৯ মাঘ  ১৪২৬  বৃহস্পতিবার ২৩ জানুয়ারি ২০২০ 

Menu Logo মহানগর রাজ্য দেশ ওপার বাংলা বিদেশ খেলা বিনোদন লাইফস্টাইল এছাড়াও বাঁকা কথা ফটো গ্যালারি ভিডিও গ্যালারি ই-পেপার

সংবাদ প্রতিদিন ডিজিটাল ডেস্ক: স্ত্রী’কে ‘সিমরন’ বলে সম্বোধন করলেন সৃজিত। অ্যাঁ, সে কী? প্রথমটায় এমন প্রশ্নই তুলেছিলেন নেটিজনরা। পরে পরিষ্কার হল সে কারণ, কেন স্ত্রী মিথিলাকে ‘সিমরন’ বলে ডাকলেন স্বামী সৃজিত।

গত শুক্রবারই সাত পাঁকে বাধা পড়েছেন পরিচালক সৃজিত মুখোপাধ্যায়। পাত্রী পদ্মাপারের অভিনেত্রী মিথিলা রফিয়াৎ রশিদ। ৬ ডিসেম্বর গোধূলি লগ্নে দক্ষিণ কলকাতার এক ফ্ল্যাটে ‘গুমনামী’ ব‌্যাচেলর অনেক হৃদয় ভেঙে রেজিস্ট্রি সেরেছিলেন বাংলাদেশের অভিনেত্রী তথা বিআরএসি’র উচ্চপদস্থ আধিকারিক মিথিলার সঙ্গে। তখনই শোনা গিয়েছিল যে মধুচন্দ্রিমার জন্য জেনিভা পাড়ি দিচ্ছেন টলিউডের নবদম্পতি। কথা ছিল, ৭ ডিসেম্বর অর্থাৎ শনিবারই আকাশপথে সে মুলুকের উদ্দেশে রওনা হবেন। করলেনও তাই। তবে হানিমুনের পাশাপাশি যে সৃজিত-মিথিলার ‘জেনিভা জার্নি’র নেপথ্যে আরও এক কারণ ছিল, তা বোধহয় বিশেষ কারও জানা ছিল না।

শনিবার তাই সাত সকালেই সুইৎজারল্যান্ডের উদ্দেশে রওনা হয়েছেন সৃজিত-মিথিলা। উদ্দেশ্য, রোম্যান্টিক সুইৎজারল্যান্ডে মধুচন্দ্রিমার পাশাপাশি আরও এক ‘ব্যক্তিগত’ কাজ। তা কী সেই ‘ব্যক্তিগত’ কাজ? জেনিভার এক জনপ্রিয় বিশ্ববিদ্যালয়ে নবপরিণীতা মিথিলা আদতে পিএইচডি’র জন্য আবেদন করবেন। আর ঠিক তাই হানিমুনের জন্য বরফ-নীল তুষারাবৃত আল্পসের দেশকেই বেছে নিয়েছেন তাঁরা। ‘রথ দেখা কলা বেঁচা’ দুই-ই হবে। গতকাল অর্থাৎ সোমবার সৃজিত মুখোপাধ্যায় নিজে সোশ্যাল মিডিয়ায় ছবি শেয়ার করে জানান দিলেন। নেটিজেনরা তকমা সেঁটেছেন, ‘স্মার্ট দম্পতি’!

রূপে নয়, গুণেই ‘মিসেস মুখুজ্জ্যে’র তকমা পেয়েছেন মিথিলা। অভিনয়ের পাশাপাশি পড়াশোনাতেও তুখোড় সৃজিত-পত্নী। ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয় থেকে রাষ্ট্রবিজ্ঞানে স্নাতক ও স্নাতকোত্তর পাশ করেছেন। শুধু তাই নয়, ব্রাক ইউনিভার্সিটি থেকে আর্লি চাইল্ডহুড ডেভেলপমেন্ট নিয়েও দ্বিতীয় স্নাতকোত্তর ডিগ্রিতে পেয়েছেন স্বর্ণপদক। সেখানে পড়ার পর ব্রাক ইউনিভার্সিটিতেই গবেষণা করতেন। বর্তমানে সেই বিশ্ববিদ্যালয়েই আর্লি চাইল্ডহুড ডেভেলপমেন্টের প্রধান মিথিলা রফিয়াৎ রশিদ। এবার চললেন দ্বিতীয় গবেষণার কাজে।

তবে ছবির পাশাপাশি, নজর কেড়েছে ক্যাপশন। রসিকতা করে খানিক ফিল্মি কায়দায় স্ত্রী’র উদ্দেশে সৃজিত লিখেছেন, “যা সিমরন, করলে আপনি পিএইচডি”। পরিচালক বলে কথা, তার কাজেকর্মে ফিল্মি কায়দা যে থাকবেই, সেটাই তো স্বাভাবিক। সৃজিত ঘনিষ্ঠ তথা নেটিজেনরাও মজেছেন ‘মুখুজ্জ্যেবাবু’র এহেন রসিকতায়। “যা সিমরন, জি লে আপনি জিন্দেগি”- শাহরুখ-কাজল অভিনীত এখনও অবধি সর্বকালের সেরা ছবি ‘দিল ওয়ালে দুলহানিয়া লে জায়েঙ্গে’র সেই বিখ্যাত সংলাপ, মনে নেই এরকম সিনেদর্শক হয়তো খুঁজে পাওয়া দায়। বক্তা অমরেশ পুরী। নববধূকে তাঁর পিএইচডি’র জন্য শুভেচ্ছা জানাতে সৃজিত সেই সংলাপই আউরালেন। তবে নিজস্ব ভঙ্গীতে।

[আরও পড়ুন: পদ্মাপারের প্রেমিকা মিথিলার সঙ্গে সাত পাকে বাঁধা পড়লেন সৃজিত, দেখুন এক্সক্লুসিভ ছবি ]

আরও পড়ুন

আরও পড়ুন

ট্রেন্ডিং