BREAKING NEWS

৫ মাঘ  ১৪২৮  বুধবার ১৯ জানুয়ারি ২০২২ 

READ IN APP

Advertisement

আম্বানির সঙ্গে চুক্তিতে বাধ্য হয়েছিল দাসাল্ট, রাফালে ইস্যুতে চাঞ্চল্যকর মোড়

Published by: Subhajit Mandal |    Posted: October 11, 2018 6:02 pm|    Updated: October 11, 2018 6:02 pm

Dassault was forced to accept relience as partner, French media

সংবাদ প্রতিদিন ডিজিটাল ডেস্ক: রাফালে ইস্যুতে এখনও পর্যন্ত সবচেয়ে চাঞ্চল্যকর তথ্য উঠে এল ফ্রান্সের একটি সংস্থার রিপোর্টে। ওই সংবাদ মাধ্যমের একটি রিপোর্টে দাবি করা হয়েছে, দাসাল্ট নামের ফ্রান্সের যে সংস্থা রাফালে তৈরি করছে, সেই সংস্থাটিকে অফসেট পার্টনার হিসেবে রিলায়েন্সকে বেছে নিতে বাধ্য করা হয়েছে। সংবাদমাধ্যমের দাবি, দাসাল্ট নামে সংস্থাটির সেকেন্ড-ইন-কম্যান্ড একথা তাদের জানিয়েছেন। এমনকি দাসাল্টের নথিতেও প্রমাণ রয়েছে তাঁরা বাধ্য হয়েই রিলায়েন্সকে পার্টনার হিসেবে বেছে নিতে হয়েছে। সংবাদমাধ্যমের দাবি, লোলিক সেগলেন ২০১৭ সালের ১১ মে প্রকাশ্যেই জানিয়েছিলেন, ৫৯ হাজার কোটি টাকার এই চুক্তিটি পাওয়ার জন্য তাদের কিছু শর্ত দেওয়া হয়েছিল। সেই শর্ত মানতেই হয়েছে তাদের।

[অনুবাদের ভুলেই বিভ্রান্তি, বিতর্কিত সাক্ষাৎকার নিয়ে সাফাই গড়করির ]

ফ্রান্সের সংবাদমাধ্যমটির দাবি, ফ্রান্সের প্রাক্তন প্রেসিডেন্ট ফ্রাঁসোয়া ওলাদঁ যা বলেছিলেন সেটাই সত্যি। রিলায়েন্সকে বেছে নেওয়া ছাড়া আর কোনও অপশন ছিল না ফ্রান্সের কাছে। সংস্থাটির এক শীর্ষস্থানীয় সাংবাদিক জানিয়েছেন, আমরা আবারও বলছি ওলাদেঁর মন্তব্য পুরোপুরি সঠিক। যদিও, এই সংবাদ সংস্থার খবরের সত্যতা অস্বীকার করেছে দাসাল্ট। দাসাল্টের সঙ্গে জানানো হয়েছে, রিলায়েন্স ছাড়াও আরও অনেক সংস্থার চুক্তিপত্র খতিয়ে দেখেই তাঁরা চুক্তি করেছিলেন।

[‘মিথ্যা প্রতিশ্রুতি দিয়েই ক্ষমতায় এসেছি’, গড়কড়ির বিতর্কিত মন্তব্যে চাপে বিজেপি]

ফ্রান্সের সংবাদমাধ্যমের এই খবরকে হাতিয়ার করে বিজেপিকে আরও তীব্র আক্রমণ শানিয়েছেন কংগ্রেস সভাপতি রাহুল গান্ধী। রাহুলের দাবি, ফ্রান্সের সংবাদমাধ্যমের এই রিপোর্টেই প্রমাণিত হয়ে গেল নরেন্দ্র মোদি অনিল আম্বানির সংস্থার চৌকিদার। রাহুল বলেন, “আমি আবারও বলছে প্রধানমন্ত্রী দুর্নীতিগ্রস্ত। আম্বানির সংস্থার মাথায় মোটা অঙ্কের ঋণ ছিল, সেই ঋণের ক্ষতিপূরণের জন্যই আম্বানিকে দিয়েছেন রাফালের বরাত।” এদিকে, বুধবারই ফ্রান্সে উড়ে গিয়েছেন প্রতিরক্ষামন্ত্রী নির্মলা সীতারমণ। দাসাল্টের ফ্যাক্টরি পর্যবেক্ষণ করবেন তিনি। রাহুলের প্রশ্ন, “হঠাৎ করে কী এমন পরিস্থিতি তৈরি হল যে প্রতিরক্ষা মন্ত্রীকে ফ্রান্সে দৌড়তে হল। তিনি আবার দাসাল্টের সংস্থাতেই চলে গিয়েছেন।” দাসাল্টের অভিযোগ অস্বীকার প্রসঙ্গে রাহুল বলেন, ” ফ্রান্সের সংস্থাটি ভারতের কাছ থেকে বড়সড় একটি বরাত পেয়েছে। তাই ভারত সরকার ওদের দিয়ে যা বলাতে চাইছে ওরাও তাই বলছে।” 

Sangbad Pratidin News App: খবরের টাটকা আপডেট পেতে ডাউনলোড করুন সংবাদ প্রতিদিন অ্যাপ
নিয়মিত খবরে থাকতে লাইক করুন ফেসবুকে ও ফলো করুন টুইটারে