×

৪ ফাল্গুন  ১৪২৫  রবিবার ১৭ ফেব্রুয়ারি ২০১৯ 

Menu Logo মহানগর রাজ্য দেশ ওপার বাংলা বিদেশ খেলা বিনোদন লাইফস্টাইল এছাড়াও বাঁকা কথা ফটো গ্যালারি ভিডিও গ্যালারি ই-পেপার

সংবাদ প্রতিদিন ডিজিটাল ডেস্ক: ট্যাটুর সূত্র ধরে রহস্যের কিনারা। শনাক্ত হল মুণ্ডহীন দেহ। সপ্তাহ দুয়েক পর চেন্নাইয়ে স্ত্রীকে খুনের অভিযোগে এক অভিনেত্রীর স্বামীকে গ্রেপ্তার করল পুলিশ। অভিযুক্ত নিজেও সিনেমা জগতেরই লোক। চলচ্চিত্র পরিচালক তিনি।

[ উলটপুরাণ, এবার অভিনেত্রীর বিরুদ্ধে ধর্ষণের অভিযোগ যুবকের]

ঘটনার সূত্রপাত ১৯ জানুয়ারি। সেদিন চেন্নাই শহরের দক্ষিণাঞ্চলের একাধিক আস্তাকুঁড় থেকে প্লাস্টিকে মোড়া মহিলার দেহাংশ উদ্ধার করে পুলিশ। কিন্তু,  মাথাটির সন্ধান না মেলায় প্রাথমিকভাবে মৃতার পরিচয় জানা যায়নি। ফলে তদন্তে নেমেছে কার্যত অন্ধকারেই হাতড়ে বেড়াচ্ছিল পুলিশ। তদন্তকারীরা জানিয়েছেন, দেহাংশ তল্লাশি সময়ে মৃতার হাতে দুটি ট্যাটু দেখতে পাওয়া যায়। একটি হর-পার্বতীর, অন্যটি ড্রাগনের। কাটা হাত থেকে একটি বালাও পাওয়া যায়। সেই সূত্র ধরেই এক ট্যাটু শিল্পীর সন্ধান পায় পুলিশ। জানা যায়,  ওই ট্যাটুটি আঁকা হয়েছিল অভিনেত্রী সন্ধ্যায় পায়ে। তিনি আবার ১৮ জানুয়ারি থেকে নিখোঁজ। তদন্তকারীদের বক্তব্য, সন্ধ্যার পরিচালক স্বামী বালকৃষ্ণণ জানিয়েছিলেন, থুতুকুড়িতে মায়ের কাছে গিয়েছেন অভিনেত্রী। কিন্তু, অভিনেত্রীর মা পুলিশকে জানান, তিনি সেখানে যাননি।  এরপরই স্ত্রীকে খুনের অভিযোগে পরিচালক বালকৃষ্ণণকে গ্রেপ্তার করে পুলিশ। জেরায় তিনি অপরাধ স্বীকার করেছেন বলে জানা গিয়েছে।  মৃতদেহের মাথা-সহ দেহের বাকি অংশ কোথায় রাখা আছে, তা তদন্তকারীদের জানিয়েছেন মৃতার স্বামী। 

জানা গিয়েছে, ২০০০ সালে বয়সে প্রায় ১৪ বছরের ছোট অভিনেত্রী সন্ধ্যার সঙ্গে বিয়ে হয় পরিচালক বালকৃষ্ণণের। প্রথম থেকে  উচ্চাকাঙ্ক্ষী ছিলেন সন্ধ্যা। কিন্তু, বালকৃষ্ণণের পরিচালিত ও প্রযোজিত ছবির সংখ্যা ছিল হাতেগোনা। গত বছর স্বামীর বিরুদ্ধে পারিবারিক হিংসার অভিযোগ করে বাপের বাড়ি চলে যান অভিনেত্রী সন্ধ্যা। পরে অবশ্য তিনি ফিরেও এসেছিলেন। সন্ধ্যার বাপের বাড়ির লোকেদের দাবি, সম্প্রতি একটি ছবি প্রযোজনা ও পরিচালনা করেছেন বালকৃষ্ণণ। আরও একটি ছবি বানানোর জন্য তাঁদের কাছ থেকে মোটা অংকের টাকা চেয়েছিলেন তিনি। 

[ অসুস্থতার জন্য আইসিইউতে যেতে হল সোনু নিগমকে, উদ্বিগ্ন অনুরাগীরা]

আরও পড়ুন

আরও পড়ুন

ট্রেন্ডিং