৪ আশ্বিন  ১৪২৬  রবিবার ২২ সেপ্টেম্বর ২০১৯ 

Menu Logo পুজো ২০১৯ মহানগর রাজ্য দেশ ওপার বাংলা বিদেশ খেলা বিনোদন লাইফস্টাইল এছাড়াও বাঁকা কথা ফটো গ্যালারি ভিডিও গ্যালারি ই-পেপার

সংবাদ প্রতিদিন ডিজিটাল ডেস্ক: স্বাধীনতা দিবসে মুক্তির পরই দর্শকদের মুখে মুখে ঘুরছে সেক্রেড গেমস টু। প্রথম সিজনের মতোই এবারও দর্শকদের মন জয় করেছেন নওয়াজউদ্দিন সিদ্দিকি থেকে সইফ আলি খান। কিন্তু দিন দুই-চার যেতে না যেতেই বিতর্কের মুখে পড়ল নেটফ্লিক্সের এই ওয়েব সিরিজ। সেক্রেড গেমস ২-এর বেশ কয়েকটি দৃশ্য নিয়ে প্রশ্ন তুলেছেন আকালি দলের সদস্য মজিন্দর সিং সিরশা।

[আরও পড়ুন: ‘পরিবারের শিকড় পেশোয়ারে’, মন্তব্যে নেটিজেনদের রোষের শিকার সোনম]

ছবিতে সইফের চরিত্রের নাম সরতাজ। যিনি শিখ সম্প্রদায়ের ব্যক্তি। পেশায় পুলিশ অফিসার। আর তাঁর একটি দৃশ্য নিয়ে আপত্তি তুলেছেন দিল্লির সাংসদ। একটি দৃশ্যে দেখা যাচ্ছে, হাতের কড়াটি খুলে সমুদ্রে ছুঁড়ে ফেলে দিচ্ছেন সইফ। মজিন্দরের দাবি, কড়া নেহাত একটি গয়না নয়। এটি শিখ সম্প্রদায়ের গর্বের চিহ্ন এবং গুরু সাহিবের আশীর্বাদ। তাই এভাবে কড়া খুলে ছুঁড়ে ফেলা দেখানোর অর্থ শিখ ধর্মাবলম্বীদের ভাবাবেগে আঘাত করা। টুইটারে পরিচালক অনুরাগ কশ্যপের উপর ক্ষোভ উগরে দিয়ে সাংসদ বলেন, “আমি ভেবে পাই না কেন বলিউড লাগাতার ধর্মীয় বিষয়কে অপমান করার চেষ্টা করে। অনুরাগ কশ্যপ জোর করে দৃশ্যটি রেখেছেন। এমন দৃশ্যে কড়ার অসম্মান করা হয়েছে।” ওয়েব সিরিজ থেকে দৃশ্যটি বাদ দেওয়ারও দাবি তোলেন আকালি দলের সদস্য। এমনকী দৃশ্যটি বাদ দেওয়া না হলে এর বিরুদ্ধে আইনি পথে হাঁটারও হুমকি দেন তিনি।

তিনি আরও প্রশ্ন তুলেছেন, “যখন পরিচালক শিখ ধর্ম নিয়ে কোনও পড়াশোনাই করেননি, তখন কেন ওয়েব সিরিজের নায়ককে একজন শিখের চরিত্রে দেখিয়েছেন?” ওয়েব সিরিজের আরও দু’টি দৃশ্যের ভিডিও পোস্ট করেছেন মজিন্দর সিং সিরশা। তাঁর দাবি, একটি দৃশ্যে ভগবানের উপর গড ও আল্লাকে রাখার চেষ্টা করেছেন পরিচালক। আবার অন্যটির মাধ্যমে বোঝাতে চেয়েছেন, এদেশে হিন্দুদের হাতে মুসলিমরা খুন হয়। এভাবে হিংসা ছড়ানোর বিরুদ্ধে কড়া সুর চড়িয়েছেন তিনি। এবার দেখার, তাঁর প্রতিবাদের মুখে কী সিদ্ধান্ত নেয় সেক্রেড গেম ২-এর নির্মাতারা।  

[আরও পড়ুন: জীবনের সবচেয়ে চ্যালেঞ্জিং ভূমিকায় শাহরুখ! প্রোমোয় জানাল নেটফ্লিক্স]

আরও পড়ুন

আরও পড়ুন

ট্রেন্ডিং