৩২ শ্রাবণ  ১৪২৬  রবিবার ১৮ আগস্ট ২০১৯ 

BREAKING NEWS

Menu Logo মহানগর রাজ্য দেশ ওপার বাংলা বিদেশ খেলা বিনোদন লাইফস্টাইল এছাড়াও বাঁকা কথা ফটো গ্যালারি ভিডিও গ্যালারি ই-পেপার

৩২ শ্রাবণ  ১৪২৬  রবিবার ১৮ আগস্ট ২০১৯ 

BREAKING NEWS

সংবাদ প্রতিদিন ডিজিটাল ডেস্ক: জোর করে ‘জয় শ্রীরাম’ বলানোই এখন রাজনৈতিক ট্রেন্ড হয়ে দাঁড়িয়েছে৷ এই ধ্বনিতেই সরগরম রাজনীতির আঙিনা৷ রাজনীতির পরিমণ্ডল ছাড়িয়ে ইদের শুভেচ্ছা বিনিময়েরও নাকি ভাষা হয়ে দাঁড়িয়েছে ‘জয় শ্রীরাম’৷ এমনই অভিযোগে সরব বসিরহাটের তারকা সাংসদ নুসরত জাহান৷ যদিও যাঁরা ইদের শুভেচ্ছা জানাতে গিয়ে ‘জয় শ্রীরাম’ লেখা মেসেজ পাঠিয়েছেন তাঁদের কোনও উত্তর দেননি অভিনেত্রী৷

[ আরও পড়ুন: যুদ্ধের অবসান, সমুদ্রের সঙ্গে লড়াই শেষে দেশে ফিরলেন ‘মৃত্যুঞ্জয়ী’ রবীন্দ্রনাথ]

সম্প্রতি এক সংবাদমাধ্যমের মুখোমুখি হয়ে ‘জয় শ্রীরাম’ শুভেচ্ছার পালটা জবাব দিলেন তৃণমূল সাংসদ৷ নুসরত বলেন, ‘‘ঈশ্বরের নাম বলায় কোনও সমস্যা নেই। কিন্তু কাউকে বলতে বাধ্য করায় সমস্যা রয়েছে। ইদে আমাকেও প্রায় হাজারজন ইদ মোবারক না বলে ‘জয় শ্রীরাম’ লিখে পাঠিয়েছেন। তবে আমি কোনও উত্তর দিইনি।’’

অভিনয় জগতে নিজের দক্ষতায় দিব্যি আসর জমিয়ে নিয়েছিলেন নুসরত জাহান৷ তবে তার মাঝেই পা রাখেন রাজনীতির আঙিনায়৷ লোকসভা নির্বাচনে বসিরহাট থেকে প্রতিনিধিত্ব করেন নুসরত৷ বর্তমানে তিনি সাংসদ৷ তবে তা সত্ত্বেও বিতর্ক যেন পিছু ছাড়ছে না তাঁর৷ কখনও অদক্ষ রাজনীতিক আবার কখনও ব্যক্তিগত আক্রমণের মুখোমুখি হতে হয়েছেন নুসরত৷ মুসলমান পরিবারের সন্তান হওয়া সত্ত্বেও কীভাবে বিয়ের পর মঙ্গলসূত্র, চূড়া, সিঁদুর পরেন সেই প্রশ্ন তুলতে ছাড়েননি সমালোচকরা৷ এই প্রসঙ্গে নিন্দুকদের জবাব দিয়েছেন তারকা সাংসদ৷ তিনি বলেন, ‘‘যখন পোশাক নিয়ে বিতর্ক হয়েছিল আমি কোনওরকম উত্তর দিইনি। আমার অনুগামীরা সোশ্যাল মিডিয়ায় আমার জন্য লড়াই করেছেন। সংসদে আমার সহকর্মীরাও আমার পাশে থেকেছেন। কিন্তু সবার মনে রাখা উচিত একজন সাংসদের সঙ্গে আমি একজন মানুষও। কী পরব, কাকে বিয়ে করব তা নিয়ে আমার নিজের পছন্দ রয়েছে।’’

[ আরও পড়ুন: ‘জয় শ্রীরাম’ বলায় শ্রাদ্ধানুষ্ঠানে হামলার অভিযোগ, উধাও লক্ষাধিক টাকা]

এত সমালোচনার পরেও রাজনীতির ময়দানে কেমন লাগছে নব্য সাংসদের? বেশ উচ্ছ্বাসের সুরে তারকা সাংসদ বলেন, ‘‘কখনও কখনও মনে হয় আমার রাজনীতিক হওয়ারই কথা ছিল। প্রথম দিন সংসদে গিয়ে দারুণ অনুভূতি হচ্ছিল। নতুন সদস্য হওয়ায় সবাই খুব সাহায্যও করেছেন। মুখ্যমন্ত্রী আমার উপর বিশ্বাস রেখেছেন। এটা অনেক বড় দায়িত্ব। আমি এখনও শিখছি ও লক্ষ্য রাখছি।’’

আরও পড়ুন

আরও পড়ুন

ট্রেন্ডিং