‘দিলীপের রাতের সঙ্গিনী লকেট’, তৃণমূল নেতার মন্তব্যে বিতর্ক

সংবাদ প্রতিদিন ডিজিটাল ডেস্ক:  রাজনৈতিক বিরোধিতায় একে অন্যের বিরুদ্ধে আক্রমণ শানাতে কসুর করেন না রাজনৈতিক নেতা-নেত্রীরা। তবে কখনও সখনও তা শালীনতার সীমা ছাড়ায় বলেই অভিযোগ ওঠে।  ফের একবার রাজ্য রাজনীতিতে তৈরি হল সেই আবহ। এবার কাঠগড়ায় তৃণমূল কংগ্রেসর বাঁকুড়া জেলা সম্পাদক জয়ন্ত মিত্র। প্রকাশ্য জনসভায় তিনি বিজেপি নেত্রী লকেট চট্টোপাধ্যায়ের উদ্দেশে কুরুচিকর মন্তব্য করেছেন বলে অভিযোগ উঠেছে। এমনকী কথা প্রসঙ্গে টেনে এনেছেন বিজেপি রাজ্য সভাপতি দিলীপ ঘোষের নামও। মঙ্গলবার বক্তৃতা দিতে গিয়ে তিনি বলেন, ‘দিলীপ ঘোষের রাতের সঙ্গিনী লকেট চট্টোপাধ্যায়।’ এমনকী লকেটের পোশাক নিয়েও মুখ খোলেন তিনি। তৃণমূল নেতার এই বক্তব্যে অস্বস্তিতে পড়ে যান মঞ্চে উপবিষ্ট দলের অন্যান্য নেতারাও।

[স্ত্রীকে খুন করে খণ্ড-বিখণ্ড দেহ শহরের বিভিন্ন প্রান্তে ছড়াল স্বামী]

আগামী ২৪ মে বাঁকুড়া সফরে যাওয়ার কথা বিজেপির রাজ্য নেতৃ্ত্বের। যেখানে দিলীপ ঘোষ ছাড়াও থাকবেন লকেট চট্টোপাধ্যায়ও। তার আগে এদিন দু’জনকে জড়িয়ে তৃণমূলের জেলা সম্পাদক অশালীন মন্তব্য করেছেন বলে অভিযোগ ওঠে। জানা যাচ্ছে, নিজের বক্তৃতায় তিনি বলেছেন, ‘২৪ তারিখ এখানে দিলীপ ঘোষ ও তাঁর রাতের সঙ্গী লকেট আসছেন। তাঁদের কী করতে হয় আমরা ভালমতো জানি। সময়মতো বার্তা পেয়ে যাবেন।’ এর পাশাপাশি লকেটের পোশাক নিয়েও বিকৃত মন্তব্য করেন তিনি। জানান, যে মহিলা ওই ধরনের পোশাক পরে তিনি আবার অন্যকে হিন্দুত্ব শেখায় কীভাবে! ওঁকে দেখামাত্রই জঙ্গলমহলের মা-বোনেরা ঝাঁটাপেটা করবেন বলে দাবি করেন তিনি।

[শেষ ম্যাচে এভাবেই ফ্যানদের চমকে দিলেন বিরাট, ভাইরাল ভিডিও]

তৃণমূল নেতার এই বক্তব্যে বিজেপি নেত্রী লকেট চট্টোপাধ্যায় বলেন, ‘আমি মনে করি এটা একজন নারীর পক্ষে অত্যন্ত কুরুচিকর ও অবমাননাকর মন্তব্য। ওঁরা মহিলাদের সম্মান করতে জানে না। আমি নিশ্চয়ই এর বিরুদ্ধে ব্যবস্থা নেব।’ উল্টোদিকে বিজেপি বিধায়ক দিলীপ ঘোষ জানিয়েছেন, রাজনৈতিকভাবে লড়তে না পারার জন্যই ব্যক্তিগত আক্রমণে হাঁটছে তৃণমূল। যদিও তৃণমূলের পক্ষ থেকে এ বিষয়ে কোনও মন্তব্য করা হয়নি। প্রসঙ্গত, কদিন আগেই বিজেপি নেতা শ্যামাপদ মণ্ডল মুখ্যমন্ত্রীর উদ্দেশ্যে কুরুচিকর মন্তব্য করেন। তা নিয়ে নিন্দার ঝড় ওঠে বিভিন্ন মহলে। তবে তারপরও যে এ প্রবণতা কাটেনি এই ঘটনা যেন তারই ইঙ্গিত দিচ্ছে।

[আদালতে মন্দিরের বিগ্রহ ভাঙচুরের দায় স্বীকার মুসলিম যুবকের]

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *