BREAKING NEWS

১৯ অগ্রহায়ণ  ১৪২৮  সোমবার ৬ ডিসেম্বর ২০২১ 

READ IN APP

Advertisement

কাঁকসা ব্লকে কমিটি গঠন নিয়ে তুমুল বিতর্ক তৃণমূলের অন্দরে

Published by: Sangbad Pratidin Digital |    Posted: August 3, 2018 8:12 pm|    Updated: June 5, 2019 11:53 am

The dispute over the formation Kankasa block TMC Committee

সুদীপ বন্দ্যোপাধ্যায়, দুর্গাপুর: দীর্ঘ একবছর পর কাঁকসা ব্লকে কমিটি গঠন করল তৃণমূল৷ ব্লক সভাপতির পরিবর্তে অঞ্চল সভাপতির নাম ঘোষণা করা হয়৷ আর তাতেই শুরু হয় বিতর্ক৷ আনন্দে ব্লক সভাপতিরা এলাকায় এলাকায় মিষ্টি বিতরণ ও আবির খেলাতে মেতে ওঠেন বলে অভিযোগ যায় জেলা নেতৃত্বের কাছে৷ আর তাতেই ক্ষুব্ধ দল৷ এমনিতেই ব্লকের সাতটি পঞ্চায়েত ভিত্তিক সাত অঞ্চল সভাপতির নাম ঘোষণা করতেই দলের অন্দরে ব্যাপক ক্ষোভের সৃষ্টি হয়েছে৷ তার উপর গোষ্ঠীদ্বন্দ্ব ধামাচাপা দিতে এবারই প্রথম অঞ্চলভিত্তিক কার্যকরী সভাপতিও নিয়োগ করা হয়েছে৷ আর তাতে ক্ষোভের পারদ আরও চড়তে শুরু করেছে৷

[ব্যাংক জালিয়াতি রুখতে নিরাপত্তায় গুরুত্ব জেলা প্রশাসনের]

গত বিধানসভা নির্বাচনের পরই জেলার সমস্ত শাখা সংগঠন ভেঙে দেয় তৃণমূল৷ ধীরে ধীরে সব এলাকায় ফের কমিটি গঠন করা সম্ভব হলেও কাঁকসাতে কোন কমিটি গঠন করা যায়নি৷ বৃহস্পতিবার দলের তরফে দুর্গাপুরের কমিটি-সহ কাঁকসারও অঞ্চল সভাপতি ঘোষণা করা হয়৷ সাতটি অঞ্চলেই গঠন করা হয় এই কমিটি৷ সভাপতির সঙ্গে এবারই প্রথম কার্যকরী সভাপতিও নিয়োগ করা হয়৷ কাঁকসা ও আমলাজোড়া অঞ্চল ছাড়া আর পাঁচটি অঞ্চলেই নিয়োগ করা হয়েছে কার্যকরী সভাপতি৷ বনকাটি ও মলানদিঘি অঞ্চলে আবার দুই জন কার্যকরী সভাপতিকে নিয়োগ করা হয়েছে৷ কমিটি ঘোষণা হতেই কাঁকসা ব্লকে তৃণমূলের অন্দরে ক্ষোভ ছড়িয়ে পরে৷ যোগ্যতম ব্যক্তিকে সভাপতি করা হয়নি ছাড়াও সদ্য শাসকদলে যোগ দিয়েই এই পদ পেয়েছে বলেও অভিযোগ করেছেন কাঁকসা ব্লকের তৃণমূল কর্মীরা৷

দলীয় সূত্রে জানা গিয়েছে, দুর্গাপুরের দুই তৃণমূল নেতাকে সন্তুষ্ট করতেই তাদের দেওয়া নামের তালিকাকেই অনুমোদন দিয়েছে দল৷ এই দুই নেতা পঞ্চায়েত নির্বাচনের পরই কাঁকসায় গিয়ে নতুন করে গোষ্ঠীর জন্ম দেওয়ায় দ্বন্দ্ব আরও বেড়েছে৷ এতে দলের পুরানো কর্মীদের মধ্যেও ক্ষোভ ছড়িয়েছে৷ এরফলে দলের ভাবমূর্তিও খারাপ হবে বলেই তাদের দাবি৷

[মাত্রারিক্ত ওষুধের জের, হাসপাতাল থেকে বেরিয়ে কুয়োয় ঝাঁপ রোগীর]

এদিকে, সভাপতি হতেই দুই অঞ্চল সভাপতির উৎসাহ উদ্দীপনার বহর নিয়ে ক্ষুব্ধ দলের জেলা নেতারা৷ বৃহস্পতিবার কমিটি ঘোষণা হতেই এলাকায় এই দুই ব্লক সভাপতি খুশিতে আবির নিয়ে খেলা ছাড়াও মিষ্টি বিতরণ করেন তাঁর অনুগামীদের মধ্যে৷ এমনই খবর দলীয় নেতৃত্বের কাছে৷ আর এতে ওই দুই অঞ্চল সভাপতির বিরুদ্ধ গোষ্ঠীর মধ্যে ক্ষোভ ছড়িয়েছে৷ বিষয়টি ঠিক হয়নি বলে দলের পশ্চিম বর্ধমান জেলা সভাপতি ভি শিবদাসন দাশু বলেন, “এই অঞ্চল সভাপতিদের নাম ঘোষণা করা হয়েছে মাত্র৷ তাঁদের নিয়োগপত্র দেওয়া হয়নি৷ দল দিন পনেরো এই সভাপতিদের উপর নজর রাখবে৷ কোনও রকম শৃঙ্খলা-ভঙ্গের কারণ দেখলেই তাঁদের পদ থেকে সরিয়ে দেওয়া হবে৷

Sangbad Pratidin News App: খবরের টাটকা আপডেট পেতে ডাউনলোড করুন সংবাদ প্রতিদিন অ্যাপ
নিয়মিত খবরে থাকতে লাইক করুন ফেসবুকে ও ফলো করুন টুইটারে