BREAKING NEWS

১৫ অগ্রহায়ণ  ১৪২৭  বৃহস্পতিবার ৩ ডিসেম্বর ২০২০ 

Advertisement

‘দুর্নীতি উন্নয়নের ক্ষতি করে’, দায়বদ্ধ ও স্বচ্ছ প্রশাসন তৈরির আহ্বান মোদির

Published by: Soumya Mukherjee |    Posted: October 27, 2020 8:12 pm|    Updated: October 27, 2020 8:20 pm

An Images

সংবাদ প্রতিদিন ডিজিটাল ডেস্ক: ‘দুর্নীতির ফলে ক্ষতি হয় উন্নয়নের। এর ফলে সমাজে বৈষম্যেরও সৃষ্টি হয়। এই ধরনের ঘটনা রুখতে তাই স্বচ্ছ, দায়বদ্ধ ও উত্তর দিতে সমর্থ প্রশাসন তৈরি করতে হবে।’ মঙ্গলবার ন্যাশনাল কনফারেন্স ওন ভিজিলেন্স অ্যান্ড অ্যান্টি করাপসন (national conference on vigilance and anti-corruption)-এ ভিডিও কনফারেন্সের মাধ্যমে বক্তব্য রাখতে গিয়ে একথাই বললেন প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদি।

স্বচ্ছ ও দায়বদ্ধ প্রশাসন গড়ার পথে দুর্নীতি (Corruption) -কে সবচেয়ে বড় শত্রু বলে উল্লেখ করে নরেন্দ্র মোদি (Narendra Modi) বলেন, ‘উন্নয়নের জন্য আমাদের প্রশাসনিক ব্যবস্থাকে স্বচ্ছ, দায়বদ্ধ ও মানুষের কাছে উত্তর দেওয়ার উপযোগী করে তুলতে হবে। দুর্নীতি এই ধরনের বিষয়গুলির সবচেয়ে বড় শত্রু। দুর্নীতির ফলে উন্নয়নের ক্ষতি এবং সামাজিক স্থিতাবস্থা নষ্ট হয়। আজকে আমি যখন এই বিষয়ে বক্তব্য রাখছি তখন গোটা দেশ সর্দার বল্লভভাই প্যাটেলের জন্মবার্ষিকী পালনের প্রস্তুতি নিচ্ছে। তিনি ভারতীয় প্রশাসনিক ব্যবস্থার অন্যতম স্থপতি ছিলেন।’

[আরও পড়ুন: কাশ্মীর ও লাদাখে জমি কিনতে পারবেন অন্য রাজ্যের বাসিন্দারাও, বিজ্ঞপ্তি জারি কেন্দ্রের ]

দুর্নীতির বিরুদ্ধে তাঁর সরকার পুরোদমে লড়াই চালাচ্ছে বলে জানিয়ে প্রধানমন্ত্রী আরও বলেন, ‘বছরের পর বছর, দুর্নীতির ক্ষেত্রে জিরো টলারেন্স নীতি নিয়ে চলছিল এই দেশ। কিন্তু, ২০১৪ সাল থেকে আজ পর্যন্ত প্রতিটি ক্ষেত্রে উন্নতি হয়েছে। প্রশাসনিক, ব্যাংকিং, স্বাস্থ্য, শিক্ষা. কৃষি ও শ্রম-সহ বিভিন্ন ক্ষেত্রে দুর্নীতির ঘটনা কমেছে। এখন ডায়রেক্ট ব্যাংক ট্রান্সফারের ফলে গরিবদের কাছে ১০০ শতাংশ সুবিধা পৌঁছচ্ছে. এর ফলে ১ লক্ষ ৭০ হাজারের বেশি টাকা ভুল হাতে যাওয়া বন্ধ হয়েছে। তাই আজ গর্বের সঙ্গে বলা যায় যে কেলেঙ্কারির যুগ পেরিয়ে এসেছে এই দেশ।’

দুর্নীতির ফলে দেশ নরকে পরিণত হয় দাবি করে তিনি বলেন, ‘দুর্নীতি, অর্থনৈতিক অপরাধ, মাদক, আর্থিক দুর্নীতি, সন্ত্রাসে অর্থের যোগান দেওয়া এই প্রত্যেকটি বিষয় একে অপরের সঙ্গে সম্পর্কিত। তাই এগুলিকে আটকাতে গেলে আমাদের সততার সঙ্গে নজরদারি করতে হবে ও দুর্নীতির বিরুদ্ধে প্রশিক্ষণ দিত হবে।’

[আরও পড়ুন: অনলাইন শুনানিতে নগ্ন শরীরেই হাজির আইনজীবী! চূড়ান্ত বিরক্ত সুপ্রিম কোর্টের মহিলা বিচারপতি]

Advertisement

Advertisement

Advertisement

Advertisement

Advertisement