BREAKING NEWS

১৯ আষাঢ়  ১৪২৭  রবিবার ৫ জুলাই ২০২০ 

Advertisement

২৪ ঘণ্টায় মুম্বইয়ে মৃত্যু ৪৯ জনের, দিল্লিতেও লাফিয়ে বাড়ছে সংক্রমিতের সংখ্যা

Published by: Sucheta Chakrabarty |    Posted: June 2, 2020 9:22 am|    Updated: June 2, 2020 10:27 pm

An Images

ফাইল ফটো

আজ লকডাউন ৫.০-র দ্বিতীয় দিন। সোমবার থেকেই কনটেনমেন্ট জোন ছাড়া  দেশের অন্য এলাকাগুলি স্বাভাবিক ছন্দে ফিরতে শুরু করেছে। এই মুহূর্তে ভারতে আক্রান্তের সংখ্যা  ১ লক্ষ ৯৮ হাজার ৭০৬। মৃত্যু হয়েছে ৫৫৯৮ জনের। সুস্থ হয়ে বাড়ি ফিরেছেন  ৮ হাজার ৪০০ জনেরও বেশি। এই মুহূর্তে বাংলাতে করোনা আক্রান্তের সংখ্যা ৬,১৬৮ জন। মৃত বেড়ে ২৬৩।করোনা সংক্রান্ত সমস্ত আপডেট:

রাত ১০.০০: গত ২৪ ঘণ্টায় দিল্লিতে সংক্রমিত ১২৯৮ জন। মোট আক্রান্তের সংখ্যা বেড়ে হল ২২১৩২।

রাত ৯.৩০: মধ্যপ্রদেশে নতুন করে করোনা আক্রান্ত আরও ১৩৭ জন।

রাত ৯. ১০: গত ২৪ ঘণ্টায় মুম্বইয়ে সংক্রমিত ১১০৯ জন। মৃত্যু হয়েছে ৪৯ জন আক্রান্তের। 

রাত ৯. ০২: মণিপুরে আরও ৪ জনের শরীরে মিলল করোনার জীবাণু। মোট আক্রান্তের সংখ্যা বেড়ে ৮৯।

রাত ৮.৩০:  পয়লা মে থেকে ২ জুন সকাল ১০টা পর্যন্ত মোট ৪১৫৫টি শ্রমিক স্পেশ্যাল ট্রেন চালানো হয়েছে। এতে ৫৭ লক্ষের বেশি যাত্রী সফর করেছেন বলে জানাল ভারতীয় রেল।

রাত ৮.২০: গোয়াতে আক্রান্ত হলেন আরও ৬ জন। এখনও পর্যন্ত আক্রান্ত হয়েছেন ৭৯ জন। এর মধ্যে ৫৭ জন সুস্থ হয়েছেন ও চিকিৎসাধীন রয়েছেন ২২ জন।

রাত ৮.১০: গত ২৪ ঘণ্টায় পাঞ্জাবে আরও ৪১ জনের শরীরে করোনা জীবাণু পাওয়া গেল। আক্রান্তের সংখ্যা বেড়ে দাঁড়াল ২৩৪২ জনে।

রাত ৮টা: কেরলে নতুন করে আক্রান্ত ৮৬ জন। এর ফলে মোট আক্রান্তের সংখ্যা দাঁড়াল ১৪১২ জন। এর মধ্যে এখনও চিকিৎসাধীন ৭৭৪ জন।

রাত ৭.৫০: পশ্চিমবঙ্গে গত ২৪ ঘণ্টায় নতুন করে করোনায় আক্রান্ত হয়েছেন ৩৯৬ জন। আর  মৃত্যু হয়েছে ১০ জনের। বিজ্ঞপ্তি প্রকাশ করে জানাল রাজ্য স্বাস্থ্যদপ্তর। এর ফলে এখনও পর্যন্ত মোট মৃত্যু হল ২৬৩ জনের। আর এখনও পর্যন্ত সুস্থ হয়ে বাড়ি ফিরেছেন ২ হাজার ৪১০ জন।

সন্ধে ৭.৩০: এক আধিকারিকের শরীরে করোনার জীবাণু পাওয়া গিয়েছে। এর জেরে দিল্লির রাজীব গান্ধী ভবনে থাকা এয়ারপোর্ট অথরিটি অফ ইন্ডিয়ার অফিস ৪ তারিখ পর্যন্ত বন্ধ করা হল।

সন্ধে ৬.৫০: ক্লাস টুয়েলভের পরীক্ষা হবে ১ থেকে ১৫ জুলাই। নির্দেশিকা জারি করে জানাল সেন্ট্রাল বোর্ড অফ সেকেন্ডারি এডুকেশন (CBSE)।

সন্ধে ৬.৩০: উত্তরাখণ্ডের দেরাদুনে জিম খোলার দাবিতে পথে নেমে বিক্ষোভ দেখাচ্ছেন জিমের মালিক ও প্রশিক্ষকরা।

