BREAKING NEWS

৭ আশ্বিন  ১৪২৭  বৃহস্পতিবার ২৪ সেপ্টেম্বর ২০২০ 

Advertisement

গত ২৪ ঘণ্টায় বাংলায় করোনা আক্রান্ত চারশো ছুঁইছুঁই, বাড়ল মৃত্যুও

Published by: Sucheta Sengupta |    Posted: June 14, 2020 8:40 am|    Updated: June 15, 2020 8:36 am

An Images

দেশে আনলক ওয়ান পর্ব পেরিয়ে গেল এক সপ্তাহ। তবে প্রতিদিন করোনা সংক্রমণের নতুন নতুন রেকর্ডে আনলক টু নিয়ে অনিশ্চয়তা বাড়ছে। ফের না লকডাউনের পথে হাঁটতে হয়, এই চিন্তা থাকছেই। দেশে মোট আক্রান্তের সংখ্যা ৩ লক্ষ ২০ হাজার ৯২২ জন। মৃত্যু হয়েছে ৯১৯৫ জনের। পাশাপাশি এ রাজ্যেও করোনা সংক্রমণের হার বাড়ছে, বিশেষত শহর কলকাতার পরিস্থিতি উদ্বেগজনক। আক্রান্তের সংখ্যা বেড়ে দাঁড়িয়েছে ১১,০৮৭ জন। এখনও পর্যন্ত মৃত্যু হয়েছে ৪৭৫ জনের। করোনা সংক্রান্ত সমস্ত আপডেট:

রাত ১০.৪০: ওড়িশায় মৃত বেড়ে ১১। আক্রান্তের সংখ্যা বেড়ে দাঁড়াল ৩,৯০৯ জন।

রাত ১০.১০: উত্তরপ্রদেশে বাড়ছে সংক্রমণ। গত ২৪ ঘণ্টায় যোগীর রাজ্যে আক্রান্ত ৪৯৯ জন।

রাত ৯.৪৫: নয়াদিল্লিতে রেকর্ড। গত ২৪ ঘণ্টায় করোনা আক্রান্ত ২,২২৪ জন।

রাত ৯.৪০: মহারাষ্ট্রে গত ২৪ ঘণ্টায় করোনা আক্রান্ত ৩,৩৯০ জন।

রাত ৯.০০: করোনা রোগীদের দেহ সৎকার নিয়ে নয়া নির্দেশিকা জারি করল স্বরাষ্ট্র মন্ত্রক। এবার থেকে করোনা সন্দেহভাজনদের মৃতদেহ পরিবারের হাতে তুলে দিতে হবে। রিপোর্ট আসার জন্য অপেক্ষা করা যাবে না। তবে  নিয়ম মেনে শেষকৃত্য সারতে হবে।

রাত ৮.৫০: দিল্লির ৪০ টি হোটেল ও ৮০টি ব্যাংকোয়েট হল-কে হাসপাতালে রূপান্তরিত করা হবে। করোনা আক্রান্তদের জন্য ২০ হাজার শয্যা বাড়বে।

রাত ৮.০০: ওড়িশার গঞ্জাম জেলায় ৩০ জুন অবধি লকডাউন কার্যকর হচ্ছে।

সন্ধে ৭.২৫: গত ২৪ ঘণ্টায় বাংলায় আক্রান্ত হয়েছেন ৩৮৯ জন। ফলে সংক্রমিতের সংখ্যা বেড়ে দাঁড়াল ১১,০৮৭ জন। একই সময়ে মৃত্যু হয়েছে ১২ জনের। ফলে মৃতের সংখ্যা বেড়ে দাঁড়াল ৪৭৫ জনের।

সন্ধে ৬.২৭: মহারাষ্ট্রের থানের শ্মশানের দুই কর্মী করোনা আক্রান্ত।

বিকেল ৫.৩৭: দু’বার বৈঠকেও কাটল না চিন্তা। সোমবার দিল্লির করোনা পরিস্থিতি নিয়ে সর্বদল বৈঠক ডাকলেন অমিত শাহ। খবর নিশ্চিত করলেন দিল্লির কংগ্রেস সভাপতি

p>বিকেল ৪.৩০: দিল্লির করোনা পরিস্থিতি নিয়ে দ্বিতীয় দফায় বৈঠকে অমিত শাহ, অরবিন্দ কেজরিওয়াল, অনিল বৈজল। এবারের আলোচনায় রয়েছেন দিল্লির বিভিন্ন পুরসভার মেয়ররাও। 

দুপুর ৩.৩৭: রাজধানীতে করোনা পরিস্থিতিতে সামলাতে চার আইএসএস অফিসারকে  অরুণাচল থেকে দিল্লিতে স্থানান্তরিত করার নির্দেশ কেন্দ্রীয় স্বরাষ্ট্রমন্ত্রীর। এঁদের মধ্যে ২ জন কেন্দ্রের সঙ্গে যোগাযোগ রেখে চলবেন।

