BREAKING NEWS

২৬ বৈশাখ  ১৪২৯  সোমবার ১৬ মে ২০২২ 

READ IN APP

Advertisement

Advertisement

রোগীমৃত্যুকে কেন্দ্র করে রণক্ষেত্র মালদহ মেডিক্যাল কলেজ

Published by: Kumaresh Halder |    Posted: November 14, 2018 11:56 am|    Updated: November 14, 2018 11:56 am

Malda Medical College violence

বাবুল হক, মালদহ: রক্ত শূন্যতা নিয়ে ভর্তি হওয়া চিকিৎসাধীন রোগীর মৃত্যু ঘিরে রণক্ষেত্রের চেহারা নিল মালদহ মেডিক্যাল কলেজ হাসপাতাল৷ রোগী মৃত্যুর প্রতিবাদে মেডিক্যাল কলেজ হাসপাতাল ভাঙচুরের অভিযোগ। পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে আনতে ঘটনাস্থলে ইংরেজবাজার থানার বিশাল পুলিশ৷

[মুখ্যমন্ত্রীর হাত ধরে বারুইপুরে ঠিকানা বদলাচ্ছে আলিপুর সেন্ট্রাল জেল]

জানা গিয়েছে মৃত ব্যক্তির নাম কায়েম আলি (৫০)৷ মঙ্গলবার বিকেলে রক্ত শূন্যতা নিয়ে মালদহ মেডিক্যাল কলেজ হাসপাতালে ভর্তি হন কায়েম আলি। রাতে পরিস্থিতি আরও জটিল হয়ে ওঠে৷ ওই সময় কর্তব্যরত চিকিৎসকেরা জানান, রোগীর চিকিৎসার জন্য প্রয়োজন রক্ত৷ বাইরে থেকে চড়া দামে রক্ত কিনে পরিবারের লোকেরা যখন ওয়ার্ডে যেতে চান, সেই সময়ে কর্তব্যরত নিরাপত্তা রক্ষীরা তাঁদেরকে ঢুকতে বাধা দেয়৷ পরিবারের অভিযোগ, রক্ত পৌঁছে দেওয়াকে কেন্দ্র করে চলতে থাকা টানাপোড়েনের জেরে মৃত্যু হয় ওই রোগীর৷ রোগীমৃত্যুর খবর পেয়ে নিরাপত্তা কর্মীদের উপর চড়াও হন পরিবারের সদস্যরা৷ বেধড়ক মারধর করা হয় নিরাপত্তা রক্ষীদের৷

[হাতে চ্যানেল করতে গিয়ে বিপত্তি! প্রতিবাদ করায় বৃদ্ধের সঙ্গে দুর্ব্যবহার নার্সের]

শনিবার রাতে নিরাপত্তা রক্ষীদের মারধরের পর আজ সকালে ওই একই ঘটনার প্রতিবাদ জানিয়ে মেডিক্যাল কলেজ হাসপাতালে হামলা চালান মৃতের পরিবারের সদস্যরা৷ নির্বিচারে চলে ভাঙচুর৷ লন্ডভন্ড করে দেওয়া হয় জরুরি ও বহির্বিভাগ৷ মেডিক্যাল কলেজ হাসপাতালে ভাঙচুরের ঘটনায় অন্য রোগীদের মধ্যও আতঙ্ক ছড়িয়ে পড়ে৷ হাসপাতাল ভাঙচুরের খবর পেয়ে ঘটনাস্থলে যায় ইংরেজবাজার থানার পুলিশ। গোটা ঘটনায় মৃত রোগীর পরিবারের পক্ষ থেকে লিখিত অভিযোগ দায়ের করা হয়েছে ইংরেজবাজার থানায়৷ পালটা সরকারি কাজে বাধা ও সরকারি সম্পত্তি নষ্ট করার অভিযোগেও দায়ের হয় মামলা৷ তবে, এদিনের এই ঘটনায় এখনও পর্যন্ত কাউকে গ্রেপ্তার করতে পারেনি পুলিশ৷ গোটা ঘটনার তদন্ত শুরু করেছে পুলিশ৷

Sangbad Pratidin News App: খবরের টাটকা আপডেট পেতে ডাউনলোড করুন সংবাদ প্রতিদিন অ্যাপ
নিয়মিত খবরে থাকতে লাইক করুন ফেসবুকে ও ফলো করুন টুইটারে