৩০ চৈত্র  ১৪২৭  মঙ্গলবার ১৩ এপ্রিল ২০২১ 

READ IN APP

Advertisement

‘ছেঁড়া জিনসে শরীর দেখাচ্ছে মেয়েরা! এ কেমন সংস্কার?’, মসনদে বসেই বিতর্কে উত্তরাখণ্ডের মুখ্যমন্ত্রী

Published by: Biswadip Dey |    Posted: March 17, 2021 4:39 pm|    Updated: March 19, 2021 10:37 am

An Images

সংবাদ প্রতিদিন ডিজিটাল ডেস্ক: নতুন সহস্রাব্দের প্রথম শতাব্দী শুরু হওয়ার পরও কেটে গিয়েছে দুই দশক। আজও এদেশে মহিলাদের পোশাক নিয়ে বিতর্কিত মন্তব্যের যেন শেষ নেই। তালিকায় নতুন সংযোজন তিরথ সিং রাওয়াত (Tirath Singh Rawat)। সদ্য উত্তরাখণ্ডের (Uttarakhand) মুখ্যমন্ত্রী হয়েছেন তিনি। মসনদে বসার পরই মেয়েদের ছেঁড়া জিনস পরার বিরুদ্ধে সরব হতে দেখা গেল তাঁকে। তিরথ পরিষ্কার জানালেন, ছেঁড়া জিনস পরে যেভাবে মহিলাদের রাস্তায় ঘুরে বেড়াতে দেখা যায়, তা মোটেই কোনও সুসংস্কারের নিদর্শন নয়। এবং এজন্য অভিভাবকদের কাঠগড়ায় তুললেন তিনি।

শিশু অধিকার সংরক্ষণ কমিশনের একটি কর্মশালার উদ্বোধনে এসে এমনই মন্তব্য করে বসলেন তিনি। ঠিক কী বলেছেন মুখ্যমন্ত্রী? এই ধরনের পোশাককে কাঠগড়ায় তুলে মুখ্যমন্ত্রী বলেন, ”হাঁটু দেখানো ছেঁড়া জিনস পরে ধনী পরিবারের সন্তান সাজা- এমনটাই তো মূল্যবোধ দেখা যাচ্ছে ইদানীং। বাড়ি থেকে শিক্ষা না পেলে এমনটা হয়? এতে স্কুল বা শিক্ষকদের দোষ কোথায়?” মেয়েদের পাশাপাশি ছেলেরাও এমন ছেঁড়া জিনস পরে আসলে পশ্চিমি সভ্যতাকেই পাগলের মতো নকল করার চেষ্টা করছে বলে অভিযোগ করেন তিরথ। তিনি আরও বলেন, ”যেখানে পশ্চিম আমাদের অনুসরণ করছে, যোগাসন করছে নিজেদের শরীর ঠিকমতো ঢেকে… সেখানে আমরা নগ্নতার দিকে দৌড়চ্ছি।”

[আরও পড়ুন: ‘বিহারের লোক টিকা পেল না কেন?’ ঝাড়গ্রাম থেকে বিজেপির বিরুদ্ধে ‘মিথ্যাচারে’র অভিযোগ মমতার]

এখানেই শেষ নয়। তিনি উদাহরণ হিসেবে তুলে ধরেন এক স্বেচ্ছাসেবী সংস্থার প্রধানের কথা। ওই মহিলা ছেঁড়া জিনস পরে তাঁর সঙ্গে দেখা করতে এসেছিলেন বলে জানান উত্তরাখণ্ডের মুখ্যমন্ত্রী। সেই প্রসঙ্গ তুলে তাঁর প্রশ্ন, এই ধরনের পোশাক পরা মহিলা কী শিক্ষা দেবেন অন্যদের? এই ধরনের পোশাক পরার পিছনে পরিবারগুলিকেই অভিযুক্ত করে তাঁর আরও দাবি, এভাবেই অভিভাবকদের পরোক্ষ প্রভাবেই সন্তানরা পরবর্তী সময়ে মদ্যপ ও মাদকসেবী হয়ে ওঠে।

প্রসঙ্গত, মহিলাদের খোলামেলা পোশাক পরা নিয়ে এই ধরনের মন্তব্য নতুন নয়। বহু ক্ষেত্রেই নানা অপরাধের জন্য মহিলাদের পোশাক পরাকেই দায়ী করা হয়। এনিয়ে অনেক প্রতিবাদ হলেও এমন মন্তব্য কমার কোনও লক্ষণ যে দেখা যাচ্ছে না, তা খোদ এক রাজ্যের মুখ্যমন্ত্রীরও এই ধরনের কথা বলা থেকে স্পষ্ট হল।

[আরও পড়ুন: আইন পালটে ২৪ সপ্তাহ পর্যন্ত গর্ভপাতে সায় রাজ্যসভার, আওতায় অবিবাহিতরাও]

Sangbad Pratidin News App: খবরের টাটকা আপডেট পেতে ডাউনলোড করুন সংবাদ প্রতিদিন অ্যাপ
নিয়মিত খবরে থাকতে লাইক করুন ফেসবুকে ও ফলো করুন টুইটারে

Advertisement

Advertisement

Advertisement

Advertisement

Advertisement