BREAKING NEWS

৪ মাঘ  ১৪২৮  মঙ্গলবার ১৮ জানুয়ারি ২০২২ 

READ IN APP

Advertisement

বাড়ছে সংক্রমণ, গুয়াহাটিতে ১৪ দিনের কড়া লকডাউন ঘোষণা

Published by: Sucheta Chakrabarty |    Posted: June 26, 2020 2:25 pm|    Updated: June 26, 2020 3:50 pm

Coronavirus spikes, 2-Week Lockdown In Guwahati

ছবি- প্রতীকী

সংবাদ প্রতিদিন ডিজিটাল ডেস্ক:  অসমে ক্রমেই বাড়ছে করোনা সংক্রমণের মাত্রা। ফলে চাপের মুখে পড়ে আনলক ওয়ানের শেষের দিকে এসে ফের দুসপ্তাহের জন্য কঠোর লকডাউনের ঘোষণা করা হল অসমে (Assam)। রাজধানী গুয়াহাটিতে রবিবার রাত থেকেই জারি করা হবে লকডাউন।

দেশে বাড়ছে করোনা আক্রান্তের সুস্থতার হার। তবে তার সঙ্গে তাল মিলিয়ে বাড়ছে সংক্রমিতের সংখ্যাও। যার জেরে ফের কঠোর সিদ্ধান্ত নিয়ে বাধ্য হলেন অসম সরকার। দুই সপ্তাহ অর্থাৎ ১৪ দিনের জন্য লকডাউনের ঘোষণা করা হল অসমের গুয়াহাটিতে (Guwahati)। রবিবার রাত থেকেই সেই নিয়ম কার্যকর করা হবে অসমের রাজধানীতে। সন্ধে ৭ টা থেকে সকাল ৭ টা পর্যন্ত জারি থাকবে কারফিউ (Cerfew)। এক্ষেত্রে যে নিয়মগুলি ভারতের উত্তর-পূর্বের রাজ্যে লাগু করা হবে তা হল-

  • সংক্রমণ রোধে পুরোপুরি বন্ধ থাকবে মাছ, মাংসের দোকান।
  • যত ধর্মীয় স্থান রয়েছে সেই সব স্থান পুনরায় বন্ধ করে দেওয়া হবে।
  • অসমের বাকি স্থানগুলিতে সন্ধে ৭ টা থেকে সকাল ৭ টা পর্যন্ত কারফিউ জারি থাকবে।
  • রাজ্যের বাকি শহরগুলিতে এই লকডাউনের কড়া আইন বলবৎ করা হবে।
  • খোলা রাখা হবে রেল, বিমানবন্দরগুলি।
  • শুধুমাত্র খোলা রাখা হবে ওষুধের দোকান।
  • রোগীদের হাসপাতালে নিয়ে যাওয়া যাবে। তাদের বাধা দেওয়া হবে না।
  • যে সকল ব্যক্তি জরুরি পরিষেবার সঙ্গে যুক্ত রয়েছেন তাঁদের ক্ষেত্রে ছাড় রয়েছে।

[আরও পড়ুন:‘করোনিল’ বানিয়ে কোনও আইন ভাঙেনি পতঞ্জলি, বিতর্কের মাঝেই দাবি সংস্থার]

আনলক পর্বে অসমে ক্রমেই করোনা আক্রান্তের সংখ্যা বাড়তে থাকায় প্রমাদ গোনেন অসমের স্বাস্থ্যমন্ত্রী হিমন্ত বিশ্বশর্মা (Himant Biswasharma)। তিনি জানান, “১৪ দিনের মধ্যে প্রথম ৭ দিন কড়াভাবে লকডাউনের নিয়ম পালন করা হবে। রাজ্যবাসীর কাছে আমার আবেদন খুব প্রয়োজন ছাড়া বাড়ি থেকে বের হবেন না। এই লকডাউনের প্রথম ৭ দিনের পরিস্থিতি তবেই পরের ৭ দিনের সিদ্ধান্ত নেওয়া হবে। পরের সাতদিনে অত্যাবশ্যকীয় পণ্যের দোকান, বাজার খোলা হবে কিনা সেই সিদ্ধান্তও পরে নেওয়া হবে।”

[আরও পড়ুন:চিন থেকে টাকা আসে রাজীব গান্ধী ফাউন্ডেশনে, বিস্ফোরক অভিযোগ বিজেপির]

অসমে কোভিড হাসপাতালগুলিতে মোট শয্যার সংখ্যা ৮৯০টি। এর মধ্যে প্রতিদিন গড়ে ২০০ করে মানুষ আক্রান্ত হওয়ায় উদ্বেগ বাড়তে থাকে অসম সরকারের মনে। উত্তর-পূর্বের রাজ্যগুলির মধ্যে সবথেকে খারাপ অবস্থা অসমেই। আনলক ওয়ানে স্বাভাবিক ছন্দে ফিরতে গিয়ে এই রাজ্যে হু হু করে বেড়েছে আক্রান্তের সংখ্যা। তাই করোনা রোধে ফের পুরনো পন্থা লকডাউনকেই শ্রেয় বলে মনে করছেন সর্বানন্দের সরকার। 

Sangbad Pratidin News App: খবরের টাটকা আপডেট পেতে ডাউনলোড করুন সংবাদ প্রতিদিন অ্যাপ
নিয়মিত খবরে থাকতে লাইক করুন ফেসবুকে ও ফলো করুন টুইটারে