১২ কার্তিক  ১৪২৭  বৃহস্পতিবার ২৯ অক্টোবর ২০২০ 

Advertisement

ধর্ষণের পর বিষ খেয়ে আত্মঘাতী ছাত্রী, মৃত্যুর আগে ভিডিও বার্তায় ধরিয়ে দিল অপরাধীকে

Published by: Sucheta Sengupta |    Posted: September 20, 2020 6:58 pm|    Updated: October 8, 2020 8:53 pm

An Images

নন্দন দত্ত, সিউড়ি: ধর্ষণের পর অপমান থেকে বাঁচতে বিষ খেয়ে আত্মঘাতী হল নবম শ্রেণির এক ছাত্রী। বীরভূমের (Birbhum) নানুরের ঘটনায় আত্মহত্যার আগে সে একটি ভিডিও বার্তায় (Video messege) অপরাধীর কথা বলে গিয়েছে। সেই ভিডিও গ্রামে ছড়িয়ে পড়তেই তীব্র চাঞ্চল্য। সেই ভিডিও দেখে অভিযুক্ত প্রতিবেশী তথা নানুরের নতুনগ্রাম হাইস্কুলের অশিক্ষক কর্মী উৎপল মণ্ডলকে গ্রেপ্তার করেছে মুরারই থানার পুলিশ।

মহুরাপুর হাইস্কুলের নবম শ্রেণির ছাত্রীটি শনিবার রাতে টিউশন পড়ে বাড়ি ফিরছিল। তার অভিযোগ, রাত ৯ টা নাগাদ বাড়ি ফেরার পথে উৎপল নিজের বাড়ির কাছে তার পথ আটকায়। বছর তিরিশের ওই যুবক তাকে জোর করে অন্ধকারে নিয়ে গয়ে ধর্ষণ করে বলে মেয়েটি মৃত্যুকালীন জবানবন্দিতে জানিয়েছে। মৃতের বাবা বলেন, ”মেয়েকে দেখে আমরা বুঝতে পারিনি। প্রতিদিনের মতো বাড়ি ফিরে রাতের খাবার খেয়ে শুতে যায়। ঘরে গিয়ে অপমানে বিষপান করে। এরপর যন্ত্রণায় ছটফট করলে ছুটে যাই। তখন ওর উপর অত্যাচারের কথা বলে।” রাতেই ছাত্রীকে মুরারই স্বাস্থ্যকেন্দ্রে নিয়ে যাওয়া হয়। সেখানে অবস্থার অবনতি হওয়ায় তাকে রামপুরহাট মেডিক্যাল কলেজ হাসপাতালে পাঠানো হলে সেখানেই তার মৃত্যু হয়।

[আরও পড়ুন: ধন্য প্রেম! দু’দিন ধরনার পর প্রেমিকের সঙ্গে সাত পাকে বাঁধা পড়লেন ধূপগুড়ির তরুণী]

এদিকে, ছাত্রীর ওই ভিডিও সেই ভিডিওটি গ্রামে ছড়িয়ে পড়তেই উত্তেজনা ছড়ায়। ভিডিওটি পুলিশ সংগ্রহ করে তার ভিত্তিতে তদন্ত শুরু করায় শনিবার রাতেই উৎপলকে আটক করে নিজেদের হেফাজতে নেয়। জানা যায়, ওই ঘটনার পর মেয়েটি অভিযুক্ত উৎপলের বাবার দোকান থেকেই বিষ কিনে বাড়ি ফিরেছিল। উৎপল মহুরাপুর স্কুলের অশিক্ষক কর্মচারী। এমন একজনের বিরুদ্ধে নাবালিকার উপর যৌন নির্যাতনের অভিযোগ উঠতেই স্থানীয় বাসিন্দারা স্কুলটিকেও কাঠগড়ায় তুলতে থাকেন। ঘটনার পর থেকে অভিযুক্ত উৎপলের গোটা পরিবার পলাতক।

[আরও পড়ুন: দাড়িভিট কাণ্ডের প্রতিবাদ হিন্দু সংহতি মঞ্চের, বনগাঁয় মিছিলে বাধা পেয়ে থানার সামনে বিক্ষোভ]

Advertisement

Advertisement

Advertisement

Advertisement

Advertisement