BREAKING NEWS

১২ আশ্বিন  ১৪২৭  মঙ্গলবার ২৯ সেপ্টেম্বর ২০২০ 

Advertisement

শহিদদের শ্রদ্ধা জানাতে বর্ধমান থেকে হেঁটে একুশের মঞ্চে ২৫ তৃণমূল কর্মী

Published by: Sangbad Pratidin Digital |    Posted: July 20, 2018 8:49 pm|    Updated: August 21, 2020 12:45 pm

An Images

সৌরভ মাজি, বর্ধমান: উদ্দেশ্য মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের জনসেবামূলক প্রকল্পের প্রচার। সেই লক্ষ্যে এবার পায়ে হেটেই বর্ধমান থেকে ধর্মতলার পথে তৃণমূল সদস্যরা। যদিও, আগত সমর্থকদের দাবি ২১ জুলাই শহিদদের শ্রদ্ধা জানাতেই অভিনব উদ্যোগ নিয়েছেন তারা। পূর্ব বর্ধমান জেলার ২৫ তৃণমূল কর্মী হেঁটে কলকাতার ধর্মতলার শহিদ মঞ্চে যাচ্ছেন। শুক্রবার ভোরে তাঁরা রওনা হন বর্ধমান থেকে। তাঁদের উৎসাহ দিতে সকালে যাত্রায় সূচনায় হাজির হন জেলার কয়েকজন শীর্ষ তৃণমূল নেতাও। তাঁরাও কিছুটা পথ পা মেলান তাঁদের সঙ্গে।

[মঞ্চ ভেঙে পড়বে না তো? মোদির সভায় দুর্ঘটনার জেরে প্রশ্ন ‘সাবধানী’ মমতার]

বর্ধমান-২ ব্লকের বৈকুণ্ঠপুর-২ অঞ্চল তৃণমূল কংগ্রেস এই উদ্যোগ নিয়েছে। এখানকার তৃণমূল নেতৃত্ব প্রথমে ঠিক করেছিলেন ২১ জন হেঁটে শহিদ দিবসের কর্মসূচিতে যোগ দিতে যাবেন। পরে তাঁরা ঠিক করেন যেহেতু এবার ২৫তম শহিদ দিবস, তাই ২৫ জন তৃণমূল কর্মী যাবেন। আগে থেকেই তার প্রস্তুতি নিয়েছিলেন তাঁরা। এদিন সাতসকালে জেলা তৃণমূলের সাধারণ সম্পাদক তথা বর্ধমান পুরসভার চেয়ারম্যান ইন কাউন্সিল খোকন দাস, জেলা পরিষদের পূর্ত কর্মাধ্যক্ষ বাগবুল ইসলাম, যুব তৃণমূল নেতা শৌভিক পান-সহ কয়েকজন নেতাও হাজির হন পদযাত্রার সূচনায়। তাঁরাও ওই ২৫ জন কর্মীর সঙ্গে বেশ কয়েক কিলোমিটার হাঁটেন।

জেলা তৃণমূলের সভাপতি তথা মন্ত্রী স্বপন দেবনাথ জানিয়েছেন, শহিদদের প্রতি শ্রদ্ধা জানাতে খুবই ভাল উদ্যোগ নিয়েছেন এই নেতা-কর্মীরা। তিনি জানিয়েছেন, পূর্ব বর্ধমান জেলা থেকে লক্ষাধিক মানুষ শহিদ দিবসের কর্মসূচিতে যোগ দেবেন। অনেকেই একদিন আগে থেকেই রওনা হয়ে গিয়েছেন মঞ্চের কাছাকাছি থাকার আশায়। অনেকে শনিবার ভোরে রওনা হবেন। স্বপনবাবাবু জানান, পূর্ব বর্ধমান জেলার উপর দিয়েই ২ নম্বর জাতীয় সড়ক ধরে অন্যান্য অনেকগুলি জেলার তৃণমূল নেতাকর্মীরা ধর্মতলার কর্মসূচিতে যোগ দিতে যাবেন। তাঁরা যাতে কোনওভাবে সমস্যায় না পড়েন তার জন্য সতর্ক থাকছে জেলা তৃণমূল।

 

 শুক্রবারও জেলার বিভিন্ন রুটে বাস না থাকায় সমস্যায় পড়েন সাধারণ যাত্রীরা। অভিযোগ, শহিদ দিবসের কর্মসূচিতে যাওয়ার জন্য বিভিন্ন রুটের বাস তুলে নেওয়া হয়েছে তৃণমূলের তরফে। শনিবার এই সমস্যা আরও বাড়ার আশঙ্কা করছেন অনেকে। জেলা তৃণমূল সূত্রে জানা গিয়েছে, সব জনপ্রতিনিধিই নিজের নিজের এলাকা থেকে নির্দিষ্ট সংখ্যক কর্মীদের সঙ্গে নিয়ে যাবেন শহিদ দিবসের কর্মসূচিতে।

Advertisement

Advertisement

Advertisement

Advertisement

Advertisement