OMG! পর্ন ভিডিও দেখতে গিয়ে নিজের পুরুষাঙ্গই কেটে ফেললেন যুবক!

সংবাদ প্রতিদিন ডিজিটাল ডেস্ক: অতিরিক্ত পর্নে আসক্তি বিপদ ডেকে আনতে পারে। একথা বিশেষজ্ঞরা বলেই থাকেন। তবে বাস্তবে টের পেলেন থাইল্যান্ডের ৩০ বছরের যুবক। পর্ন ভিডিও দেখতে গিয়ে উত্তেজনার বশে এমন কাণ্ড ঘটালেন, রাতবিরেতে পুলিশ-বদ্যি ডাকতে হল। শেষমেশ ঠাঁই হল হাসপাতালের বিছানায়।

tp-image-self-mutilator-muzz

[তথ্য ফাঁস রুখতে এবার ২০০টি অ্যাপ নিষিদ্ধ করল ফেসবুক]

ঘটনাটি ঘটেছে থাইল্যান্ডের রাজধানী ব্যাংককের খেট নং চক জেলায়। তিরিশ বছরের ওই যুবকের নাম জানাতে চায়নি স্থানীয় পুলিশ। তবে পুলিশ সূত্রেই জানা গিয়েছে, জেলার এক আবাসনে চারতলার ফ্ল্যাটে থাকেন ওই যুবক। মঙ্গলবার রাতে নিজের ফ্ল্যাটে বসেই পর্নোগ্রাফি দেখছিলেন তিনি। কোনও এক বন্ধুর থেকে সংগ্রহ করেছিলেন ওই বিকৃত যৌনতার ভিডিওটি। তা দেখতে দেখতেই উত্তেজিত হয়ে পড়েন যুবক। ভিডিও দ্বারা প্রভাবিত হয়ে রান্নাঘর থেকে ছুরি এনে পুরুষাঙ্গে ঘষতে থাকেন। তা করতে গিয়েই কেটে যায় পুরুষাঙ্গ। পুরো বিছানা রক্তে ভেসে যায়। পরিস্থিতি বেগতিক দেখে আপৎকালীন নম্বরে ফোন করেন যুবক।

[রাষ্ট্রসংঘে মায়ানমারের ঢাল চিন, প্রবল ক্ষুব্ধ আমেরিকা]

বিপদের খবর পেয়ে ঘটনাস্থলে আসে পুলিশ। খবর দেওয়া হয় কাছের হাসপাতালে। এসে পৌঁছায় অ্যাম্বুল্যান্স। স্বাস্থ্যকর্মীরা জানান, সম্পূর্ণ নগ্ন অবস্থায় যুবককে উদ্ধার করা হয়। প্রথমে কোনওভাবেই সহযোগিতা করছিলেন না তিনি। কীভাবে এমন কাণ্ড ঘটল, কিছুতেই সে বিষয়ে কিছু জানাতে চাইছিলেন না। পরে বিপদ বুঝে সত্যিটা বলেন। স্থানীয় হাসপাতালে ভরতি করা হয়েছে তাঁকে।

বিষয়টি জানাজানি হতেই শোরগোল পড়ে গিয়েছে এলাকায়। কোন বন্ধুর মাধ্যমে যুবকের কাছে ওই বিকৃত যৌনতার ভিডিও এল, তা খতিয়ে দেখছে পুলিশ। যুবকের অবস্থা আপাতত স্থিতিশীল বলে জানা গিয়েছে। তবে যুবকের মানসিক পরিস্থিতির কথা মাথায় রেখে এখনও হাসপাতাল থেকে ছাড়া হয়নি তাঁকে। প্রয়োজনে মনোবিদের পরামর্শ নেওয়া হতে পারে বলে জানা গিয়েছে।

[জেরুজালেমে মার্কিন দূতাবাস স্থানান্তরের প্রতিবাদ, গুলিতে হত ৫২ প্যালেস্তাইনি]

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *