৩০ ভাদ্র  ১৪২৬  মঙ্গলবার ১৭ সেপ্টেম্বর ২০১৯ 

Menu Logo পুজো ২০১৯ মহানগর রাজ্য দেশ ওপার বাংলা বিদেশ খেলা বিনোদন লাইফস্টাইল এছাড়াও বাঁকা কথা ফটো গ্যালারি ভিডিও গ্যালারি ই-পেপার

নিজস্ব সংবাদদাতা, বনগাঁ: ফের ভিন রাজ্যে কাজে গিয়ে বাঙালি যুবকের রহস্যমৃত্যু। বাড়ি ফেরার পথে ওড়িশায় রেললাইনের ধার থেকে উদ্ধার দেহ। পুলিশি নিষ্ক্রিয়তার অভিযোগে যশোর রোডে অবরোধ পরিবারের লোকেদের, পুলিশের সঙ্গে অবরোধকারীদের ধস্তাধস্তি। রণক্ষেত্র উত্তর ২৪ পরগনার গাইঘাটা।

[ফিল্মি কায়দায় জনবহুল রাস্তায় চলল গুলি, আতঙ্ক মেদিনীপুর শহরে]

মৃতের নাম উত্তম সানা। বাড়ি, গাইঘাটার চাঁদপাড়া ধানকুনি গ্রামে। পরিবারের লোকেরা জানিয়েছেন, মাস চারেক আগে স্থানীয় এক ঠিকাদারের মারফৎ গুজরাটে শ্রমিকের কাজ করতে গিয়েছিলেন উত্তম। গত মঙ্গলবার ফোনে বাড়ি ফেরার কথা জানিয়েছিলেন তিনি। পরিবারের লোকেদের দাবি, বছর বত্রিশের ওই যুবকের সঙ্গে তাঁদের শেষবার কথা হয় বৃহস্পতিবার। তখন ট্রেনে ছিলেন উত্তম। ওড়িশার রাজনগপুর স্টেশনের কাছে রেললাইনের ধার থেকে উত্তম সানার মৃতদেহ উদ্ধার করেছে জিআরপি। শনিবার ছেলের মৃত্যু সংবাদ পান উত্তমের পরিবারের লোকেরা। সেদিন গভীররাতে মৃতদেহ আসে গাইঘাটায়। পরিবারের লোকেদের অভিযোগ, ভিন রাজ্যে কাজ করতে গিয়ে খুন হয়েছে উত্তম সানা। সোমবার সকাল থেকে মৃতদেহ নিয়ে গাইঘাটার চাঁদপাড়া বাজারে যশোর রোডে অবরোধ শুরু করেন মৃতের পরিবারের লোকেরা। আর সেই অবরোধকে কেন্দ্র করেই কার্যত রণক্ষেত্রের চেহারা নেয় এলাকা। পুলিশের সঙ্গে রীতিমতো ধস্তাধস্তি হয় অবরোধকারীদের। দোষীদের দৃষ্টান্তমূলক শাস্তির দাবি তুলেছেন মৃতের পরিবারের লোকেরা। শেষ খবর অনুযায়ী, এখনও যশোর রোডে অবরোধ ওঠেনি।

দিন কয়েক আগে গুজরাটেরই সুরাটে কাজ করতে গিয়ে খুন হন পূর্ব বর্ধমানের জামালপুরের এক যুবক। জানা গিয়েছে, কর্মস্থলে যাওয়ার পথে তাঁর উপর হামলা চালায় দুষ্কৃতীরা। রীতিমতো রাস্তায় ফেলে ধারালো অস্ত্র দিয়ে কোপানো হয় তাঁকে। ঘটনাচক্রে ওই যুবকের মৃতদেহও শনিবারই পৌঁছায় জামালপুরের বাড়িতে।

দেখুন ভিডিও:

 

আরও পড়ুন

আরও পড়ুন

ট্রেন্ডিং