১৪  আষাঢ়  ১৪২৯  বুধবার ২৯ জুন ২০২২ 

READ IN APP

Advertisement

Advertisement

ভিনরাজ্য থেকে পাকড়াও বাগনানে ঈশিতা দত্ত খুনের অভিযুক্তরা

Published by: Bishakha Pal |    Posted: August 3, 2018 9:01 pm|    Updated: August 3, 2018 9:01 pm

3 arrested in Ishita Dutta murder case

মোহিতোষ মণ্ডল, শুভময় মণ্ডল ও সুস্মিতা মণ্ডল (ছবি- সন্দীপ মজুমদার)

সন্দীপ মজুমদার, উলুবেড়িয়া: অবশেষে পুলিশের জালে ধরা পড়ল বাগনানে স্কুল ছাত্রী ঈশিতা দত্ত খুনের অভিযুক্তরা। শুক্রবার বাগনান থানার পুলিশ এই ঘটনায় মূল অভিযুক্ত শুভময় মণ্ডল ও সুস্মিতা মণ্ডল ছাড়াও সুস্মিতা মণ্ডলের স্বামী মহিতোষ মণ্ডলকে তামিলনাড়ুর কাঞ্চিপুরম জেলার জে জে নগর, চিঙ্গালপেট থেকে গ্রেপ্তার করে।

পুলিশ সূত্রে জানা গিয়েছে, এই তিনজনই একটি ঘর ভাড়া নিয়ে ওই এলাকায় আত্মগোপন করে ছিল। পুলিশ খুব সন্তর্পণে বিভিন্ন সূত্রকে কাজে লাগিয়ে অভিযুক্তদের ধরে। অভিযুক্তরা এতটাই সর্তকতা অবলম্বন করেছিল যে পুলিশের সবরকম প্রচেষ্টা বারবার বিফলে যাচ্ছিল। বলতে গেলে গত কয়েকদিন যাবৎ পুলিশকে নাকে দড়ি দিয়ে ঘুরিয়েছে অভিযুক্তরা। তাই তাদের ধরার জন্য পুলিশ কোনও রকম ঝুঁকি নিতে চায়নি।

কাঁকসা ব্লকে কমিটি গঠন নিয়ে তুমুল বিতর্ক তৃণমূলের অন্দরে ]

গত ২৫ জুলাই বাগনান থানার নবাসন গ্রামের বাসিন্দা শুভময় মণ্ডল ও তার মা সুস্মিতা মণ্ডলের বিরুদ্ধে ১৪ বছর বয়সের নবম শ্রেণির ছাত্রী ঈশিতা দত্তকে খুন করার অভিযোগ ওঠে। ঈশিতা বাগনানের এনডি ব্লকে বাবা, মা ও দিদির সঙ্গে থাকত। ওই দিন বিকেলে ঈশিতা যখন টিউশন পড়তে বাড়ি থেকে বের হয়েছিল তখন শুভময়ের মা সুস্মিতা মণ্ডল তাকে রাস্তা থেকে ডেকে নিজেদের বাড়িতে নিয়ে যায় বলে অভিযোগ। পরের দিন ঈশিতার রক্তাক্ত মৃতদেহ তালা বন্ধ ঘরের ভেতর থেকে উদ্ধার করে পুলিশ। মৃতদেহের মাথার পিছন দিকে গভীর ক্ষত ছিল। জানা গিয়েছে, ঈশিতা খুন হওয়ার পরে অভিযুক্তেরা সেই দিন রাতেই বাগনান ছেড়ে পালিয়ে যায়। তারপর থেকে পুলিশ তাদের ধরার জন্য হন্যে হয়ে সর্বত্র ছুটে বেড়ায়, কিন্তু কোনওভাবেই তাদের কোনও খোঁজ পুলিশ পাচ্ছিল না।

অভিষেক বন্দ্যোপাধ্যায়কে খুনের হুমকি বিজেপি নেতার, পালটা খোঁচা অনুব্রতর ]

এদিকে এই ঘটনায় বাগনানজুড়ে প্রতিবাদের ঝড় বয়ে যায়। মিছিল, ডেপুটেশন থেকে শুরু করে ৩০ জুলাই বাগনানবাসী বনধ পালন করে। পুলিশ শুভময়দের সমস্ত আত্মীয়দের বাড়ি থেকে শুরু করে তাদের চেনা জানা সকলকে জিজ্ঞাসাবাদ চালায়। সুস্মিতা মণ্ডলের স্বামী মহিতোষ মণ্ডল কর্মসূত্রে যেহেতু ভিনরাজ্যে থাকত। এই বিষয়টিকেই বেশি গুরুত্ব দেয় পুলিশ। এবং সেই সূত্র ধরেই আসে সাফল্য। বাগনান পুলিশের একটি দল তামিলনাড়ুতে গিয়ে অভিযুক্তদের সন্ধানে তল্লাশি চালাতে শুরু করে। শুক্রবার সমস্ত আটঘাট বেঁধে পুলিশ হানা দেয় চিঙ্গালপেট এলাকায় মহিতোষের ভাড়া নেওয়া বাড়িতে। পুলিশ জানিয়েছে ধরা পড়ার পরেও অভিযুক্তরা পুলিশকে বিভ্রান্ত করে চলেছে। অভিযুক্ত শুভময় খুনের ঘটনা স্বীকার করলেও কেন এবং কীভাবে ঈশিতা খুন হল সেই বিষয়টি সঠিক ভাবে বলতে চায়নি। সে জানিয়েছে যে টাকার জন্যই ঈশিতাকে খুন করা হয়েছে। ট্রানজিট রিমান্ড নিয়ে পুলিশ শুক্রবার রাতেই তামিলনাড়ু থেকে বাগনানের পথে রওনা দিচ্ছে। শনিবার ধৃতদের উলুবেড়িয়া মহকুমা আদালতে পেশ করা হবে। এই ঘটনার কিনারা করার জন্য পুলিশ ধৃতদের নিজেদের হেফাজতে চাইবে বলে পুলিশ সূত্রে জানা গিয়েছে।

Sangbad Pratidin News App: খবরের টাটকা আপডেট পেতে ডাউনলোড করুন সংবাদ প্রতিদিন অ্যাপ
নিয়মিত খবরে থাকতে লাইক করুন ফেসবুকে ও ফলো করুন টুইটারে