BREAKING NEWS

১৩  আষাঢ়  ১৪২৯  মঙ্গলবার ২৮ জুন ২০২২ 

READ IN APP

Advertisement

Advertisement

প্রতিবেশী যুবকের হেনস্তায় অতিষ্ঠ হয়ে আত্মঘাতী উচ্চমাধ্যমিক পরীক্ষার্থী

Published by: Sangbad Pratidin Digital |    Posted: March 24, 2018 6:31 pm|    Updated: July 30, 2019 5:32 pm

Delhi: Stalked, harassed class 12 girl commits suicide

ছবি: প্রতীকী।

সংবাদ প্রতিদিন ডিজিটাল ডেস্ক: দিনের পর দিন উত্যক্ত করছিল প্রতিবেশী যুবক। হেনস্তা সহ্য করতে না পেরে আত্মঘাতী হল উচ্চমাধ্যমিক পরীক্ষার্থী। এই ঘটনায় অভিযোগের তির প্রতিবেশী যুবক মায়াঙ্কের বিরুদ্ধে। মর্মন্তিক ঘটনাটি ঘটেছে রাজধানী দিল্লির বখতাওয়ারপুর এলাকায়।

অভিযোগ, মায়াঙ্ক (২০) দীর্ঘদিন ধরে ওই কিশোরীকে বিরক্ত করছিল। সময় সুযোগ পেলেই তাকে হেনস্তা করত মায়াঙ্ক। গোটা ঘটনায় অতিষ্ঠ হয়ে উঠছিল নিগৃহীতা কিশোরী। ঘটনা সহ্যের সীমা অতিক্রম করলে প্রতিবাদী হয়ে ওঠে কিশোরী। অভিযোগ প্রতিবাদ করতেই হুমকি দিতে শুরু করে অভিযুক্ত। যে সে হুমকি নয়, কিশোরীর বাবা মাকে মেরে ফেলার হুমকি। এই ঘটনার পরে মানসিকভাবে বিপর্যস্ত হয়ে পড়ে ওই উচ্চমাধ্যমিক পরীক্ষার্থী। এরপরই চরম সিদ্ধান্তটি নেয় কিশোরী। তবে কেন আত্মঘাতী হয়েছে, তার বিশদ বিবরণ দিয়ে সুইসাইড নোট রেখে গিয়েছে। যেখানে স্পষ্ট করে মায়াঙ্কের নাম লেখা রয়েছে।

[দলিত যুবকের সঙ্গে প্রেম, বিয়ের আগের দিন মেয়েকে খুন করল বাবা!]

খবর পেয়েই ঘটনাস্থলে পৌঁছেছে পুলিশ। অভিযুক্ত যুবকের খোঁজে শুরু হয়েছে তল্লাশি। তার বিরুদ্ধে ভারতীয় দণ্ডবিধির পকসো ধারায় ও মৃত্যুর প্ররোচণা দেওয়ার অভিযোগে ৩০৬ ধারায় মামলা রুজু হয়েছে। ঘটনার তদন্তে নেমেছে পুলিশ।

চলতি সপ্তাহেই রাজধানীতে আরও একটি আত্মহননের ঘটনা ঘটেছে। শিক্ষকের যৌন হেনস্তার শিকার হয়ে আত্মঘাতী হয় নবম শ্রেণির ছাত্রী। দিনের পর দিন নির্যাতনের পর প্রতিবাদ করায় তাকে ফেল করিয়ে দেওয়ার হুমকি দিত অভিযুক্ত শিক্ষক। বেশ কয়েকবার বিষয়টি বাড়িতে বলারও চেষ্টা করেছিল। কিন্তু শিক্ষক বাবা বেবেছিলেন মেয়ের কোথাও ভুল হচ্ছে। এইভাবে দিনের পর দিন শারীরিক মানসিক অত্যাচার সহ্য করতে না পেরে শেষপর্যন্ত আত্মহত্যার পথ বেছে নেয় ওই কিশোরী। ঠিক তার পরেপরেই ফের হেনস্তার অভিযোগ আত্মঘাতী হল উচ্চমাধ্যমিক পরীক্ষার্থী।

গত একমাসে দেশের বিভিন্ন প্রান্তে ছাত্রী হেনস্তার ঘটনা বেড়েই চলেছে। দিন কয়েক আগে উচ্চমাধ্যমিক পরীক্ষার্থীর পরীক্ষার হল টিকিট ছিঁড়ে দেয় দুই ছাত্র। যার জেরে চলতি বছরে পরীক্ষয় বসা অনিশ্চিত হয়ে পড়ে। এর জের মানসিকভাবে ভেঙে পড়ে দলিত ছাত্রী আত্মহননের পথ বেছে নেয়। গলায় ফাঁস লাগিয়ে আত্মঘাতী হয় ওই কিশোরী। অভিযোগ, বেশকিছু দিন ধরেই দুই সহপাঠী তাকে বিরক্ত করছিল। একটা সময় পর তাকে কুপ্রস্তাবও দেওয়া হয়। তাতে রাজি না হওয়াতেই শিক্ষা দিতে পরীক্ষার হল টিকিট ছিঁড়ে দেয় দুই অভিযুক্ত। হতাশায় আত্মঘাতী হয় ওই ছাত্রী। ঘটনাটি তামিলনাড়ুর। তারপর উত্তরপ্রদেশের এক ছাত্রীকে প্রকাশ্যে চড় মারে সহপাঠী ছাত্র। ছাত্রীর বাবাকে ডেকে তাঁর সামনেই মেয়েকে ধর্ষণ ও অ্যাসিড মারার হুমকিও দেয় বলে অভিযোগ। যদিও ঘটনার পর থেকে পলাতক ওই অভিযুক্ত।

[দুমকা কোষাগার মামলায় ৭ বছরের জেল লালুর]

Sangbad Pratidin News App: খবরের টাটকা আপডেট পেতে ডাউনলোড করুন সংবাদ প্রতিদিন অ্যাপ
নিয়মিত খবরে থাকতে লাইক করুন ফেসবুকে ও ফলো করুন টুইটারে