২৯ ভাদ্র  ১৪২৬  সোমবার ১৬ সেপ্টেম্বর ২০১৯ 

Menu Logo পুজো ২০১৯ মহানগর রাজ্য দেশ ওপার বাংলা বিদেশ খেলা বিনোদন লাইফস্টাইল এছাড়াও বাঁকা কথা ফটো গ্যালারি ভিডিও গ্যালারি ই-পেপার

দিব্যেন্দু মজুমদার, হুগলি: অ্যাসিড হামলার আতঙ্কে কাঁপছেন হুগলির উত্তরপাড়ার মহিলারা। ইভটিজিংয়ের জন্য এবার দুষ্কৃতীরা হাতে তুলে নিয়েছেন এক ধরনের তরল রাসায়নিক। যার সংস্পর্শে মহিলাদের চুল ব্যাপকভাবে ক্ষতিগ্রস্ত হচ্ছে। বাধ্য হয়ে চুল কাটিয়ে তবে বিপদ কাটিয়ে ওঠা যাচ্ছে। যদি দুষ্কৃতীদের ছোড়া তরল কোনও কড়া অ্যাসিড হয়, তাহলে মারাত্মক জখম হওয়ার আশঙ্কায় ভুগছে এলাকার মহিলা মহল।

ইভটিজিং, তবে অন্য কায়দায়। উত্তরপাড়ার বিভিন্ন অঞ্চলে শুরু হয়েছে নয়া উপদ্রব। দুষ্কৃতীরা মহিলাদেরই টার্গেট হিসেবে বেছে নিয়ে তাঁদের চুলের দিকে ছুঁড়ে দিচ্ছে একধরনের তরল। আর তারপরই চোখের নিমেষে গা ঢাকা দিচ্ছে। গত প্রায় এক মাস ধরে এধরনের হেনস্তায় ঘর থেকে বেরোতে ভয় পাচ্ছেন এলাকার মহিলারা। এনিয়ে এখনও পর্যন্ত ৬ জন মহিলা এই রাসায়নিক হামলার শিকার হয়েছেন। শারীরিকভাবে কোনও ক্ষতি না হলেও, ট্রমায় ভুগছেন তাঁরা। চোখেমুখে এখনেও আতঙ্ক। রাতে ভাল করে ঘুমোতে পারছেন না। তাঁরা জানিয়েছেন, ওই তরল রাসায়নিক পদার্থ এমনভাবে চুলের সঙ্গে জড়িয়ে থাকছে যে তা থেকে চুলকে মুক্ত করার উপায় নেই। বাধ্য হয়ে দু’জন মাথার চুল কাটিয়ে নিতে বাধ্য হয়েছেন। ইতিমধ্যে আক্রান্তদের পক্ষ থেকে উত্তরপাড়া থানায় পৃথক পৃথকভাবে অভিযোগ দায়ের করা হয়েছে। আক্রান্ত মহিলাদের বক্তব্য, ওই রাসায়নিক পদার্থের বদলে দুষ্কৃতীরা তো অ্যাসিডও ছুড়ে মারতে পারে। সেই পরিণতির কথা চিন্তা করে এখনই তাঁরা শিউড়ে উঠছেন।

সম্প্রীতির ছবি, একার কাঁধে বাগদেবীর মণ্ডপ সাজান বনগাঁর মহিবুল

আক্রান্তরা পুলিশের দ্বারস্থ হওয়ার পরও যদিও দুষ্কৃতীদের দৌরাত্ম্য অব্যাহত। নিত্যনতুন জায়গা বেছে নিয়ে চলছে এধরনের নির্যাতন। উত্তরপাড়া মাণিকপীড় এলাকার বাসিন্দা নাচের শিক্ষিকা তুলতুল চক্রবর্তী জানাচ্ছেন, ’শনিবার দুপুরে নিজের বাড়ির কাছেই এই হামলার শিকার হয়েছি।কলকাতায় নাচের ক্লাস করতে বাড়ি থেকে বেরিয়ে রিকশায় উত্তরপাড়া স্টেশনের দিকে যাচ্ছিলাম। সেসময় হঠাৎ মাথার উপর কোনও তরল পদার্থ এসে পড়ে। মুহূর্তের মধ্যে মাথার বিভিন্ন অংশে ওই তরল পদার্থ ছড়িয়ে সেসব জায়গার চুল শক্ত হয়ে যায়।’ বিষয়টি তিনি উত্তরপাড়া থানায় জানিয়েছেন। ঘটনার কথা মনে করে রীতিমতো আতঙ্কিত তুলতুল দেবী। তাঁরও একই আশঙ্কা – যদি অ্যাসিড থাকত! এর আগে জানুয়ারি মাসেও একইভাবে তরল রাসায়নিক হামলার শিকার হন এই এলাকারই এক গৃহবধূ। বাড়ির কাছে তাঁর মাথায় কে বা কারা তরল পদার্থ ছুঁড়ে দেয়। তখনকার মতো বিষয়টি বুঝতে না পারলেও কিছুক্ষণের মধ্যেই প্রচণ্ড ঝাঁজালো দুর্গন্ধ পান তিনি। বাড়ি ফিরে দেখেন, সারা চুলে হলুদ রঙের এক তরল পদার্থ লেগে রয়েছে। মাথার চুল সেই তরল পদার্থের সঙ্গে আটকে শক্ত হয়ে গেছে। চুল থেকে কিছুতেই তা আলাদা করা যাচ্ছে না। শেষপর্যন্ত এক বান্ধবীর পরামর্শে তিনি এক বোতল কেরোসিন তেল দিয়ে প্রায় ঘণ্টা দুয়েকের চেষ্টায় তরল পদার্থ বের করে দিতে সক্ষম হন।

‘বাড়ি চলুন দাদা’, ঘনিষ্ঠের কথায় কান না দিয়ে প্রাণ খোয়ালেন বিধায়ক!

প্রতিটি ঘটনাই এত দ্রুততার সঙ্গে ঘটেছে যে আক্রান্তরা কেউই দুষ্কৃতীদের দেখতে পাননি। পাশাপাশি এরকম আরও কিছু ঘটনার কথা প্রকাশ্যে আসার পর থেকে এলাকার মহিলাদের মধ্যে আতঙ্ক ছড়িয়েছে। ভয়ে অনেকেই মাথা ঢেকে রাস্তায় বেরোচ্ছেন। পুলিশ প্রশাসনের কাছে তাঁদের আবেদন, অবিলম্বে দোষীদের গ্রেপ্তার করে কঠোর ব্যবস্থা নেওয়া হোক। উত্তরপাড়া-কোতরং পুরসভার চেয়ারম্যান দিলীপ যাদব জানিয়েছেন, ইতিমধ্যে তার কাছেও কয়েকটি অভিযোগ জমা পড়েছে। তাঁর অধীনস্থ পুর এলাকার যে কোনও নাগরিকের স্বার্থে তিনি পাশে আছেন। আর পুলিশের পক্ষ থেকে জানানো হয়েছে, এধরনের অনেক অভিযোগ থানায় জমা পড়েছে। উত্তরপাড়ার বিভিন্ন এলাকায় মহিলা পুলিশ টহলদারির ব্যবস্থা করেছে। এছাড়া সাদা পোশাকের পুলিশ এলাকার উপর সতর্ক নজর রাখছে।

আরও পড়ুন

আরও পড়ুন

ট্রেন্ডিং