২৮ আশ্বিন  ১৪২৭  সোমবার ২৬ অক্টোবর ২০২০ 

Advertisement

দাম্পত্য অশান্তিতে আত্মহত্যা নাকি খুন? পুলিশ আধিকারিকের মৃত্যুতে তদন্তকারীদের নজরে স্ত্রী

Published by: Sayani Sen |    Posted: September 18, 2020 1:57 pm|    Updated: September 18, 2020 6:57 pm

An Images

সংবাদ প্রতিদিন ডিজিটাল ডেস্ক: দাম্পত্য অশান্তি দিনকয়েক ধরে চলছিল। আর ঠিক তারই মাঝে বাড়ি থেকেই উদ্ধার হল বালুরঘাট (Balurghat) সদর ট্রাফিক অফিসের ওসির দেহ। স্ত্রীর দাবি, মানসিক অবসাদে আত্মহননের সিদ্ধান্ত নিয়েছেন তিনি। যদিও পুলিশ দেহ ময়নাতদন্তে পাঠিয়েছেন। মানসিক অবসাদে আত্মঘাতী নাকি দাম্পত্য সম্পর্কের শীতলতায় খুন, তা খতিয়ে দেখছে পুলিশ।

বৃহস্পতিবার রাতে নিজের বাড়িতেই ঘুমোচ্ছিলেন বালুরঘাট সদর ট্রাফিক অফিসের ওসি সুদীপ্তকুমার দাস। অনেকবার ডাকাডাকি করেও তাঁর সাড়াশব্দ পাওয়া যায়নি। আতঙ্কিত হয়ে চিৎকার চেঁচামেচি করতে থাকেন তাঁর স্ত্রী। প্রতিবেশীরাও জড়ো হয়ে যান। স্ত্রী দাবি করেন, ঘুমের ওষুধ খেয়ে আত্মঘাতী হয়েছেন তাঁর স্বামী। খবর পেয়ে বালুরঘাট থানার পুলিশ ঘটনাস্থলে পৌঁছয়। ট্রাফির অফিসের ওসির নিথর দেহ উদ্ধার করে পুলিশ। তারপর তা ময়নাতদন্তে পাঠানো হয়।

[আরও পড়ুন: নদিয়ার সরকারি হাসপাতালের নার্সকে গুলি করে খুন স্বামীর, নেপথ্যে দাম্পত্য কলহ?]

পরিবার সূত্রে খবর, বেশ কয়েকদিন ধরেই স্ত্রীর সঙ্গে সম্পর্ক ভাল ছিল না বালুরঘাট সদর ট্রাফিক অফিসের ওসির। তাঁদের দু’জনের মধ্যে সংঘাত লেগেই ছিল। স্ত্রীর সঙ্গে অশান্তির কারণে মানসিক অবসাদে ভুগছিলেন বলেও জানিয়েছিলেন পরিচিতদের। ঠিক কী কারণে দাম্পত্য সম্পর্কের এমন অবনতি, তা জানতেন না কেউই। সেই অবসাদ থেকে আত্মহননের সিদ্ধান্ত বলেও মনে করছেন অনেকেই। তবে তাঁকে খুন করার সম্ভাবনাও উড়িয়ে দিচ্ছেন না তদন্তকারীরা। আপাতত ময়নাতদন্ত রিপোর্ট হাতে আসার অপেক্ষায় পুলিশ। তবে দাম্পত্য সম্পর্কের অবনতির কারণ খতিয়ে দেখতে স্ত্রীকে জেরা করছে পুলিশ (Police)।

[আরও পড়ুন: তৃণমূলের ‘গোষ্ঠী সংঘর্ষে’ রণক্ষেত্র কেশপুর, বোমাবাজিতে কিশোর-সহ মৃত ২]

Advertisement

Advertisement

Advertisement

Advertisement

Advertisement