BREAKING NEWS

৬ মাঘ  ১৪২৭  বুধবার ২০ জানুয়ারি ২০২১ 

READ IN APP

Advertisement

স্বেচ্ছা সহবাস প্রাপ্তবয়স্ক নারীর অধিকার, ‘লাভ জেহাদ’ বিতর্কের মাঝে গুরুত্বপূর্ণ রায় আদালতের

Published by: Sucheta Sengupta |    Posted: November 26, 2020 2:55 pm|    Updated: November 26, 2020 8:47 pm

An Images

সংবাদ প্রতিদিন ডিজিটাল ডেস্ক: এলাহাবাদ হাই কোর্টের পর দিল্লি হাই কোর্ট (Delhi High Court)। বিতর্কিত ‘লাভ জেহাদ’ (Love Jihad) ইস্যু নিয়ে তপ্ত পরিস্থিতির মধ্যে তাৎপর্যপূর্ণ রায় দিল দিল্লির উচ্চ আদালত। মেয়েকে অপহরণ করে জোর করে বিয়ে করেছে যুবক, এক পরিবারের এই অভিযোগ সংক্রান্ত মামলার শুনানিতে দিল্লি হাই কোর্টের বিচারপতিরা সাফ জানালেন, প্রাপ্তবয়স্ক মেয়ে স্বেচ্ছায় যাঁর সঙ্গে খুশি সহবাস করতে পারে, পরিবারের জোর করার জায়গা নেই। আদালতের তরফে পুলিশকে ওই বিবাহিত দম্পতির নিরাপত্তার সবরকম ব্যবস্থা করার নির্দেশ দেওয়া হয়েছে।

গত সপ্তাহেই হিন্দু যুবতী প্রিয়াঙ্কা এবং মুসলিম যুবক সালামতের বিয়েকে ‘লাভ জেহাদে’র তকমা দেওয়া এক মামলা শুনানিতে এলাহাবাদ হাই কোর্টের (Allahabad High Court) বিচারপতিরা জানিয়েছিলেন, দু’জন মানুষের অধিকার আছে পরস্পরকে নিজেদের জীবনসঙ্গী হিসেবে নির্বাচন করা। ওটা ব্যক্তিগত সম্পর্ক, তাতে কোনওভাবেই হস্তক্ষেপ করবে না আদালত। মধ্যপ্রদেশ, উত্তরপ্রদেশ-সহ একাধিক বিজেপি শাসিত রাজ্য, যেখানে ভিন্নধর্মে বিবাহকে ‘লাভ জেহাদ’ বলে চিহ্নিত করে রীতিমতো আইন পাশ করিয়ে তা রুখতে উদ্যোগী, সেখানে এলাহাবাদ হাই কোর্ট এবং দিল্লি হাই কোর্টের দুই রায় গুরুত্বপূর্ণ তো বটেই, পরবর্তী সময়ে তা দৃষ্টান্ত হিসেবেও তুলে ধরা হতে পারে বলে মত আইনজ্ঞ মহলের একাংশের।

[আরও পড়ুন: ‘মন্দিরে চুমুর দৃশ্যে ধর্মীয় ভাবাবেগে আঘাত! তাহলে খাজুরাহো কী?’ বিজেপিকে খোঁচা মহুয়ার]

বৃহস্পতিবারের মামলায় এক তরুণীর পরিবার অভিযোগ জানিয়েছিল, সেপ্টেম্বরে তাঁদের বছর কুড়ির মেয়েকে অপহরণ করে জোর করে বিয়ে করেছে বাবলু নামে এক যুবক। মেয়েটির খোঁজ মিলছিল না। তবে আদালতের নির্দেশে এদিনের শুনানিতে মেয়েটিকে ভিডিও কনফারেন্সের মাধ্যমে হাজির করানো হয়। বিচারপতি বিপিন সাংভি এবং বিচারপতি রজনীশ ভাটনগরের এজলাসে সে জবানবন্দি দেয় যে একেবারেই স্বেচ্ছায় সে বাবলুর সঙ্গে চলে গিয়েছিল এবং বিয়ে করেছে। পরিবারের লোকের আপত্তি অগ্রাহ্য করেই সে এই কাজ করেছে।

[আরও পড়ুন: মধ্যপ্রদেশে ‘লাভ জেহাদ’ রুখতে বাড়ানো হচ্ছে শাস্তির মেয়াদ, হুঁশিয়ারি মুখ্যমন্ত্রী শিবরাজের]

এরপরই বিচারকরা অভিভাবকদের জানান যে মেয়ে-জামাইয়ের উপর কোনওরকম জোরজবরদস্তি চলবে না। পুলিশকেও নির্দেশ দেওয়া হয় যাতে ওই দম্পতির নিরাপত্তা কোনওভাবেই বিঘ্নিত না হয়, তা দেখতে হবে। আইনজীবী মহলের একাংশের মত, এ ধরনের রায় নিশ্চিন্তে মানুষের মৌলিক অধিকার পালনের পথ প্রশস্ত করে দেবে।

Advertisement

Advertisement

Advertisement

Advertisement

Advertisement