BREAKING NEWS

১৩ মাঘ  ১৪২৮  বৃহস্পতিবার ২৭ জানুয়ারি ২০২২ 

READ IN APP

Advertisement

জেলায় জেলায় বিশ্বকর্মা: শিল্পীর হাতযশে ডিমের খোসায় ফুটে উঠছেন মনীষীরা

Published by: Shammi Ara Huda |    Posted: September 15, 2018 7:09 pm|    Updated: September 15, 2018 7:09 pm

Burdwan man’s gets global recognition for egg-shell art

ছবিতে প্রসেনজিৎবাবুর শিল্পকর্ম, ছবি:মোহন সাহা।

সৌরভ মাজি, বর্ধমান: ডিম খেতে পছন্দ করেন না এমন একজনকেও খুঁজে পাওয়া বেশ দুস্কর। তবে সাদা অংশের মাঝে হলুদ রঙা কুসুম যতই প্রিয় হোক না কেন ডিমের খোসা প্রতি খাদ্যরসিকদের তেমন আগ্রহ নেই। তার স্থান কিন্তু ডাস্টবিনেই। মেয়েবেলায় হয়তো পুতুল তৈরিতে খোসা কাজে লেগেছে। তাই বলে মহাপুরুষরা সেই ডিমের খোসায় জায়গা করে নিয়েছেন! বিষ্ময়ের কিছু নেই, এমনটাই ঘটেছে। ঘটিয়েছেন বর্ধমানের কালনার প্রসেনজিৎ দাস। মাত্র ১৪ মিনিট ৪৭ সেকেন্ডে, মহত্মা গান্ধী, রবীন্দ্রনাথ ঠাকুর, স্বামী বিবেকানন্দ ও নেতাজি সুভাষচন্দ্রের অবয়ব ফুটিয়ে তুলেছেন ডিমের খোসায়। পূর্ব বর্ধমানের বিশ্বকর্মা হয়ে অ্যাসিস্ট ওয়ার্ল্ড রেকর্ডসেও নামও লিখিয়ে ফেলেছেন তিনি।

আন্তর্জাতিক ওই সংস্থা সূত্রে জানা গিয়েছে, প্রসেনজিৎবাবু সাড়ে পাঁচ ইঞ্চি চওড়া ও ৩.২ ইঞ্চি উচ্চতার ডিমের খোলে তাঁর শিল্পীকর্মের ছাপ রেখেছেন। শুধু মহাপুরুষরাই নন, তাঁর তুলির টানে ডিমের খোসায় ঠাঁই পেয়েছেন প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদি,  মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের মতো বিশিষ্টজন। প্রসেনজিৎবাবুর চুলির ছোঁয়ায় ডিমের খোসায় ফুটে উঠেছে দামি গাড়ি, মোটরবাইক, ল্যাম্পশেড, ফুলদানি, তাজমহল, আইফেল টাওয়ার। নিত্যনতুন সৃজনীর পরিচয় রেখে তিনি সবাইকে চমকে দিচ্ছেন। শিল্পকলার এহেন প্রতিভার অধিকারী হয়েও কিন্তু সাধারণেই মিশে থাকেন মানুষটি। কালনা শহরের আদালতে থেকে ঢিল ছোঁড়া দূরত্বেই তাঁর বাড়ি। প্রথাগত কোনও আর্টকলেজ থেকে শিল্পের পাট নেননি। তবুও তুলির টানে নিজের মনের খোরাকের জায়গা খুঁজে নিয়েছেন। তাতে মানসিক আনন্দই যে পেয়েছেন তা নয়। চমৎকৃত করেছেন দর্শকদের।

[ট্রেলারের ধাক্কায় স্কুলছাত্রী-সহ ৩ টোটো যাত্রীর মৃত্যু, উত্তেজনা এলাকায়]

মাধ্যমিক পাশ করার পর পারিবারিক কারণে পড়াশোনাটা আর হয়ে ওঠেনি। পেট চালাতে বেসরকারি সংস্থায় কাজ করেন। তবে সামান্য অবসর মিললেই ডিমের খোসায় ফুটিয়ে তোলেন মননশীল ভাবনা চিন্তা। সেই ছেলেবেলা থেকেই এই কারিকুরি তাঁকে নেশার মতো পেয়ে বসেছে। সময় যত এগিয়েছে সৃজনীর ধার ক্রমশ বেড়েছে। এই কারিকুরির দৌলতেই অ্যাসিস্ট ওয়ার্ল্ড রেকর্ডসের আগে ইন্ডিয়া বুক অফ রেকর্ডসে নাম তুলেছেন। আরও এগিয়ে যেতে চান। নিত্যনতুন ভাবনাকে ডিমের খোসায় ফুটিয়ে তুলে চমকে দিতে চান এই যুবক। বিশ্বকাপকে ডিমের খোসায় বন্দি করতে পেরেছেন তিনি। ইতিমধ্যেই অ্যাসিস্ট ওয়ার্ল্ড রেকর্ডসের ওয়েবসাইটে তাঁর শিল্পকর্মের ছবি জায়গা করে নিয়েছে। পুজোর দু’দিন আগে কালনার বিশ্বকর্মাকে কুর্নিশ।

ছবিতে প্রসেনজিৎ দাস ও তাঁর শিল্পকর্ম।

[ছেলের মৃত্যুর পর বউমা-নাতির সঙ্গে মানসিক দূরত্ব, ট্যুরিস্ট লজে আত্মঘাতী বৃদ্ধ]

Sangbad Pratidin News App: খবরের টাটকা আপডেট পেতে ডাউনলোড করুন সংবাদ প্রতিদিন অ্যাপ
নিয়মিত খবরে থাকতে লাইক করুন ফেসবুকে ও ফলো করুন টুইটারে