১১ অগ্রহায়ণ  ১৪২৮  রবিবার ২৮ নভেম্বর ২০২১ 

READ IN APP

Advertisement

রাজ্যের প্রাপ্য মেটাচ্ছে দিল্লি, বাংলার ভাঁড়ারে আসছে ৩৪৬১ কোটি টাকা

Published by: Soumya Mukherjee |    Posted: April 24, 2020 11:14 am|    Updated: July 3, 2020 5:54 pm

Finance Ministry sanctions Rs 46,038 crore as states share in taxes

ফাইল ফটো

সংবাদ প্রতিদিন ডিজিটাল ডেস্ক: লকডাউন (Lockdown) -এর জেরে দেশ তথা রাজ্যের আর্থিক পরিস্থিতি খুবই চিন্তাজনক জায়গায় রয়েছে। রোজগার না থাকলেও বাড়ছে খরচ। এই পরিস্থিতি জাতীয় বিপর্যয় মোকাবিলা তহবিল থেকে রাজ্যগুলির জন্য ১৭ হাজার ২৮৭ কোটি টাকা বরাদ্দ করেছিল কেন্দ্রীয় সরকার। তারপরও রাজ্যগুলির তরফে মহামারির হাত থেকে রক্ষা পাওয়ার জন্য বিশেষ প্যাকেজের দাবি জানানো হয়। আগামী সোমবার এই বিষয় নিয়ে মুখ্যমন্ত্রীদের সঙ্গে বৈঠক করার কথা রয়েছে প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদির। তবে তার আগেই কেন্দ্রীয় কর থেকে প্রাপ্য রাজ্যের এপ্রিল মাসের কিস্তির টাকা মিটিয়ে দেওয়ার অনুমোদন দিল অর্থমন্ত্রক। এর ফলে করোনা পরিস্থিতির মধ্যেই রাজ্যের ভাঁড়ার ঢুকতে চলছে ৩ হাজার ৪৬১ কোটি টাকা।

পঞ্চদশ অর্থ কমিশনের সুপারিশ মেনে এই সপ্তাহের প্রথমেই কেন্দ্রীয় কর থেকে রাজ্যগুলির এপ্রিল মাসের কিস্তি, ৪৬ হাজার ৩৮.১০ কোটি টাকা মিটিয়ে দেওয়ার বিষয়ে অনুমোদন দেওয়া হয়। টুইট করে একথা জানিয়েও দেয় অর্থ মন্ত্রক। এন কে সিংয়ের নেতৃত্বাধীন অর্থ কমিশন জম্মু ও কাশ্মীর এবং লাদাখ বাদে সমস্ত রাজ্য ও কেন্দ্রীয় শাসিত অঞ্চলগুলিকে কেন্দ্রীয় করের ৪১ শতাংশ দিতে সুপারিশ করেছে। শুধু জম্মু ও কাশ্মীর এবং লাদাখকে এক শতাংশ দিতে বলেছে।

[আরও পড়ুন: অসুস্থ ভিনরাজ্যে আটকে পড়া যুবক, ২০ হাজার টাকা সাহায্য পুলিশকর্মীর ]

এর ভিত্তিতে সবচেয়ে বেশি টাকা পাচ্ছে উত্তরপ্রদেশ (৮ হাজার ২৫৫.১৯ কোটি টাকা)। তারপর রয়েছে বিহার (৪ হাজার ৬৩১.৯৬ কোটি) ও মধ্যপ্রদেশ (৩ হাজার ৬৩০.৬ কোটি)। তবে জানা গিয়েছে, করোনা ভাইরাসের ফলে হওয়া লকডাউনের জন্য দেশের আর্থিক অবস্থা খারাপ। তাই অর্থ কমিশনের প্রতিনিধিদের সঙ্গে ইকনমিক অ্যাডভাইজরি কাউন্সিল একটি বৈঠকে হওয়ার কথা। সেখানে রাজ্যগুলিকে আর্থিক সাহায্য দেওয়ার বিষয়ে আলোচনা হবে বলে জানা গিয়েছে।

[আরও পড়ুন: কোয়ারেন্টাইনের নিয়ম ভেঙেছে ৬ মাসের শিশু! মামলা রুজু পুলিশের]

Sangbad Pratidin News App: খবরের টাটকা আপডেট পেতে ডাউনলোড করুন সংবাদ প্রতিদিন অ্যাপ
নিয়মিত খবরে থাকতে লাইক করুন ফেসবুকে ও ফলো করুন টুইটারে