২৯ ভাদ্র  ১৪২৬  সোমবার ১৬ সেপ্টেম্বর ২০১৯ 

Menu Logo পুজো ২০১৯ মহানগর রাজ্য দেশ ওপার বাংলা বিদেশ খেলা বিনোদন লাইফস্টাইল এছাড়াও বাঁকা কথা ফটো গ্যালারি ভিডিও গ্যালারি ই-পেপার

সংগ্রাম সিংহরায়, শিলিগুড়ি: কলকাতা নয়, ভাষাগত সাযুজ্য হোক কিংবা আতিথেয়তার আবহ, শিলিগুড়িকেই প্রথম পছন্দের তালিকায় রাখছে বাংলাদেশ। বিশেষ করে বাংলাদেশের কলকাতাস্থিত ডেপুটি হাই কমিশনার-এর প্রেস সচিব ডঃ মহম্মদ মোফাকখারুল ইকবাল। শনিবার শিলিগুড়িতে আন্তর্জাতিক ফিল্ম ফেস্টিভ্যালে বাংলাদেশের প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা ওয়াজেদকে নিয়ে তৈরি তথ্যচিত্রের প্রিমিয়ার ছিল। সেই উপলক্ষে এসে সংবাদমাধ্যমের মুখোমুখি
হয়ে একথাই জানালেন তিনি। তাই প্রথমে বঙ্গবন্ধুর জন্মশতবার্ষিকী উদযাপনের তালিকায় নাম না থাকলেও পরে শিলিগুড়িকে যুক্ত করার সিদ্ধান্ত নেওয়া হয় বলেও জানান।

[আরও পড়ুন: ১০ লক্ষ চেয়ে হুমকি ফোন, টাকা না দেওয়ায় রেস্তরাঁয় বোমা]

শনিবার শিলিগুড়ির দীনবন্ধু মঞ্চে বসে সংবাদমাধ্যমের মুখোমুখি হয়ে শিলিগুড়ি সম্পর্কে মুগ্ধতার কথা স্বীকার করে নেন তিনি। তাই শুধু বঙ্গবন্ধুর জন্মশতবার্ষিকী উদযাপন অনুষ্ঠানই নয়, আগামী বছর শিলিগুড়িতে বাংলাদেশ চলচ্চিত্র উৎসবের আয়োজনও করতে চান বলে জানিয়েছেন। এ বিষয়ে স্থানীয় বাসিন্দা এবং শিলিগুড়ি সিনে সোসাইটির সহযোগিতাও প্রার্থনা করেন তিনি। তাঁর এই মন্তব্যের সঙ্গে সঙ্গেই সোসাইটির তরফে সঞ্জীবন দত্তরায় এবং
প্রদীপ নাগ সবরকম সহযোগিতা করবেন বলেও জানিয়ে দেন।

মোফাকখারুল সাহেব বলেন, ‘দীর্ঘদিন এ রাজ্যে থাকার সুবাদে অনেক জায়গায় ঘোরা হয়েছে। তবে শিলিগুড়িতে এসে অনেকটাই ঘরের কাছাকাছি বলে মনে হচ্ছে। এই শহরের প্রেমে পড়ে গিয়েছি। তার একটা কারণ যদি হয় মানুষের সঙ্গে সহজ-সরল মেলামেশা, তবে আরও একটা মূল কারণ হল ওপার বাংলার মানুষের সঙ্গে এখানকার মানুষের ভাষাগত মিস। যা চট করে ওপার বাংলার মানুষকে মিশে যেতে সাহায্য করে। তাই শুধুমাত্র শিলিগুড়িতে আলাদাভাবে বাংলাদেশ চলচ্চিত্র উৎসব করতে চাইছি আমরা।’

[আরও পড়ুন: ‘দিদিকে বলো’র প্রচারে ধান বুনলেন বিধায়ক, পান্তা দিয়েই সারলেন মধ্যাহ্নভোজ]

এপ্রসঙ্গে তিনি জানান, শনিবার বাংলাদেশের প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার জীবন অবলম্বনে তৈরি তথ্যচিত্রের প্রিমিয়ারের মধ্যে বাংলাদেশের সঙ্গে শিলিগুড়ির পথ চলা শুরু হল। এরপর ২০২০ সালের ২১ ফেব্রুয়ারি শিলিগুড়ির বাঘাযতীন পার্কে শহিদ স্মৃতিস্তম্ভ চত্বরে আন্তর্জাতিক মাতৃভাষা দিবস পালন করা হবে। তাঁদের নির্বাচিত অনুষ্ঠানসূচি অনুযায়ী বিভিন্ন সাংস্কৃতিক অনুষ্ঠান পরিবেশন করবেন শিলিগুড়ির স্থানীয় শিল্পীরা। এভাবেই গোটা অনুষ্ঠানটি পরিকল্পনা করা হয়েছে। তবে শিলিগুড়ির পাশাপাশি কলকাতাতেও অনুষ্ঠান হবে। সেই সঙ্গে অনুষ্ঠান করা হবে শান্তিনিকেতন, মুম্বই, দিল্লি, গুয়াহাটি এবং আগরতলায়। তবে গুয়াহাটির বদলে অনুষ্ঠানটি শিলচরে করা হতে পারে বলেও জানিয়েছেন ডঃ মহম্মদ মোফাকখারুল ইকবাল।

আরও পড়ুন

আরও পড়ুন

ট্রেন্ডিং