২৬ কার্তিক  ১৪২৬  বুধবার ১৩ নভেম্বর ২০১৯ 

Menu Logo মহানগর রাজ্য দেশ ওপার বাংলা বিদেশ খেলা বিনোদন লাইফস্টাইল এছাড়াও বাঁকা কথা ফটো গ্যালারি ভিডিও গ্যালারি ই-পেপার

সংবাদ প্রতিদিন ডিজিটাল ডেস্ক: করিশ্মা-করিনার ব্যক্তিগত জীবন নিয়ে অনুরাগীদের উৎসাহের অন্ত নেই। দুই বোন বাড়িতে কেমন থাকেন, তাঁদের ছোটবেলা কীভাবে কেটেছিল, তা নিয়ে আগ্রহ অসীম। আর হবে নাই বা কেন? বিখ্যাত কাপুর খানদানে যাঁদের জন্ম, যাঁর বাবা ও মা, দু’জনেই তারকা, তাঁদের ছোটবেলা নিয়ে উৎসাহ তো থাকবেই। তবে সম্প্রতি করিশ্মা একটি সাক্ষাৎকারে যা বলেছেন, তাতে কৌতূহল অল্প হলেও মিটবে।

একটি সাক্ষাৎকারে করিশ্মা বলেছেন, সেলিব্রিটিদের কন্যা হলেও তিনি ও তাঁর বোন, দু’জনেই খুব সাধারণভাবেই মানুষ হয়েছেন। এর পিছনে মা ববিতা কাপুরেরই অবদান রয়েছে বলে জানান করিশ্মা। বলেন, কাপুর পরিবারের মেয়ে হয়েও তাঁকে ও করিনাকে বাসে বা লোকাল ট্রেনে টেপেই স্কুলে যেতে হত। গাড়ি নেওয়া ছিল কঠোরভাবে নিষিদ্ধ। এমনকী বড় হওয়ার পরও ববিতার প্রভাব ছিল তাঁর উপর। যতক্ষণ না তিনি বলতেন, করিশ্মা কোনও চরিত্র হাতে নিতেন না। মায়ের সবুজ সংকেতের পরই ছবিতে সই করতেন।

[ আরও পড়ুন: স্বামীর হাতে জল খেয়ে করবা চৌথের উপোস ভাঙলেন নুসরত ]

তবে এ থেকে যদি কেউ করিশ্মার সমালোচনা করেন, তাহলে ভুল হবে। অভিনেত্রী জানিয়েছেন, ১৯৯৪ সালে একটি গান খুব হিট করেছিল। ‘সেক্সি, সেক্সি সেক্সি মুঝে লোক বোলে’। ওই গানটির জন্য তাঁর প্রবল নিন্দা করা হয়েছিল। কাপুর পরিবারের মেয়ে এমন একটি গানে নাচ করছেন দেখে অনেকেই সেদিন করিশ্মার সমালোচনা করেছিলেন। তখন কিন্তু মা ববিতাই তাঁর পাশে দাঁড়িয়েছিলেন। তিনি স্পষ্ট ভাষায় করিশ্মাকে জানিয়ে দিয়েছিলেন, একজন অভিনেত্রীর কাজ হল বিনোদন। তাই অভিনয় করতে গেলে সমালোচনা হবেই। এসব গায়ে মাখলে চলবে না। সব ঝেড়ে ফেলে এগিয়ে যেতে হবে।

সাক্ষাৎকারে রাজ কাপুরকে নিয়েও অনেক কথা বলেন করিশ্মা কাপুর। জানান, ছোটবেলা তিনি দাদুর খুব ঘনিষ্ঠ ছিলেন। দাদুর সঙ্গে শুটিং সেটে যেতেন। ‘রাম তেরি গঙ্গা ময়লি’র সেটে গিয়েই লাইট-ক্যামেরা-অ্যাকশনের দিকে ঝোঁক যায় করিশ্মার। তখন থেকেই অভিনেত্রী হওয়ার সাধ জাগে। ঠিক করেন, বড় হয়ে অভিনেত্রীই হবেন।

[ আরও পড়ুন: রোম্যান্টিক করবা চৌথ পালন অনুষ্কা-প্রিয়াঙ্কার, অন্যভাবে উদযাপন করলেন আয়ুষ্মান ঘরনি ]

আরও পড়ুন

আরও পড়ুন

ট্রেন্ডিং