গিনীর অনুমতি না নিয়েই এ কাজ করে থাকেন৷ আবার শুধু যৌনসুখ নয়, যৌন সংক্রমণ  রুখতেও কন্ডোমের ব্যবহারের পরামর্শ দেওয়া হয়৷ সে ঝুঁকি মাথায় নিয়েও কন্ডোম খোলাকেই প্রাধান্য দিয়ে ফেলেন পুরুষরা৷ এক সমীক্ষায় নাম প্রকাশে অনিচ্ছুক বেশ কয়েকজন জানিয়েছেন, তাঁদের যৌন রোগ নেই সে ব্যাপারে তাঁরা নিশ্চিত৷ কিন্তু সঙ্গিনীর যে যৌনরোগ নেই সে বিষয়ে তাঁরা নিশ্চিতও থাকেন না৷ তা সত্ত্বেও সাধারণ প্রবণতা বশেই এ কাজ করে থাকেন তাঁরা৷এর সঙ্গে জড়িয়ে আছে সঙ্গিনীর উপর অধিকার খাটানোর প্রশ্নও৷

3F91DB8700000578-4440930-image-a-60_1493067455603

পুরুষের এই কাজই এবার কাঠগড়ায় উঠেছে৷ যেখানে বৈবাহিক ধর্ষণের মতো ধারণাও আছে, সেখানে সঙ্গিনীর অনুমতি ছাড়া কন্ডোম খুলে ফেলাকে ধর্ষণ বলারই পক্ষপাতী অনেকে৷ যৌনতা সংক্রান্ত অপরাধের তালিকায় একে অন্তর্ভুক্ত করতে চাইছেন বহু মানুষ৷ সম্প্রতি এ বিষয়ে জোরদার হচ্ছে জনমত৷

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *