২৮ আশ্বিন  ১৪২৭  সোমবার ২৬ অক্টোবর ২০২০ 

Advertisement

২ বছর আগেই ধূমপান ছাড়ার চেষ্টা! সুশান্তের নিজের লেখা নোট দেখে হতবাক তদন্তকারীরা

Published by: Sayani Sen |    Posted: September 18, 2020 12:57 pm|    Updated: September 18, 2020 3:23 pm

An Images

সংবাদ প্রতিদিন ডিজিটাল ডেস্ক: সুশান্ত সিং রাজপুতের (Sushant Singh Rajput) ব্যক্তিগত নানা ‘নোটস’ (Hand written notes) ফাঁস হল বৃহস্পতিবার। লোনাভলায় তাঁর ফার্মহাউস থেকে তা পাওয়া গিয়েছে। তাতে নানা বিষয় নিয়ে নিজস্ব মতামত লিখেছিলেন তরুণ অভিনেতা।

কী রয়েছে সুশান্তের নোটসে? ২০১৮ সালের ২৭ এপ্রিল সুশান্ত তাঁর দৈনিক রুটিন লিখে রেখেছিলেন। রাত আড়াইটেয় ঘুম থেকে উঠতেন সুশান্ত। চা খেয়ে স্নান করতেন। তারপর আকাশের তারা দেখতেন অভিনেতা। বেদমন্ত্র জপ করতেন। লিস্টে ‘নো স্মোকিং’ লিখে তাতে টিক দিয়েছেন সুশান্ত। যা দেখে মনে করা যায়, ধূমপান ছাড়তে চাইছিলেন তিনি। এবং অন্তত একদিনের জন্য হলেও ধূমপান করেননি। একই নোটে সুশান্ত লিখেছেন, পরেরদিন তাঁকে ‘কেদারনাথ’ ফিল্মের চিত্রনাট্য পড়তে হবে। সময় কাটাতে হবে কৃতির সঙ্গে। মনে করা হচ্ছে এই কৃতি হচ্ছেন বলিউড অভিনেত্রী কৃতি স্যানন (Kriti Sanon), যাঁর সঙ্গে সুশান্তের সম্পর্ক নিয়ে সেই সময় গুজব ছড়িয়েছিল। ২০১৯ সালে রিয়া চক্রবর্তীর সঙ্গে দেখা হয় সুশান্তের।

আরেকটা নোটে নানা অলীক চিন্তার কথা লিখেছেন অভিনেতা। ‘সঠিক উত্তর বলে কিছু হয় না। হয়, আরও ভাল প্রশ্ন।’ ‘সুখ কেন?’ ‘সমস্যার সমাধান কী করে হবে?’ ইত্যাদি মন্তব্য রয়েছে সেই নোটে। আরেকটা নোটে কবির, রুমিদের উক্তি লিখে রেখেছিলেন সুশান্ত। কবিরের উক্তি-যখন আমি ছিলাম, ঈশ্বর ছিলেন না। এখন ঈশ্বর আছেন, আমি নেই। রুমির বিখ্যাত উক্তি-তুমি যাকে খুঁজছ, সে তোমাকে খুঁজছে। তৃতীয় নয়ন, কৈলাস, সোমরস, তপস্যা, যোগ, নাসা ইত্যাদি নিয়েও নিজের মতামত লিখে রেখেছিলেন সুশান্ত।

[আরও পড়ুন: সুশান্ত মামলায় নয়া মোড়! মাদক-সহ হিমাচল থেকে গ্রেপ্তার যুবক, যোগাযোগ ছিল রিয়ার সঙ্গে]

এদিকে, প্রয়াত অভিনেতা নিয়ে বর্ণবিদ্বেষী মন্তব্য করে বিতর্কে জড়ালেন রাষ্ট্রীয় জনতা দলের নেতা অরুণ যাদব (Arun Yadav)। তিনি বলেন, সুশান্ত কিছুতেই রাজপুত হতে পারেন না। কারণ রাজপুত বংশোদ্ভূতরা আত্মহত্যা করে না। অন্যদিকে, ভাইয়ের মৃত্যুশোক কমাতে সোশ্যাল মিডিয়া থেকে ‘ব্রেক’ নিলেন সুশান্তের বোন শ্বেতা সিং কীর্তি। রিয়া চক্রবর্তীর বয়ানের ভিত্তিতে মাদকসেবনের সঙ্গে নাম জড়িয়েছে সারা আলি খান (Sara Ali Khan) এবং রাকুলপ্রীত সিংয়ের। দুই অভিনেত্রীর মধ্যে রাকুল এ নিয়ে আদালতের কাছে আবেদন করেছিলেন। তাঁর পিটিশনে দাবি করেছিলেন, এ ধরনের মিডিয়া রিপোর্ট দেশের তথ্য ও সম্প্রসার আইনের বিরোধী। দিল্লি হাই কোর্টের বিচারক রায় দিয়েছেন, মিডিয়াকে এ ব্যাপারে নিয়ন্ত্রণ রাখতে হবে। “তদন্তকারী অফিসারদের আগে মিডিয়ার কাছে তথ্য পৌঁছে যাচ্ছে। মানুষের ভাবমূর্তি নষ্ট হচ্ছে। এটাকে নিয়ন্ত্রণ করা উচিত,” বলেছেন তিনি।

[আরও পড়ুন: ফ্যাশন ডিজাইনার শর্বরী দত্তের প্রয়াণে শোকপ্রকাশ টলিউড তারকাদের, আজ ময়নাতদন্ত]

Advertisement

Advertisement

Advertisement

Advertisement

Advertisement