৫ মাঘ  ১৪২৫  রবিবার ২০ জানুয়ারি ২০১৯ 

Menu Logo মহানগর রাজ্য দেশ ওপার বাংলা বিদেশ খেলা বিনোদন লাইফস্টাইল এছাড়াও ফিরে দেখা ২০১৮ ফটো গ্যালারি ভিডিও গ্যালারি ই-পেপার

সংবাদ প্রতিদিন ডিজিটাল ডেস্ক: সুপ্রিম কোর্টের রায়ে পদ ফিরে পাওয়ার একদিনের মধ্যেই বরখাস্ত করা হয় অলোক ভার্মাকে৷ আর এরপরই নাম না করে প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদি ও কেন্দ্রের বিরুদ্ধে ক্ষোভ উগরে দিলেন প্রাক্তন সিবিআই কর্তা৷ তুললেন একের পর এক বিস্ফোরক অভিযোগ৷ দাবি করলেন, মিথ্যা এবং ভুল অভিযোগে তাঁকে বরখাস্ত করা হয়েছে৷

[সবরীমালায় প্রবেশের ‘শাস্তি’, হুমকির জেরে বাড়ি ফেরা বন্ধ বিন্দু ও কনকদুর্গার ]

বৃহস্পতিবার সংবাদসংস্থা পিটিআই-কে দেওয়া সাক্ষাৎকারে প্রথম থেকেই আক্রমণাত্মক ছিলেন প্রাক্তন সিবিআই প্রধান৷ নাম না করে প্রধানমন্ত্রীকে আক্রমণ করেন তিনি৷ অভিযোগে বলেন, ‘‘একাধিক বিষয়ে বাইরে থেকে আমার উপর চাপ সৃষ্টি করার চেষ্টা হচ্ছিল৷ সিবিআই-এর মতো তদন্তকারী সংস্থার স্বাধীনতা ও সার্বভৌমত্ব নষ্ট করার চেষ্টা হচ্ছিল৷ আমি সংস্থার স্বতন্ত্রতার পক্ষে দাঁড়িয়েছিলাম৷’’ কেবল ভার্মাই নয়, সিলেক্ট কমিটি সিবিআই প্রধানকে বরখাস্ত করার পরই, প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদিকে আক্রমণ শানিয়েছে কংগ্রেস৷ ভার্মাকে আত্মপক্ষ সমর্থনের সুযোগ না দিয়ে, ভয় পেয়ে প্রধানমন্ত্রী তাঁকে সরিয়ে দিয়েছেন বলে অভিযোগ করেছে তাঁরা৷ রাফালে ইস্যু টেনে প্রধানমন্ত্রীকে খোঁচা দিয়েছেন কংগ্রেস সভাপতি রাহুল গান্ধীও৷

[‘আইনসিদ্ধ হলেও বাহিনীতে সমকামিতা বরদাস্ত নয়’, হুঁশিয়ারি সেনাপ্রধানের]

সুপ্রিম কোর্টের রায়ে চলতি সপ্তাহেই শর্তসাপেক্ষে সিবিআই প্রধানের পদে আবারও আসিন হন ১৯৭৯ ব্যাচের আইপিএস অফিসার অলোক ভার্মা৷ কিন্তু ২৪ ঘণ্টা কাটতে না কাটতেই বিভিন্ন অভিযোগে তাঁকে ওই পদ থেকে বরখাস্ত করে সিলেক্ট কমিটি৷ ভার্মাকে পাঠান হয়েছে স্বরাষ্ট্রমন্ত্রকের অধীনস্ত দমকল ও জরুরী বিভাগের ডিজি করে৷ সিলেক্ট কমিটিতে রয়েছেন প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদি, লোকসভার বিরোধী দলনেতা মল্লিকার্জুন খাড়গে এবং সুপ্রিম কোর্টের প্রধান বিচারপতি রঞ্জন গগৈ৷ যদিও এক্ষেত্রে ওই কমিটি থেকে সরে দাঁড়ান প্রধান বিচারপতি রঞ্জন গগৈ৷ তাঁর হয়ে প্রতিনিধিত্ব করেন সুপ্রিম কোর্টেরই বিচারপতি এ কে সিক্রি৷ প্রসঙ্গত, গত ২৩ অক্টোবর অলোক ভার্মাকে সিবিআই অধিকর্তার পদ থেকে সরিয়ে দেয় কেন্দ্র৷ তাঁর পরিবর্তে সিবিআইয়ের অন্তবর্তী নির্দেশক করা হয় নাগেশ্বর রাও-কে৷ কেন্দ্রের সিদ্ধান্তের বিরোধিতা করে সুপ্রিম কোর্টে যান অলোক ভার্মা৷ প্রায় তিন মাস ধরে মামলা চলার পর ভার্মার পক্ষেই রায় দেয় প্রধান বিচারপতি রঞ্জন গগৈইয়ের নেতৃত্বাধীন ডিভিশন বেঞ্চ৷ বুধবার আবারও কাজে যোগ দেন অলোক ভার্মা৷ এমনকী, সিবিআইয়ের পাঁচ আধিকারিককে অন্যত্র বদলিরও সিদ্ধান্ত নেন তিনি৷ কিন্তু একদিনের মাথায় তাঁকে বরখাস্ত করে সিলেক্ট কমিটি৷

আরও পড়ুন

আরও পড়ুন

ট্রেন্ডিং