BREAKING NEWS

১৩  আষাঢ়  ১৪২৯  মঙ্গলবার ২৮ জুন ২০২২ 

READ IN APP

Advertisement

Advertisement

সকালে রেইকি, বিকেলে আগ্নেয়াস্ত্র দেখিয়ে পুলিশকর্মীর বাড়িতেই ডাকাতি

Published by: Sayani Sen |    Posted: August 19, 2018 9:07 am|    Updated: August 19, 2018 9:07 am

North 24 Pargana: Robbery at the policeman's house

সংবাদ প্রতিদিন ডিজিটাল ডেস্ক: আগ্নেয়াস্ত্র দেখিয়ে মারধর করে পুলিশকর্মীর বাড়িতেই লুটপাট চালাল দুষ্কৃতীরা৷ লুট নগদ লক্ষাধিক টাকা ও গয়নাগাটি৷ এই ঘটনায় আতঙ্ক ছড়িয়েছে উত্তর ২৪ পরগনার খড়দহের শান্তিনগরে৷ স্থানীয় থানায় অভিযোগ দায়ের করা হয়েছে৷ তবে এখনও কেউ গ্রেপ্তার হয়নি৷

[বধূ নির্যাতনের অভিযোগ করায় শ্বশুরবাড়িতে বোমা ছুড়ল গুনধর জামাই]

শনিবার সকালে দেবাশিস মুখোপাধ্যায় নামে খড়দহের এক পুলিশকর্মীর বাড়িতে আসে এক মহিলা-সহ দুজন৷ এলাকারই এক ব্যক্তির খোঁজ নেওয়ার অছিলায় পুলিশকর্মীর স্ত্রীর সঙ্গে কথাবার্তাও বলে তারা৷ ওইদিন বিকেলেই পুলিশকর্মীর স্ত্রী বাড়ির নিচতলায় ডাইনিং টেবিল মুছছিলেন৷ সেই সময় দু’জন যুবক বাড়িতে ঢুকে পড়ে৷ সকালে আসা ওই মহিলা মুখে কালো কাপড় বাঁধা অবস্থায় পিছনের দরজা দিয়ে বাড়ির ভিতরে ঢুকে পড়ে৷ পুলিশকর্মীর স্ত্রীকে ঘিরে ধরে তিনজনে৷ মাথায় বন্দুক ঠেকিয়ে দু্’তলার ঘরে নিয়ে যাওয়া হয় তাঁকে৷ বন্দুকের বাঁট দিয়ে মাথায় আঘাত করা হয় পুলিশকর্মীর স্ত্রীকে৷ প্রাণনাশের হুমকি দিয়ে আলমারির চাবি কেড়ে নেওয়া হয়৷ ওই চাবি দিয়ে আলমারি খুলে নগদ লক্ষাধিক টাকা ও গয়নাগাটি বের করে নেয় তারা৷ কোনও রাসায়নিক লাগানো রুমাল পুলিশকর্মীর স্ত্রীর মুখে চেপে ধরা হয়৷ তাতেই অচৈতন্য হয়ে পড়েন তিনি৷ এরপর বাড়ি থেকে পালিয়ে যায় দুষ্কৃতীরা৷

[যুবতীর সঙ্গে অশালীন আচরণের অভিযোগে বোমাবাজি, উত্তপ্ত কাটোয়া]

লুটপাটের সময় বাড়িতে একাই ছিলেন পুলিশকর্মীর স্ত্রী৷ ঘটনার বেশ কিছুক্ষণ পর অন্যান্যরা বাড়ি ফিরে আসে৷ ঘরের ভিতর সব জিনিসপত্র লন্ডভন্ড হয়ে রয়েছে দেখেন তাঁরা৷ পুলিশকর্মীর স্ত্রীকেও অচৈতন্য অবস্থায় উদ্ধার করা হয়৷ পুলিশকর্মীর পরিবারের অভিযোগ, মাসখানেক ধরে তাঁদের নানাভাবে উত্যক্ত করা হচ্ছিল৷ কখনও বাড়ির দরজায় কড়া নেড়ে চলে যাচ্ছিল কেউ আবার কখনও বাড়ির বাইরে থেকে দরজা বন্ধ করে বিরক্ত করা হচ্ছিল৷ এই লুটপাটের ঘটনার সঙ্গে পরিচিত কারও যোগসাজশ রয়েছে বলেই অভিযোগ পুলিশকর্মীর স্ত্রীর৷ স্থানীয় থানায় অভিযোগ দায়ের করা হলেও, এখনও কেউ গ্রেপ্তার হয়নি৷    

Sangbad Pratidin News App: খবরের টাটকা আপডেট পেতে ডাউনলোড করুন সংবাদ প্রতিদিন অ্যাপ
নিয়মিত খবরে থাকতে লাইক করুন ফেসবুকে ও ফলো করুন টুইটারে