২১ অগ্রহায়ণ  ১৪২৬  রবিবার ৮ ডিসেম্বর ২০১৯ 

Menu Logo মহানগর রাজ্য দেশ ওপার বাংলা বিদেশ খেলা বিনোদন লাইফস্টাইল এছাড়াও বাঁকা কথা ফটো গ্যালারি ভিডিও গ্যালারি ই-পেপার

নন্দিতা রায়, নয়াদিল্লি: তৃণমূল কংগ্রেসের অভিনেত্রী বিধায়ক দেবশ্রী রায়ের বিজেপিতে যোগদান করাকে কেন্দ্র করে নাটকীয় পরিস্থিতি সৃষ্টি হল। বুধবার বিকেলে পূর্বনির্ধারিত সূচি অনুযায়ী তৃণমূল বিধায়ক ও কলকাতার প্রাক্তন মেয়র শোভন চট্টোপাধ্যায় ও শিক্ষাবিদ বৈশাখী বন্দ্যাপোধ্যায় বিজেপিতে যোগদান করার জন্য দিল্লিতে বিজেপির সদর দপ্তরে হাজির হন। খানিক পরেই সেখানে উপস্থিত হন দেবশ্রীও। তিনজনেই একসঙ্গে বিজেপিতে যোগদান করতে চলেছেন বলে খবর ছডিয়ে পডে।

কিন্তু খানিক পরে বিজেপির কেন্দ্রীয় নেতাদের উপস্থিতিতে শোভন বাবু ও বৈশাখী দেবীই বিজেপিতে যোগ দেন। বিজেপির সদর দপ্তরের তিন তলার ঘরে বসে থাকতে দেখা যায় দেবশ্রীকে। তবে, তিনি কেন এবং কার সঙ্গে বিজেপির দপ্তরে হাজির হয়েছিলেন তা নিয়ে ধোঁয়াশা রয়েছে। রাজ্য বিজেপি নেতা মুকুল রায়কে এবিষয়ে প্রশ্ন করা হলে তিনি স্পষ্ট জানান, “ দেবশ্রীর সঙ্গে বিগত পাঁচ বছর আমার কোনো যোগাযোগ নেই । তিনি কেন এবং কার সঙ্গে এখানে এসেছেন সেবি আমার কিছু জানা ছিল না। “
জানা গিয়েছে এদিন বিজেপির কার্যনির্বাহী সভাপতি জে পি নাড্ডাকে শোভনবাবু স্পষ্ট জানিয়েছেন , “ তৃণমূলে আমার বিরুদ্ধে চক্রান্ত করা হয়েছিল। তৃণমূলে যারা আমার বিরুদ্ধে চক্রান্ত করেছে তাদের মধ্যে দেবশ্রী রায়ও ছিলেন। যাদের জন্য আমাকে তৃণমূলে অপদস্থ হতে হয়েছিল তাদের কেউ বিজেপিতে এলে সেটাই আমার বিজেপিতে শেষদিন হবে।”
বিশ্বস্ত সূত্রের খবর , এই ধরণের কোনো পরিস্থিতি সৃষ্টি হবে না বলে নাড্ডা এদিন শোভনবাবুকে আশ্বস্ত করেছেন । এদিকে , রাজ্য বিজেপির সহ সভাপতি জয়প্রকাশ মজুমদারের সঙ্গে যোগাযোগ করেই দেবশ্রী এদিন বিজেপিতে যোগ দিতে এসেছিলেন বলে জল্পনা শোনা গিয়েছে। যদি তিনি নিজে একথা ভিত্তিহীন বলে খারিজ করে দিয়েছেন। জয়প্রকাশ বলেছেন, “ আমার উপর দায়িত্ব ছিল শোভন চাটার্জি এবং বৈশাখী ব্যানার্জিকে এখানে আনার। সেই দায়িত্ব আমি পালন করেছি। এখানে এসে জানতে পারি দেবশ্রীও এসেছেন। উপরে বসে আছেন। যদিও আমার সঙ্গে তাঁর দেখা হয়নি । আমি তাঁকে এদিন চোখেও দেখিনি। এদিন সিদ্ধান্ত হয় আমরা তাঁকে নেব না। কারণ, বিজেপিতে যোগদান করার একটা পদ্ধতি ও নিয়ম আছে। “

আরও পড়ুন

আরও পড়ুন

ট্রেন্ডিং