৩০ শ্রাবণ  ১৪২৫  বুধবার ১৫ আগস্ট ২০১৮  |  ৭২ তম স্বাধীনতা দিবসের শুভেচ্ছা

মহানগর রাজ্য দেশ ওপার বাংলা বিদেশ খেলা বিনোদন লাইফস্টাইল এছাড়াও রাশিয়ায় মহারণ ফটো গ্যালারি ভিডিও গ্যালারি ই-পেপার

সুকুমার সরকার, ঢাকা: ফাঁস হল ভয়াবহ নাশকতার ছক। ফের রাজধানী ঢাকায় জঙ্গিহানা রুখে দিল বাংলাদেশের নিরাপত্তাবাহিনী। সোমবার রাতে গ্রেপ্তার করা হয় দুই কুখ্যাত জেএমবি জঙ্গিকে। উদ্ধার হয় প্রচুর বিস্ফোরক ও অস্ত্রশস্ত্র।

পুলিশ সূত্রে খবর, একুশে ফেব্রুয়ারি আন্তর্জাতিক মাতৃভাষা দিবসে হামলার ছক কষে জঙ্গিরা। পরিকল্পনা মাফিক ঢাকায় ঢুকে পড়ে ছয়-সাত জনের একটি জেহাদি দল। এমনটাই সতর্কবার্তা দিয়েছিলেন গোয়েন্দারা। ফলে বাড়িয়ে তোলা হয় নিরাপত্তা ব্যবস্থা। গোয়েন্দা ত‌থ্যের ভি‌ত্তি‌তে সোমবার ঢাকার তেজগাঁও শিল্পাঞ্চল এলাকায় অভিযান চালায় র‌্যাব। গ্রেপ্তার করা হয় নুরুজ্জামান লাবু (৩৯) ও নাজমুল ইসলাম শাওন (২৬) নামে দুই সন্ত্রাসবাদীকে।

[ফের এসটিএফ-এর জালে জামাত জঙ্গি, এবার পাকড়াও ‘কালু’]

লেফটেন্যান্ট কর্নেল আনওয়ারুজ্জামান জানান, ধৃত জঙ্গি নাজমুল পেশায় একজন মেরিন ইঞ্জিনিয়ার। ২০১৫ সালে জঙ্গিদের দলে নাম লেখায় সে। তারপরই সংগঠনের সিদ্ধান্ত অনুযায়ী জেহাদি মতের প্রচার শুরু করে সে। আরেক জঙ্গি নুরুজ্জামান বাস-ট্রাকের হেল্পার ও লন্ড্রি দোকানে কাজ করে। আবার কখ‌নও  রিকশা চালায় বা দিনমজুরের কাজ ক‌রে। তাকে একটি অটো কি‌নে দেয় জঙ্গি সংগঠনটি। অটো চালানোর অজুহাতে সে বিভিন্ন এলাকায় রেকি করতো।

১ ফেব্রুয়ারি থেকেই বাংলাদেশে মাসব্যাপী বইমেলা শুরু হয়েছে। প্রচুর লোকের সমাগম হচ্ছে সেখানে। ফলে হামলা চালানোর জন্য জঙ্গিদের কাছে ওই জায়গা আদর্শ। সেই মতোই ছক কষে জঙ্গিরা তবে নিরাপত্তারক্ষীদের তৎপরতায় আপাতত ভেস্তে গিয়েছে ওই চক্রান্ত। বাকি জঙ্গিদের খোঁজে অভিযান চলছে। রাজধানী জুড়ে জারি করা হয়েছে সতর্কবার্তা।

উল্লেখ্য, কয়েকদিন আগেই পশ্চিমবঙ্গের মুর্শিদাবাদে অভিযান চালায় পুলিশের একটি বিশেষ দল। গ্রেপ্তার করা হয় তিন নিও-জেএমবি জঙ্গিকে। তাদের কাছে পাওয়া যায় বিপুল পরিমাণের বিস্ফোরক। ক্ষমতায় এসেই সন্ত্রাসবাদের বিরুদ্ধে কড়া পদক্ষেপ নিয়েছে বাংলাদেশের প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা। ফলে পশ্চিমবঙ্গের সীমান্তবর্তী এলাকায় গা-ঢাকা দিয়েছে বেশ কয়েকজন জঙ্গি। ফলে যেকোনও মুহূর্তে বড়সড় হামলা হতে পারে ভারতেও বলে মনে করছেন প্রতিরক্ষা বিশেষজ্ঞরা।

[অবাধে মিছিল জামাত জঙ্গিদের, দেখেও নীরব পাক প্রশাসন]

আরও পড়ুন

আরও পড়ুন

ট্রেন্ডিং