৫ মাঘ  ১৪২৬  রবিবার ১৯ জানুয়ারি ২০২০ 

Menu Logo ফিরে দেখা ২০১৯ মহানগর রাজ্য দেশ ওপার বাংলা বিদেশ খেলা বিনোদন লাইফস্টাইল এছাড়াও বাঁকা কথা ফটো গ্যালারি ভিডিও গ্যালারি ই-পেপার

সংবাদ প্রতিদিন ডিজিটাল ডেস্ক: দিল্লির আনাজ মান্ডির বাজারে অগ্নিকাণ্ডের রেশ এখনও কাটেনি। এর মধ্যে আবার আগুনের গ্রাসে দিল্লির কিরারি মার্কেট এলাকা। মঙ্গলবার সকালে আসবাবপত্রের এই বাজারে আগুন লাগে। খবর পাওয়া মাত্রই ঘটনাস্থলে পৌঁছয় দমকলের ৮টি ইঞ্জিন। আগুন নেভানোর চেষ্টা চলছে।  

দমকল সূত্রে খবর, মঙ্গলবার কিরারি মার্কেটের একটি দোকানে আগুন লাগে। কাঠের আসবাবপত্রের জন্য দিল্লির এই বাজারের খ্যাতি দেশজোড়া। স্বাভাবিকভাবেই বাজারে মজুত ছিল প্রচুর কাঠের সামগ্রী। ফলে আগুন ছড়িয়ে পড়তে দেরি হয়নি। আগুন ধরে যায় পরপর কয়েকটি গুদাম ও দোকানে। এলাকা থেকে কালো ধোঁয়া বের হতে দেখে স্থানীয়রাই খবর দেয় দমকলে। ঘটনাস্থলে পৌঁছন দমকলকর্মীরা। দমকলের প্রায় ৮টি ইঞ্জিন আগুন নেভানোর চেষ্টা শুরু করেছে। যদিও আগুন এখনও নেভানো সম্ভব হয়নি। কিন্তু আগুন নিয়ন্ত্রণে এসেছে বলে জানিয়েছেন দমকলকর্মীরা। আর কিছুক্ষণের মধ্যেই আগুন নেভানো সম্ভব হবে বলে মনে করছেন তাঁরা। বাজারে পর্যাপ্ত অগ্নিনির্বাপণ ব্যবস্থা ছিল কিনা, খতিয়ে দেখা হচ্ছে তাও। ঘটনাস্থলে পৌঁছেছে পুলিশ। এখনও পর্যন্ত পাওয়া খবর অনুসারে, ঘটনায় কেউ হতাহত হননি। তবে প্রচুর আর্থিক ক্ষতি হয়েছে বলে অনুমান করা হচ্ছে।

[ আরও পড়ুন: মদ্যপান নিয়ে বচসার জের! সিনিয়রকে খুনের পর আত্মঘাতী ছত্তিশগড় পুলিশের কর্মী ]

গত পরশু, রবিবার ভোরবেলা দিল্লির আনাজ মান্ডি এলাকার চারতলা একটি বাড়িতে আগুন লাগে। বিল্ডিংটির একটা অংশ কারখানা হিসেবে ব্যবহৃত হয়। সেই সময় কারখানার ভিতরই ঘুমাচ্ছিলেন শ্রমিকরা। আচমকা আগুনের স্ফুলিঙ্গে ঘুম ভাঙে তাঁদের। চোখ খুলেই দেখেন ভিতরে আগুন লেগে গিয়েছে। দাউদাউ করে জ্বলছে সেখানে মজুত রাখা জিনিসপত্র। ঘটনাস্থলে পৌঁছায় দমকলের ১৫টি ইঞ্জিন। পরে আরও ইঞ্জিন এসে পৌঁছায় সেখানে। মোট ৩০টি ইঞ্জিনের চেষ্টায় আগুন নিয়ন্ত্রণে আসে। অগ্নিকাণ্ডে মৃত্যু হয় অন্তত ৪৩ জনের। বিল্ডিংয়ের ভিতর থেকে উদ্ধার করা হয় ৫০জনেরও বেশি বাসিন্দাকে। আহতদের নিয়ে যাওয়া হয় স্থানীয় হাসপাতালে। এই ঘটনার ২৪ ঘণ্টা কাটতে না কাটতেই ওই একই বিল্ডিংয়ে ফের আগুন লাগে। তবে দ্বিতীয়বারের এই আগুন লাগার ঘটনায় তেমন কোনও ক্ষতি হয়নি।

[ আরও পড়ুন: নাগরিকত্ব সংশোধনী বিলকে সমর্থনের জের, নিজের দলকেই তোপ প্রশান্ত কিশোরের ]

আরও পড়ুন

আরও পড়ুন

ট্রেন্ডিং