BREAKING NEWS

২৩  শ্রাবণ  ১৪২৯  মঙ্গলবার ৯ আগস্ট ২০২২ 

READ IN APP

Advertisement

Advertisement

প্রধানমন্ত্রীর সঙ্গে সাক্ষাতে আগ্রহী ইসলামপুর কাণ্ডে নিহতদের পরিবার

Published by: Tanumoy Ghosal |    Posted: October 8, 2018 11:51 am|    Updated: October 8, 2018 11:51 am

Darivit victims' parents to meet PM Modi seeking justice

শংকর রায় ও বিক্রম রায়: দিল্লিতে গিয়ে রাষ্ট্রপতির সঙ্গে দেখা করে সিবিআই তদন্তের দাবি জানিয়েছেন৷ প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদির সঙ্গেও দেখা করতে চান ইসলামপুর কাণ্ডে নিহত দুই ছাত্রের পরিবারের লোকেরা৷ তবে ফের কবে তাঁরা দিল্লি যাবেন, তা এখনও ঠিক করে উঠতে পারেননি৷ এদিকে কোচবিহারে ছাত্রমৃত্যুর ঘটনায় দলের অভিযুক্ত সাবির সাহাচৌধুরীকে দল থেকে বহিষ্কার করল তৃণমূল৷ ভেঙে দেওয়া হয়েছে কোচবিহারের টিএমসিপির পুরনো কমিটি।

[ তোলাবাজির প্রতিবাদে পুলিশের বিরুদ্ধে পোস্টার তৃণমূলের, চাঞ্চল্য বালুরঘাটে]

ইসলামপুরের দাঁড়িভিটে নিহত দুই ছাত্র তাপস বর্মন ও রাজেশ সরকারের পরিবারের দিল্লিতে নিয়ে গিয়েছিলেন রাজ্য বিজেপি নেতৃত্ব৷ রাইসিনা হিলসে গিয়ে রাষ্ট্রপতি রামনাথ কোবিন্দের সঙ্গে দেখা করে সিবিআই তদন্তের দাবি জানিয়েছেন তাঁরা৷ জাতীয় মানবাধিকার কমিশনেও নালিশ জানিয়েছে বিজেপি৷ গত শনিবার ইসলামপুরের কোর্টে জনসভা করেন দলের রাজ্য সভাপতি দিলীপ ঘোষ৷ নাম না করে শাসক দলকে তিনি হুমকি দেন, ‘পুলিশ যেদিন পিছনে থাকবে না, পিঠের ছাল তুলে নুন মাখিয়ে রাস্তায় ফেলে রাখব৷’ সেই জনসভায় হাজির ছিলেন কেন্দ্রীয় স্বাস্থ্যমন্ত্রী জেপি নাড্ডা৷ সভাস্থলে গিয়ে তাঁর সঙ্গে দেখা করেন নিহতদের পরিবারের লোকেরা৷ ইসলামপুরের দাড়িভিটের বাড়িতে বসে নিহত তাপস বর্মনের মা মঞ্জুদেবী বলেন, “স্বামী কিছুদিন আগে রাষ্ট্রপতির সঙ্গে দেখা করেছেন। এবার আমার ইচ্ছা, দোষীদের শাস্তির দাবি নিয়ে প্রধানমন্ত্রীকে গিয়ে সব ঘটনা জানাব।”  প্রধানমন্ত্রীর সঙ্গে কীভাবে দেখা করা সম্ভব, তা জানতে চান আরেক নিহত ছাত্র রাজেশ সরকারের মা ধর্ণা সরকার। তিনি বলেন,  ‘ছেলেকে যারা গুলি করল, তাদের শাস্তির জন্য  রাষ্ট্রপতির সঙ্গে দেখা করেছে আমার স্বামী। হাই কোর্টে অভিযোগ জানানো হয়েছে। দেখি কবে সুবিচার মেলে।” বস্তুত, ইসলামপুর কাণ্ডে সিবিআই তদন্তের দাবিতে মামলাও দায়ের করা হয়েছে কলকাতা হাই কোর্টে৷

প্রধানমন্ত্রীর সঙ্গে দেখা করতে কবে দিল্লি যাচ্ছে নিহত তাপস বর্মন ও রাজেশ সরকারের পরিবার? বিজেপির উত্তর দিনাজপুর জেলা সাধারণ সম্পাদক সুরজিৎ সেন বলেন, “কয়েকদিন অপেক্ষা করার পর প্রধানমন্ত্রীর সঙ্গে দেখা করার পরিকল্পনা রয়েছে। তবে দিনক্ষণ এখনও চূড়ান্ত  হয়নি।” গত ২০ সেপ্টেম্বর দাড়িভিট হাই স্কুলে শিক্ষক নিয়োগের দাবিতে ছাত্র আন্দোলনে গুলি চলে৷ গুলিবিদ্ধ হয়ে মারা যান তাপস বর্মন ও রাজেশ সরকার৷ কে গুলি চালাল, তা নিয়ে রহস্য দানা বেঁধেছে৷ ঘটনায় সিআইডি তদন্তের নির্দেশ দিয়েছে রাজ্য সরকার৷

এদিকে কোচবিহারের দিনহাটায় আবার দুষ্কৃতীদের মারে এক স্কুল পড়ুয়ার মৃত্যু হয়েছে৷ দিনহাটা কলেজের প্রথম বর্ষের ছাত্র ছিলেন অলক নিতাই দাস৷ গত বৃহস্পতিবার কলেজে ঢুকে তাঁকে একদল দুষ্কৃতী বেধড়ক মারধর করে বলে অভিযোগ৷ শনিবার মারা যান অলক৷ ঘটনায় অন্যতম অভিযুক্ত শাসকদলের ছাত্রনেতা সাবির সাহাচৌধুরী৷ তাঁকে দল থেকে বহিষ্কার করেছে তৃণমূল শীর্ষ নেতৃত্ব৷ এমনকী, কোচবিহারে তৃণমূল ছাত্র পরিষদে পুরানো কমিটিও ভেঙে দেওয়ার কথা ঘোষণা করেছেন শাসকদলের মহাসচিব পার্থ চট্টোপাধ্যায়৷  

[ বঙ্গতনয়ার বিশ্বজয়, মার্কিন মুলুকে পাওয়ার লিফটিংয়ে সোনা হুগলির শম্পার]

Sangbad Pratidin News App: খবরের টাটকা আপডেট পেতে ডাউনলোড করুন সংবাদ প্রতিদিন অ্যাপ
নিয়মিত খবরে থাকতে লাইক করুন ফেসবুকে ও ফলো করুন টুইটারে