BREAKING NEWS

১ কার্তিক  ১৪২৮  মঙ্গলবার ১৯ অক্টোবর ২০২১ 

READ IN APP

Advertisement

তরুণীকে যৌন হেনস্তা পরিবহণ দপ্তরের আধিকারিকের! চাঞ্চল্য বর্ধমানে

Published by: Kumaresh Halder |    Posted: October 4, 2018 11:15 am|    Updated: October 4, 2018 11:19 am

The woman's 'sexual harassment' by govt officer

সৌরভ মাজি, বর্ধমান: ড্রাইভিং লাইসেন্সে ভুল সংশোধন করাতে গিয়ে যৌন হেনস্তার শিকার এক তরুণী!  নথিপত্র ঘেটে  মোবাইল নম্বর জোগাড় পরিবহণ দপ্তরের এক আধিকারিক তাঁকে কুপ্রস্তাব ও অশ্লীল এসএমএস পাঠিয়েছে বলে অভিযোগ৷ জেলার আঞ্চলিক পরিবহণ আধিকারিকদের কাছে লিখিত অভিযোগ জানিয়েছেন ওই তরুণী৷ শোরগোল পড়েছে পূর্ব বর্ধমানে৷  ঘটনার তদন্তের নির্দেশ দিয়েছেন জেলাশাসক অনুরাগ শ্রীবাস্তব৷  দোষ প্রমাণিত হলে অভিযুক্তের বিরুদ্ধে কড়া পদক্ষেপের আশ্বাস দিয়েছেন তিনি৷

[মহালয়ার আগেই উৎসব শুরু বীরভূমে, কৃষ্ণনবমীতে হল দেবীর বোধন]

একটি বেসরকারি সংস্থার কর্মী ওই তরুণী। ড্রাইভিং লাইন্সের ভুল শোধরানোর জন্য বর্ধমানে শহরে পরিবহণ দপ্তরের কার্যালয়ে গিয়েছিলেন তিনি। সঙ্গে ছিলেন তাঁর এক সহকর্মী।  ওই তরুণীর অভিযোগ, তাঁকে সংশোধিত লাইন্সেস দিতে অস্বীকার করেন পাপ্পু রায় নামে পরিবহণ দপ্তরের এক আধিকারিক। উলটে অশালীন আচরণ করে সে।  ওই তরুণীর সহকর্মী কিরণশঙ্কর সরকার (গুড্ডু) জানান, ড্রাইভিং লাইসেন্স সংশোধন করতে দেওয়ার সময় মোবাইল নম্বর দিতে হয়। সেই মোবাইল নম্বরে বিভিন্ন সময় অশালীন মেসেজ, হোয়াটসঅ্যাপ করত  পাপ্পু । গুড্ডু বলেন, “পাপ্পু রায় কখনও বলতেন আমার সঙ্গে দেখা কর, আমার ফ্ল্যাটে এসো, কখনও বা আই লাভ ইউ লিখে পাঠিয়ে উত্যক্ত করত। এমনকী ড্রাইভিং লাইসেন্স সংশোধিত হওয়ার পর তাঁর ছবি তুলে হোয়াটঅ্যাপেও পাঠায় ওই আধিকারিক। কিন্তু সেটা নিতে নানাভাবে হয়রানি করেন ওই আধিকারিক।”

অতিরিক্ত আঞ্চলিক পরিবহণ আধিকারিকের সঙ্গে দেখা করে  গোটা ঘটনা জানিয়েছেন ওই তরুণী ও তাঁর সহকর্মী। লিখিত অভিযোগও জমা দিয়েছেন তাঁরা। অভিযোগ প্রাপ্তির সত্যতা স্বীকার করেছেন আঞ্চলিক পরিবহণ আধিকারিক রানা বিশ্বাস. তবে এরবেশি কিছু বলতে চাননি তিনি। পূর্ব বর্ধমানের জেলাশাসক অনুরাগ শ্রীবাস্তব জানিয়েছেন, ঘটনার তদন্ত করে প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা নেওয়া হবে। এদিকে অভিযুক্ত পাপ্পু রায়ের সঙ্গে তাঁর দপ্তরে কথা বলতে গেলে তিনি ঊর্ধ্বতন কর্তৃপক্ষের সঙ্গে কথা বলার অছিচিলায় দপ্তর থেকেই বেরিয়ে যান। বাইরে গিয়েও তাঁর বিরুদ্ধে অভিযোগের বিষয়ে জানতে চাওয়া হলে তিনি ফের পরিবহণ আধিকারিকের ঘরে ঢুকে যান। কোনও মন্তব্য করতে চাননি। পরে সেই ঘরের অন্য দরজা দিয়ে সাংবাদিকদের এড়িয়ে বাইরে চলে যান৷

ছবি: মুকুলেশুর রহমান

[সরকারি গাছ কেটে পাচার করছে খোদ পঞ্চায়েত প্রধানই!]

Sangbad Pratidin News App: খবরের টাটকা আপডেট পেতে ডাউনলোড করুন সংবাদ প্রতিদিন অ্যাপ
নিয়মিত খবরে থাকতে লাইক করুন ফেসবুকে ও ফলো করুন টুইটারে

Advertisement

Advertisement