সন্ধে ৬.১০: তামিলনাড়ুতে নতুন করে করোনায় আক্রান্ত হলেন ১০৯১ জন। এর ফলে আক্রান্ত সংখ্যা হল ২৪ হাজার ৫৮৬।

বিকেল ৫.৪০: গত ২৪ ঘণ্টায় নেপালে ২৮৮ জনের শরীরে করোনার জীবাণু পাওয়া গিয়েছে। এর ফলে মোট আক্রান্তের সংখ্যা বেড়ে দাঁড়াল ২০৯৯।

বিকেল ৫.২০: করোনা আক্রান্তদের ভরতি ও চিকিৎসার ক্ষেত্রে সরকারি নিয়ম ভাঙার অভিযোগ। বম্বে, যশোলোক, হিন্দুজা ও লীলাবতী হাসপাতাল কর্তৃপক্ষকে শোকজ নোটিস পাঠাল মহারাষ্ট্র সরকার।

বিকেল ৫টা: চণ্ডীগড়ে করোনা আক্রান্তের সংখ্যা বেড়ে দাঁড়াল ৩০১। মৃত্যু হয়েছে পাঁচজনের।

বিকেল ৪.৪০: মাত্র দিনেই করোনা যুদ্ধে জয়ী হলেন ডায়মন্ডহারবারের বছর ৩৭ এক ব্যক্তি। ঘটনার জেরে চাঞ্চল্য ছড়ায় ডায়মন্ডহারবার পুরপ্রশাসন এলাকায়।

বিকেল ৪.২০: মুম্বইয়ের ধারাভিতে নতুন করে করোনায় আক্রান্ত হলেন ২৫ জন। এই এলাকায় মোট আক্রান্তের সংখ্য়া বেড়ে হল ১৮৩০। মৃত ৭১জন।

দুপুর ৪.০৫: করোনা আবহে সামাজিক বিধি শিকেয় তুলে কর্নাটকের স্বাস্থ্যমন্ত্রী চিত্রদুর্গের অনুষ্ঠানে অংশ নিলেন। ভাইরাল হল সেই ছবি।

দুপুর ৩.৫০: বাংলাদেশে ক্রমেই বাড়ছে করোনা আক্রান্তের সংখ্যা। গত ২৪ ঘণ্টায় নতুন করে করোনায় আক্রান্ত হয়েছেন ২ হাজার ৯১১ জন। ফলে দেশে মোট করোনা আক্রান্তের সংখ্যা বেড়ে হল ৫২ হাজার ৪৪৫ জন। করোনায় আক্রান্ত হয়ে রোহিঙ্গা-সহ ৩৭ জন প্রাণ হারিয়েছেন। ফলে মৃতের সংখ্যা বেড়ে হল ৭০৯ জন। 

দুপুর ৩.৩০: শিলিগুড়িতে চালু হল পেইড কোয়ারেন্টাইন। টাকা দিয়ে অভিজাত হোটেলে আক্রান্তরা পাবেন সবরকমের সুবিধা। 

দুপুর ৩.১৫: সামাজিক দূরত্ব বজায় রেখে রায়গঞ্জে করোনা মাতার পুজোয় অংশগ্রহণ করলেন মহিলারা। মারণ ভাইরাস দমনের আরতিতে এই পুজো সারলেন তারা।

দুপুর ২.৪৫: ফের উচ্চমাধ্যমিক পরীক্ষার সূচিবদল। ২৯ জুন হচ্ছে না করোনার জেরে বাতিল হওয়া উচ্চমাধ্যমিকের বাকি পরীক্ষা। ২, ৬, ৮ তারিখে অনুষ্ঠিত হবে সেই পরীক্ষাগুলি। কবে কী পরীক্ষা হবে তা পরে নিশ্চিত করে জানানো হবে উচ্চমাধ্যমিক সংসদের তরফ থেকে।

দুপুর ২.২৫: সন্তান জন্মানোর পর স্তন্যদানে অপারগ মায়ের সন্তানকে স্তন্যপান করালেন আর জি কর হাসপাতালের এক নার্স।

দুপুর ২.০৫: রাস্তার চলা প্রতিটি ব্যক্তিকে পড়তে হবে মাস্ক। কারও মুখে যদি মাস্ক না থাকলে পুলিশকেই সেই ব্যবস্থা করে দিতে হবে। পুলিশ কমিশনার অনুজ শর্মার এই নির্দেশ মেনে মাস্ক নিয়ে রাস্তায় নামেন পুলিশ আধিকারিকরা।

দুপুর ১.৪৫: করোনার জেরে লাটে উঠল হাওড়ায় রেলের অর্থোপেডিক হাসপাতালের  পরিষেবা। পর্যাপ্ত পরিকাঠামো তৈরি না করেই হাড়ের হাসপাতালটিকে কোভিড-১৯ চিকিৎসা কেন্দ্রে পরিণত করা হয়েছে বলে অভিযোদ ওঠে।

