১৭  আষাঢ়  ১৪২৯  শনিবার ২ জুলাই ২০২২ 

READ IN APP

Advertisement

Advertisement

ওঝার নিদান! রোগ নিরাময়ে চন্দ্রগ্রহণের রাতে কাটা হল শিশুকন্যার মাথা

Published by: Sangbad Pratidin Digital |    Posted: February 7, 2018 6:57 pm|    Updated: February 7, 2018 6:57 pm

Hyderabad: Priest beheads infant on super blue blood moon

সংবাদ প্রতিদিন ডিজিটাল ডেস্ক: হাড় হিম করা ঘটনা। চন্দ্রগ্রহণের রাতে শিশুকন্যার মাথা কাটলে সুস্থ হবে স্ত্রী। ধর্মগুরুর এ হেন নিদানে মাথা কাটা গেল তিনমাসের শিশু কন্যার। এমনই অভিযোগ উঠেছে। এই ঘটনায় ইতিমধ্যেই ওই ধর্মগুরু-সহ দুজনকে গ্রেপ্তার করেছে পুলিশ। ঘটনাটি ঘটেছে হায়দরাবাদের চিলকানগর জেলায়।

[প্রত্যেক ভারতীয়ই জন্মসূত্রে হিন্দু, কাটিয়ারের মন্তব্যে প্রতিক্রিয়া সুব্রহ্মণ্যম স্বামীর]

জানা গিয়েছে, চিলকানগর এলাকার একটি বাড়ির ছাদ থেকে বেশ কিছু কাটা মাথা উদ্ধার করেছে পুলিশ। মাথাগুলি শিশুকন্যার। তারপরেই তদন্তে নামে স্থানীয় থানার পুলিশ। জানা গিয়েছে, চন্দ্রগ্রহণ উপলক্ষে সংশ্লিষ্ট এলাকায় বিশেষ সক্রিয় হয়ে উঠেছিল একটি চক্র। চক্রের প্রধান একজন ওঝা। তার মতে, চন্দ্রগ্রহণের সময় শিশুকন্যাকে বলি দিলে জটিল অসুখে আক্রান্তরা সুস্থ হয়ে উঠবেন। অভিযোগ, তারপরেই বিভিন্ন এলাকা থেকে শিশুকন্যাকে অপহরণ করে এনে এই দুষ্কর্মটি চালানো হয়। এখনও পর্যন্ত দুজনকে গ্রেপ্তার করলেও এই নৃশংস ঘটনার সঙ্গে যুক্ত আরও তিনজনকে খুঁজছে পুলিশ। পলাতক তিন অভিযুক্তের মধ্যে দুজন ধর্মগুরু সহ তিনজন রয়েছে। তিন নম্বর ব্যক্তির নাম রাজশেখর। রাজশেখরের স্ত্রী অসুস্থতার কারণে শয্যাশায়ী। স্ত্রীকে সুস্থ করতেই ওই ধর্মগুরুর শরণাপন্ন হয়েছিল সে।

LUNAR-ECLIPS

পুলিশ জানিয়েছে, একটি শিশুকে শনাক্ত করা সম্ভব হয়েছে। চিলকা নগরের অদূরে অবস্থিত আদিবাসী গ্রাম করিমনগর থেকে তিনমাসের শিশুকে অপহরণ করা হয়েছিল। তবে অন্য শিশুগুলির নিখোঁজ হওয়ার কোনও খবর নেই। শিশু নিখোঁজের কোনওরকম অভিযোগও থানায় জমা পড়েনি। সম্ভবত চন্দ্রগ্রহণের সময়ই হত্যাকাণ্ড চালিয়েছিল অভিযুক্তেরা। ধৃত দুজনকে জেরা করে বিস্তারিত জানার চেষ্টা চলছে। বাকিদের খোঁজেও তল্লাশি শুরু হয়েছে। গোটা ঘটনায় ক্ষুব্ধ চিলকানগর এলাকার বাসিন্দারা। লোকালয়ে এধরনের ঘটনা ঘটায় আতঙ্কিত অভিভাবকরা। অভিযুক্তদের দৃষ্টান্তমূলক শাস্তির দাবি উঠেছে।

[মুসলিমদের ভারতে থাকা উচিত নয়, আক্রমণাত্মক বিজেপি সাংসদ কাটিয়ার]

Sangbad Pratidin News App: খবরের টাটকা আপডেট পেতে ডাউনলোড করুন সংবাদ প্রতিদিন অ্যাপ
নিয়মিত খবরে থাকতে লাইক করুন ফেসবুকে ও ফলো করুন টুইটারে