BREAKING NEWS

৬ মাঘ  ১৪২৮  বৃহস্পতিবার ২০ জানুয়ারি ২০২২ 

READ IN APP

Advertisement

কেন্দ্রের নয়া উপহার, ২ লক্ষ অঙ্গনওয়াড়ি কর্মীকে স্মার্টফোন ও ট্যাবলেট প্রদান

Published by: Subhajit Mandal |    Posted: August 4, 2018 4:11 pm|    Updated: August 4, 2018 8:51 pm

2 Lakh Smartphones  For Anganwadi workers To Monitor Nutrition Levels

সংবাদ প্রতিদিন ডিজিটাল ডেস্ক: লোকসভা ভোটের আগে অঙ্গনওয়াড়ি কর্মীদের নয়া উপহার দেওয়ার পরিকল্পনা কেন্দ্রের। দেশের প্রায় ২ লক্ষ অঙ্গনওয়াড়ি কর্মীদের স্মার্টফোন এবং ট্যাবলেট উপহার দিতে চলেছে কেন্দ্রীয় সরকার। কেন্দ্রের তরফে বলা হচ্ছে, অঙ্গনওয়াড়ি কর্মীরা যাতে শিশুদের উপযুক্ত পুষ্টির দিকে নজর রাখতে পারে তাই প্রযুক্তিগত সুবিধার জন্য এই স্মার্টফোন দেওয়া হচ্ছে। কেন্দ্রীয় সরকারের পুষ্টি অভিযানের অধীনে এই স্মার্টফোনগুলি তৈরি করা হচ্ছে।

[ছেলের হাতে দলের ব্যাটন ছেড়ে ওয়ার্কিং কমিটির বৈঠক এড়ালেন সনিয়া]

আপাতত ৮টি রাজ্যের অঙ্গনওয়াড়ি কর্মীরা স্মার্টফোন পাবেন। কেন্দ্রের করা তালিকাতে স্থান পেয়েছে অন্ধ্রপ্রদেশ, বিহার, ছত্তিশগড়, ঝাড়খণ্ড, মধ্যপ্রদেশ, পুদুচেরি, রাজস্থান, এবং কেন্দ্রশাসিত অঞ্চলের মধ্যে দাদরা ও নগর হাভেলির অঙ্গনওয়াড়ি কর্মীরা এই উপহার পাবেন। তবে, এই রাজ্যগুলির সব কর্মীরা পাচ্ছে না স্মার্টফোন। কারণ যে রাজ্যগুলিকে বেছে নেওয়া হয়েছে সেই আটটি রাজ্যে মোট অঙ্গনওয়াড়ি কর্মীর সংখ্যা ৬ লক্ষ। ৬ লক্ষের মধ্যে বেছে বেছে ২ লক্ষ কর্মীকে দেওয়া হবে স্মার্টফোন। প্রাথমিক পর্যায়ে যে আটটি রাজ্যকে তালিকাভুক্ত করা হয়েছে তার মধ্যে এরাজ্যের নাম নেই। উল্লেখযোগ্যভাবে, এবছর যে তিনটি বড় রাজ্যে নির্বাচন আছে সেই তিনটি বড় রাজ্য অর্থাত মধ্যপ্রদেশ, রাজস্থান এবং ছত্তিশগড়ের নাম রয়েছে তালিকায়।

[স্কুলে ভাড়া খাটছে এলাকার একমাত্র অ্যাম্বুল্যান্স, চরম দুর্ভোগে বাসিন্দারা]

কেন্দ্রের তরফে জানানো হয়েছে, ২০২০ সালের মধ্যে গোটা দেশের সব অঙ্গনওয়াড়ি কর্মীকেই স্মার্টফোন দেওয়া হবে। সেজন্য মোট ১১ লক্ষ স্মার্টফোন তৈরির পরিকল্পনা করা হয়েছে। পুষ্টি অভিযানের লক্ষ্য শিশুদের সম্পর্কে নির্দিষ্ট তথ্য সংগ্রহ করে অপুষ্টিজনিত রোগের পরিমাণ কমানো। অ্যানিমিয়া, ওজন কম হওয়ার মতো সমস্যাও কমানো যাবে বলে মনে করছে কেন্দ্রীয় নারী এবং শিশুকল্যাণ মন্ত্রক। কেন্দ্রের আশা ২০২২ সালের মধ্যে প্রযুক্তির সাহায্য পেলে অপুষ্টিজনিত রোগের পরিমাণ ৩৮.৪ শতাংশ থেকে কমিয়ে ২৫ শতাংশে আনা যাবে। বিরোধীরা অবশ্য বলছে, ভোটের আগে অঙ্গনওয়াড়ি কর্মীদের মন পেতেই এই উদ্যোগ। কারণ ইতিমধ্যেই মহারাষ্ট্র, উত্তরপ্রদেশের মতো জায়গায় অঙ্গনওয়াড়ি কর্মীরা বিক্ষোভ দেখিয়েছেন।   

Sangbad Pratidin News App: খবরের টাটকা আপডেট পেতে ডাউনলোড করুন সংবাদ প্রতিদিন অ্যাপ
নিয়মিত খবরে থাকতে লাইক করুন ফেসবুকে ও ফলো করুন টুইটারে