দুপুর ১.৩০: পশ্চিম মেদিনীপুরে ১১ জন করোনা আক্রান্তের হদিশ মিলল। কোচবিহারে নতুন করে আক্রান্ত হলেন ২৯ জন।

দুপুর ১.১৫: খড়গপুরে  মিলল করোনা পজিটিভ আক্রান্তের সন্ধান। খড়গপুর মহকুমা হাসপাতালের হেঁসেলের কর্মীর শরীরেই পাওয়া গেল ভাইরাসের উপস্থিতি।

দুপুর ১.০০: করোনার থেকে ৪ ধাপ এগিয়ে রয়েছে দিল্লি। হাসপাতালগুলিতে উন্নত চিকিৎসা ব্যবস্থার আয়োজন করা হয়েছে বলে এদিন জানান মুখ্যমন্ত্রী অরবিন্দ কেজরিওয়াল। হাসপাতালে পর্যাপ্ত পরিমাণে ভেন্টিলেটর মজুত রয়েছে বলেও জানান তিনি। দিল্লিবাসীর মুশকিল আসানে  দিল্লি ‘করোনা অ্যাপ’ নামে একটি অ্যাপের উদ্বোধন করেন। এর সাহায্যে ঘরে  বসেই জানা যাবে কোভিড হাসপাতালের বেডের সংখ্যা। 

বেলা ১২.৩০:‘আনলক ১’ -এর দ্বিতীয় দিনেও বাস পেতে দিয়ে নাকাল যাত্রীরা। ব্যস্ত সময়েই ধরা পড়ল বাসে নিয়মভঙ্গের ছবি।

বেলা ১২.০০: করোনাকে বুড়ো আঙুল দেখিয়ে লালবাজারের ১৬ জন পুলিশ কর্মী সুস্থ হয়ে বাড়ি ফিরেছেন। তাঁদের মধ্যে থানা ও ট্রাফিক গার্ডের কর্মীরা যেমন রয়েছেন, তেমনই রয়েছেন কয়েকজন সশস্ত্র বাহিনীর সদস্য। 

বেলা ১১.৪০: পুরুলিয়ায় ফের বাড়ল আক্রান্তের সংখ্যা। মোট আক্রান্তের সংখ্যা হল ৯। সংক্রমিতরা  সকলেই মহারাষ্ট্র থেকে ফেরেন বলে জানা যায়। 

বেলা ১১.৩০: ‘আনলক ১’এ ধীরে ধীরে স্বাভাবিক হচ্ছে গোয়ার জনজীবন। খুলছে দোকান-বাজার।

বেলা ১১.০০: করোনার বিরুদ্ধে লড়াই করে ফের ঘুরে দাঁড়াবে ভারত। পরিস্থিতি যতই ভয়ঙ্কর হোক না কেন অর্থনীতিকে সচল করতে হবে। দেশবাসী দ্রুত এই মারণ ভাইরাসের বিরুদ্ধে জয়লাভ করবে বলে সিআইআইয়ের বার্ষিক সভায় জানালেন প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদি। 

সকাল ১০.০০: সল্টলেকের স্কুলে পড়ুয়াদের ডেকে স্যানিটাইজেশনে অংশ নিতে বলায় বিতর্কে স্কুল কর্তৃপক্ষ।

সকাল ৯.৩০: ৩২ লক্ষ পরিযায়ী শ্রমিক ফিরে এসেছেন বিহারে। কয়েকদিনের মধ্যেই শ্রমিক স্পেশাল ট্রেন বন্ধ করে দেবে বলে জানায় নীতীশ কুমারের সরকার।

সকাল ৯.০০: মাত্র ২৪ ঘণ্টায় দেশে নতুন করে আক্রান্ত হলেন ৮ হাজার১৭১ জন।  ফলে মোট আক্রান্তের সংখ্যা বেড়ে হল  ১ লক্ষ ৯৮ হাজার ৭০৬ জন। করোনায় আক্রান্ত হয়ে প্রাণ হারিয়েছেন ২০৪ জন। সুস্থ হয়ে বাড়ি ফিরেছেন ৯৫ হাজারেরও বেশি মানুষ।

সকাল ৮.১৫: ২৪ ঘণ্টায় নতুন করে মিজোরামে ১২ জনের শরীরে মিলল করোনা ভাইরাসের উপস্থিতি।

সকাল ৮.০৫: করোনা আবহেই দিল্লি গাজিপুর বাজারে ক্রেতাদের ভিড়। আতঙ্ককে অগ্রাহ্য করে সবজি কেনার হিড়িক বাজারে।

 

Advertisement

Advertisement

Advertisement

Advertisement

Advertisement