দুপুর ২.৪৯: করোনা চিকিৎসার জন্য ৫০হাজার ঘর দিতে প্রস্তুত দিল্লির হোটেল অ্যান্ড রেস্টুরেন্ট ওনার্স অ্যাসোসিয়েশন। 

দুপুর ২.০৬:দিল্লির COVID হাসপাতাল পরিদর্শনে যৌথ টিম গড়লেন অমিত শাহ।  স্বাস্থ্যমন্ত্রক ও দিল্লির স্বাস্থ্যদপ্তরের প্রতিনিধিদের সঙ্গে পরিদর্শন করবেন এইমস ও পুরসভার প্রতিনিধিরাও। এরপর তৈরি হবে রিপোর্ট।

দুপুর ১.১০: কেজরির আবেদনে সাড়া কেন্দ্রের। করোনা চিকিৎসার জন্য রেলের ৫০০টি কোচ পাচ্ছে দিল্লি। বৈঠক শেষে জানালেন অমিত শাহ।

দুপুর ১২.৩৩: রেলের কোচ এবং দিল্লির সমস্ত হাসপাতালে COVID চিকিৎসার জন্য কেন্দ্রের কাছে আবেদন জানালেন কেজরিওয়াল। 

বেলা ১১.৪৬: দিল্লিতে কি ফের লকডাউন? অমিত শাহর বৈঠকের পর চূড়ান্ত হতে পারে সিদ্ধান্ত। সংক্রামক এলাকায় ফের কড়া নিয়ম লাগু হতে পারে।

বেলা ১১: স্বরাষ্ট্রমন্ত্রকে পৌঁছলেন দিল্লির মুখ্যমন্ত্রী অরবিন্দ কেজরিওয়াল, স্বাস্থ্যমন্ত্রী হর্ষবর্ধন। করোনা পরিস্থিতি নিয়ে অমিত শাহর সঙ্গে বৈঠক শুরু। রয়েছেন দিল্লির উপ-রাজ্যপাল অনিল বৈজল।

সকাল ৯.২১: বিপুল হারে সংক্রমণের রেকর্ড অব্যাহত দেশে। গত ২৪ ঘণ্টায় করোনা আক্রান্ত ১১,৯২৯ জন, মৃত্যু হয়েছে ৩১১ জনের। ভারতে করোনা আক্রান্তের সংখ্যা প্রায় ৩ লক্ষ ২১হাজার। মৃত্যু পেরল ৯ হাজার। 

সকাল ৮.৫৭: সপ্তাহান্তে লকডাউনের সিদ্ধান্ত পাঞ্জাবে। আজ থেকেই কার্যকর করা হল সিদ্ধান্ত। 

সকাল ৮:  দীর্ঘ দু’মাসেরও বেশি সময় পর আনলক ওয়ান পর্বে ফের শহর কলকাতায় চালু ট্রাম পরিষেবা। কলকাতার ২৫ টি ট্রাম রুটের মধ্যে টালিগঞ্জ থেকে বালিগঞ্জ পর্যন্ত ছুটল ট্রাম। চালকদের পরনে পিপিই, মুখে মাস্ক, হাতে গ্লাভস। ট্রাম পরিষেবাতেও থাকছে নয়া নিয়ম। সকাল ৭টা থেকে রাত আটটা পর্যন্ত চলবে ট্রাম।

সকাল ৭.২৬: দেশে করোনার বলি ৯ হাজার ছুঁতে চলল। আর মৃত্যুর এই পরিসংখ্যান নিয়ে বিশ্বের করোনা তালিকায় নবমে ঢুকে পড়ল ভারত।

[আরও পড়ুন: দেশের করোনা আক্রান্তদের দুই তৃতীয়াংশের উৎস ৫ রাজ্য, পরিস্থিতি পর্যালোচনায় বৈঠক মোদির]

সকাল ৭: দিল্লির করোনা পরিস্থিতিতে বাড়ছে উদ্বেগ। আজই মুখ্যমন্ত্রী অরবিন্দ কেজরিওয়াল, উপ-রাজ্যপাল অনিল বৈজলের সঙ্গে বৈঠকে বসছেন কেন্দ্রীয় স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী অমিত শাহ, স্বাস্থ্যমন্ত্রী হর্ষবর্ধন। সকাল ১১টা নাগাদ বৈঠকে পরিস্থিতি পর্যালোচনা।

সকাল ৬.৩৬: করোনা, লকডাউন আবহে মানবিক প্রয়াগরাজের এক স্কুল। গত তিন মাসের স্কুল ফি সম্পূর্ণ মকুব। লকডাউনের জেরে অভিভাবকদের সমস্যার কথা বিবেচনা করে এপ্রিল, মে, জুন মাসের ফি দিতে হবে না, জানিয়েছেন স্কুলের প্রিন্সিপাল।

Advertisement

Advertisement

Advertisement

Advertisement

Advertisement