BREAKING NEWS

২ আশ্বিন  ১৪২৭  শনিবার ১৯ সেপ্টেম্বর ২০২০ 

Advertisement

স্বপ্ন ও বাস্তবের সন্ধিক্ষণের কাহিনি বলে শর্ট ফিল্ম ‘প্রমিথিউস’

Published by: Suparna Majumder |    Posted: August 12, 2020 8:26 pm|    Updated: August 12, 2020 9:00 pm

An Images

সংবাদ প্রতিদিন ডিজিটাল ডেস্ক: বহমান জীবনের স্বপ্ন অনেক থাকে মনের আনাচ-কানাচে। কখনও তা জলের মতো বয়ে যেতে চায়, আবার কখনও আগুনের মতো জ্বলে উঠতে চায় নিরাশার খড়কুটোকে জ্বালিয়ে। প্রতিবার বাস্তবের খাঁচা ভেঙে উড়ে যেতে চায় স্বপ্নের আকাশে। এমনই স্বপ্নের কাহিনি নিজের শর্ট ফিল্মে তুলে ধরেছেন পরিচালক সৌভিক গঙ্গোপাধ্যায়। নাম রেখেছেন ‘প্রমিথিউস’। 

[আরও পড়ুন: হলিউড তারকাদের টেক্কা দিয়ে বিশ্বের সবচেয়ে বেশি রোজগেরেদের তালিকার প্রথম দশে অক্ষয়]

১১ মিনিট ৫ সেকেন্ডের শর্ট ফিল্মটি তৈরি হয়েছে ‘সিনে পাগলস’ ও ‘ইলিউশন’-এর সহযোগিতায়। অভিনয় করেছেন সবুজ বর্ধন ও শুভজিৎ দাস। ছবির সামান্য ঝলক প্রকাশ্যে এসেছে। যেখানে রয়েছে একটি মাত্র চরিত্র। আর রয়েছে তাঁর অন্তরের সত্ত্বা। স্বপ্ন ও বাস্তবের সন্ধিক্ষণে মানুষ নিজেকে খুঁজতে চায়। সেই খোঁজেই তাঁর অন্দর থেকে বেরিয়ে আসে নতুন এক সত্ত্বা। এই সত্ত্বাকেই ‘প্রমিথিউস’-এর মাধ্যমে তুলে ধরেছেন সৌভিক। জানিয়েছেন কীভাবে মানুষের জীবনের প্রতিটা পদক্ষেপে সাফল্য-ব্যর্থতা, প্রেম-অপ্রেম, আশা-নিরাশা, প্রত্যাশার মাঝে এই সত্ত্বা বয়ে চলে নদীর দুই কূলের মতো। যারা একসঙ্গে না থাকতে পারলেও প্রতিটা পদক্ষেপে পাশে পাশে বয়ে চলে। নিজের শর্ট ফিল্মের মাধ্যমে মানুষের রাজনৈতিক আশা-আকাঙ্খা বিকাশের পথও দেখিয়েছেন সৌভিক। দেখিয়েছেন জীবনের গতানুগতিকতা।

[আরও পড়ুন: ‘খলনায়ক’ ক্যানসার কেড়েছে সঞ্জয় দত্তের প্রিয়জনকেও, উদ্বিগ্ন অনুরাগীরা]

স্বল্প দৈর্ঘ্যের এই ছবির ক্যামেরার দায়িত্ব সামলেছেন স্বাগতম করাতি ও উদয়ন মজুমদার। সম্পাদনা করেছেন অর্প বৈদ্য। ছবিটি দেখার জন্য কোনও চলচ্চিত্র উৎসব বা প্রদর্শনীর অপেক্ষা করার প্রয়োজন নেই। বাড়িতে বসেই এই ছবিটি দেখার সুযোগ পেয়ে যাবে নিউ নর্মালের অবসরে। মাই সিনেমা হল অ্যাপ থেকে টিকিট কেটে ১১ মিনিট ৫ সেকেন্ডের শর্ট ফিল্মটি দেখার সুযোগ পাবেন আপনি। মাত্র ৩০ টাকার বিনিময়েই নিজের কল্পনার আকাশে ডানা মেলার সুযোগ পাবেন ‘প্রমিথিউস’-এর হাত ধরে। স্বাধীনতা দিবসের ঠিক আগে অর্থাৎ আগামী ১৪ আগস্ট টিকিট কেটে ‘প্রমিথিউস’ দেখতে পারেন আপনি। পরিবর্তিত পরিস্থিতিতে জীবনকে এক অন্য চোখে দেখার সুযোগ নিতেই পারেন সামান্য খরচের বিনিময়ে।

Advertisement

Advertisement

Advertisement

Advertisement

Advertisement