২০ অগ্রহায়ণ  ১৪২৮  মঙ্গলবার ৭ ডিসেম্বর ২০২১ 

READ IN APP

Advertisement

ডিজে-র তালে বার ডান্সারের উদ্দাম নাচ, পরিবেশ বিধি ভেঙে বিতর্কে বক্সা ব্যাঘ্র প্রকল্প

Published by: Shammi Ara Huda |    Posted: September 18, 2018 11:08 am|    Updated: September 18, 2018 1:30 pm

Forest officials play loud music in Buxa Tiger Reserve

ছবিতে বার ড্যান্সারের উদ্দাম নাচ।

রাজ কুমার, আলিপুরদুয়ার: সংরক্ষিত বনাঞ্চলে ডিজে বাজিয়ে বার ডান্সারের উদ্দাম নাচ। ভিডিও ভাইরাল হতেই ফের বিতর্কের কেন্দ্রে আলিপুরদুয়ার। গত শনিবার রাতে চাঞ্চল্যকর ঘটনাটি ঘটেছে আলিপুরদুয়ার জেলার বক্সা ব্যাঘ্র প্রকল্পের ভিতরে। নাচের ভিডিও প্রকাশ্যে আসায় প্রশ্নের মুখে জেলার বনদপ্তর। সংরক্ষিত বনাঞ্চলে যেখানে পর্যটকদের প্রবেশেই হাজারটা বিধিনিষেধ রয়েছে সেখানে কী করে ডিজে বাজিয়ে জলসা চলল। তা নিয়ে প্রশ্ন উঠতে শুরু করেছে। এই ঘটনায় রীতিমতো অস্বস্তির মুখে বক্সা ব্যাঘ্র প্রকল্পের কর্তাব্যক্তিরা।

এই ঘটনায় ক্ষোভে ফুটছেন জেলার পরিবেশবিদরা। তাঁদের প্রশ্ন, সংরক্ষিত বনাঞ্চলের ভিতরে তাহলে বনদপ্তরের রক্ষীরা কী করছিলেন? ব্যবসায়ী সংগঠন বনাঞ্চলের ভিতরে বাণিজ্যিক সম্মেলনের অনুমতি পায় কী করে? তানিয়েও উঠছে প্রশ্ন। জানা গিয়েছে, ব্যাঘ্র প্রকল্পের ভিতরে ‘জঙ্গল ইন’ নামের একটি হোম স্টে রয়েছে। সেখানেই দু’দিনের বাণিজ্যিক সম্মলনের আয়োজন করে কোচবিহারের একটি ব্যবসায়ী সংগঠন। গত শুক্র ও শনিবার সেই সম্মেলনের আয়োজন হয়েছিল। অভিযোগ, শনিবার রাতেই সম্মেলন মঞ্চে জলসার আয়োজন করা হয়। ডিজে বাজিয়ে চলে উদ্দাম নাচ। মোটা টাকার বরাত দিয়ে বার ড্যান্সারকে নিয়ে আসা হয়। উদ্দাম নাচের তালে তালে টাকা ওড়ানোরও অভিযোগ রয়েছে। বিতর্কের শেষ এখানেই নয়। ব্যবসায়ীদের পাশাপাশি সেই নাচের জলসায় স্থানীয় পঞ্চায়েত নেতা, বনদপ্তরের কর্তাব্যক্তিরাও উপস্থিত ছিলেন বলে অভিযোগ পাওয়া গিয়েছে। গোটা ঘটনায় ক্ষোভে ফুটছেন স্থানীয়রা।

[বিশ্বকর্মাই বাঁচিয়ে দিলেন, গাংনাপুর বিস্ফোরণে প্রাণে বেঁচে ভাগ্যকে ধন্যবাদ কর্মীদের]

জানা গিয়েছে, হোম স্টে-র মালিকের নাম দুর্গা অধিকারী। উদ্দাম নাচের ভিডিও প্রকাশ্যে আসার পর থেকেই তিনি গা-ঢাকা দিয়েছেন। সংশ্লিষ্ট ব্যবসায়ী সংগঠনের মাথাদেরও হদিশ মিলছে না। এই ঘটনায় রীতিমতো অস্বস্তিতে জেলা বনদপ্তর। পরিস্থিতি সামাল দিতে ড্যামেজ কন্ট্রোলে নেমেছেন ব্যাঘ্র প্রকল্পের উপক্ষেত্র অধিকর্তা কল্যাণ রায়। তিনি বলেন, ‘বনাঞ্চলের মধ্যে ডিজে বাজিয়ে উদ্দাম নাচের খবর জানতে পেরেছি। ঘটনার তদন্তের নির্দেশ দেওয়া হয়েছে। ভিডিওটি কবে কখন কোথাকার নাচের তা খতিয়ে দেখা হচ্ছে। দোষ প্রমাণিত হলে অভিযুক্তদের বিরুদ্ধে কড়া শাস্তির ব্যবস্থা করা হবে।’ গোটা ঘটনার তীব্র নিন্দা করেছেন ডুয়ার্স ট্যুরিজম ডেভলপমেন্ট ফোরামের সভাপতি পার্থসারথি রায়। তিনি জানান, ভিডিওটি প্রকাশ্যে আসার পর জরুরি ভিত্তিতে বৈঠক ডাকা হচ্ছে। বৈঠকেই কী করণীয় তা ঠিক হবে। গোটা ঘটনায় স্বভাবতই ক্ষুব্ধ পরিবেশপ্রেমী সংগঠনগুলি বনদপ্তরের ভূমিকা নিয়ে প্রশ্ন তুলেছে। সংরক্ষিত বনাঞ্চলে ডিজে বাজানোর মতো অপ্রীতিকর ঘটনা ঘটল কীভাবে তা নিয়ে তৈরি হয়েছে বিতর্ক। হোম স্টে-র মালিক কী করে বাণিজ্যিক সম্মেলন আয়োজনের অনুমতি পেলেন, তা নিয়েও প্রশ্ন উঠেছে। রাতে বনাঞ্চলে ডিজের দাপটের সঙ্গে উদ্দাম নাচ বনকর্মী থকে রেঞ্জার, বিট অফিসারের কান এড়িয়ে গেল কীভাবে। নাকি সর্ষের মধ্যেই ভূত রয়েছে ? হাজারটা প্রশ্নের মুখে বেশ অস্বস্তিতে বক্সা ব্যঘ্র প্রকল্পের দায়িত্বপ্রাপ্ত আধিকারিকরা।

 

[টাকার লোভে নাবালিকাকে ‘খুন’ করে চম্পট প্রেমিক, চাঞ্চল্য তেহট্টে]

 

Sangbad Pratidin News App: খবরের টাটকা আপডেট পেতে ডাউনলোড করুন সংবাদ প্রতিদিন অ্যাপ
নিয়মিত খবরে থাকতে লাইক করুন ফেসবুকে ও ফলো করুন টুইটারে